ফৌজদারি মামলা | ভারতীয় রাজনীতি – Indian Polity in Bengali | WiN EXAM

0
7
ফৌজদারি মামলা | ভারতীয় রাজনীতি - Indian Polity in Bengali | WiN EXAM

ভারতীয় রাজনীতি – Indian Polity in Bengali | WiN EXAM

ফৌজদারি মামলা

Best selling book's

ফৌজদারি মামলা 

ফৌজদারি মামলার পদ্ধতি ‘ ক্রিমিনাল প্রসিডিওর কোড ‘ দ্বারা নিয়ন্ত্রিত । পুলিশ এই কার্যবিধি অনুযায়ী চলে । ইচ্ছেমত কিছু করার উপায় নেই । 

Q. গ্রেফতার কাকে বলে ?

উত্তরঃ বিশয়টি অনেক বড় ব্যাপার ও আইনে অনেক ব্যাখ্যা আছে । সহজ কথায় যদি সব বিশয় থেকে কারো স্বাধীনতাকে হরন করা হয় তবে তাকে সাধারন চিন্তাতে অ্যারেস্ট বলে । 

Q. গ্রেফতার কে করতে পারে ?

উত্তরঃ পুলিশ গ্রেফতার করতে পারে । তবে , ইচ্ছেমত গ্রেফতার করা যায় না । গ্রেফতার করতে সংশ্লিষ্ট ন্যায়াধীশের অনুমতি সাপেক্ষ আদেশ সাপেক্ষ আদেশ ছাড়া কাউকে গ্রেফতার করা যায় না । গ্রেফতার করার পর পুলিশের কর্তব্য হচ্ছে ওই ব্যাক্তিকে জানানো , তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে কি কারনে এবং তিনি জামিন পাওয়ার অধিকারী কিনা । গ্রেফতার করার ২৪ ঘণ্টার মধ্যেম সংশ্লিষ্ট ব্যাক্তিকে সংশ্লিষ্ট আদালতে হাজির করতে হবে । আদালত যাবতীয় বিষয় বিবেচনার পর আদেশ দিয়ে থাকেন । 

Q. ওয়ারেন্ট কাকে বলে ?

উত্তরঃ গ্রেফতার করার আদেশকে বিধিবদ্ধভাবে সংশ্লিস্ট ন্যায়াধীশ দ্বারা ঘোষিত স্বাক্ষরিত ও প্রেরিত একক অর্থে ওয়ারেন্ট বলে । 

Q. সমন কাকে বলে ?

উত্তরঃ সমন মানে আদালতে হাজির হওয়ার আদেশ ।

Q. দেওয়ানি আইন?

উত্তরঃ দেওয়ানি মামলার পদ্ধতি সিভিল প্রসিডিওর কোর্ট দ্বারা নিয়ন্ত্রিত । এতে সব বিষয়ের বিধান আছে  । কিছু গুরুত্বপূর্ণ বিধি হল – 

১। ইনজাংশান – ইনজাংশান মানে নিষেধাজ্ঞা । অর্থাৎ কিনা কারো / কোনো প্রতিষ্ঠান / অন্যান্য কিছুর কাজকর্মের ফলে অন্য কোনো প্রতিষ্ঠানের কিছু সম্পত্তি ক্ষতিগ্রস্ত , নষ্ট বা পরিবর্তন বা অন্যায় ভাবে বিক্রির জন্য অথবা প্রতিপক্ষের কৃতকর্মের ফলে ঐ ধরনের কার্যাবলী হওয়ার সম্ভাবনা আছে এমন অবস্থায় ঐ কাজ বন্ধ । ঘট্মান হওয়ার সম্ভবনাকে বিনষ্ট হওয়ার পদ্ধতিগত প্রয়োগ হিসাবে ইনজাংশান বা নিষেধাজ্ঞা জারি করা সম্ভব । নিষেধাজ্ঞা দুই প্রকার – স্থায়ী ও অস্থায়ী । 

২। ক্রোক – ডিক্রির মাধ্যমে আদালত জাবতীয় সম্পত্তি ক্রোক করার আদেশ দিতে পারে । স্থাবর ও অস্থাবর উভয় ক্ষেত্রে এই ক্রোক বলবত থাকে । 
কী কী ক্রোক করা যায় না : 
১। বিছানাপত্র , ২। কৃষকের যন্ত্রপাতি , ৩। ধর্মীয় প্রথা অনুযায়ী গহনা , ৪। হিসাবের খাতা , ৫। গৃহভৃত্যের বেতন , ৬। সরকারি কর্মীর স্টাইপেন্ড , ৭ । সাসপেন্ড অবস্থায় প্রাপ্ত বেতন ।

Q. রিসিভার নিয়োগ ?

উত্তরঃ বিতর্কিত সম্পত্তির ক্ষেত্রে যা উপযুক্ত নিয়ন্ত্রকের অভাবে নষ্ট হতে বসেছে কিন্ত তার রক্ষণাবেক্ষণ ও আয় সংগ্রহ ইত্যাদি কারনে আদালত রিসিভার নিয়োগ করে ।

ভারতীয় রাজনীতি -Indian Polity / রাষ্ট্রবিজ্ঞনের (Political Science)  আরও তথ্য জানতে winexam.in ওয়েবসাইট ফলো করুন, ধন্যবাদ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here