ধর্ষণ ও ধর্ষণের শাস্তি | ভারতীয় আইন – Indian Law in Bengali | WiN EXAM

0
9
ধর্ষণ ও ধর্ষণের শাস্তি | ভারতীয় আইন - Indian Law in Bengali | WiN EXAM

ভারতীয় আইন – Indian Law in Bengali | WiN EXAM

Best selling book's

ধর্ষণ ও ধর্ষণের শাস্তি

দৈনিক সংবাদপত্র খুললে কিংবা টিভি চ্যানেলের রোজকার খবর ‘রেপ’। আইনের চোখে ধর্ষণ বলতে বোঝায় কোন মহিলার সঙ্গে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে জোর করে সহবাস করা। যৌন হেনস্থার সর্বাত্মক রূপ ‘রেপ’। এই রেপের নানা প্রকারভেদ রয়েছে। যেমন, নাবালিকাকে ধর্ষন, গর্ভবতী মহিলাকে ধর্ষন, পুলিশের হেপাজতে থাকা মহিলার ধর্ষন বা কোন উচ্চপদস্থ আধিকারিক 
দ্বারা অধীনস্থ কর্মচারী ধর্ষন। সেজন্য একটি মাপকাঠি দিয়ে সব ধরনের ধর্ষনকান্ড বিচার করা যায় না।
ধর্ষনের ঘটনা ঘটলেঃ ঘটনা ঘটার সঙ্গে সঙ্গে অভিযোগ দায়ের করতে হবে। দুভাবে অভিযোগ নেওয়া হয়। জিডি এবং এফআইআর। জিডি অর্থাৎ জেনারেল ডায়ারি হল পুলিশের লগবুক। থানায় যে অভিযোগ নথিভুক্ত হয়, তা জিডিতে তুলে রাখা হয়। অধর্তব্য অপরাধের ক্ষেত্রে জিডি লেখা হয়। কিন্তু ধর্তব্য অপরাধের ক্ষেত্রে জিডি নয়, এফআইআর করতে হয়। এই এফআইআর-এর ভিত্তিতে পুলিশ গ্রেফতার, তদন্ত ও চার্জশিট দেয়। 
১. অভিযোগ নিজের হাতে লেখা উচিৎ। থানায় যাওয়ার আগে পুরো ঘটনাটি নিজে লিখে বা বিশ্বাসযোগ্য কাউকে দিয়ে লিখিয়ে নিয়ে যেতে পারেন। সংশ্লিষ্ট থানার পুলিশ অফিসার অভিযোগ লিখলে সেটা লেখার পর শুনে নেবেন।
২. পুলিশকে জানাবেন, অভিযোগকারিণীর বয়স, কবে, কখন, কোথায় ঘটনা ঘটেছে, অপরাধী ক’জন।
● অভিযোগকারিণী যা করবেনঃ
১. পরিবারের সদস্যদের বিষয়টি জানান।
২. পোশাক কাচবেন না। পুলিশি তদন্তে সেটি কাজে লাগে।
৩. সাবান দিয়ে ঘষে স্নান করবেন না। এতে শারীরিক অত্যাচারের চিহ্ন মুছে যেতে পারে।
৪. খুব দ্রুত থানায় অভিযোগ জানাতে হবে। না হলে বিভিন্ন তথ্য প্রমান মুছে যেতে পারে।
৫. নিজে থেকে সরকারি হাসপাতালে পরীক্ষা করিয়ে আসতে পারেন।
● স্থানীয় পুলিশ অভিযোগ নিতে অস্বীকার করলেঃ
ধর্ষনের নয়া বিধি ও গণমাধ্যমের চাপে পুলিশ এখন ধর্ষনের তদন্ত প্রক্রিয়ায় যথেষ্ট সক্রিয়। যদি চাপে পড়ে বা অন্য কারনে স্থানীয় থানা জিডি এবং এফআইআর নিতে অস্বীকার করে,সরাসরি লালবাজারে অভিযোগ দায়ের করতে
● শাস্তির বিধানঃ কেসের অবস্থা ও গুরুত্ত বিচার করে শাস্তি হয়। ভারতীয় দন্ডবিধির ৩৭৬ ধারা অনুযায়ী, যেকোন ধর্ষনকারী অন্তত ৭ বছর বা ১০ বছর কিংবা যাবজ্জীবন কারাদন্ডে দন্ডিত হবে। তার সঙ্গে জরিমানা হতে পারে যদি ধর্ষিতা তাঁর স্ত্রী না হন। অন্যথায় ২ বছর কারাদণ্ড বা জরিমানা অথবা দুটো হতে পারে। ঘটনার সত্যতা প্রমান করার দায়িত্ব পাবলিক প্রসিকিউটারের উপর।
ভারতীয় আইন – Indian Law / রাষ্ট্রবিজ্ঞনের (Political Science / Indian Polity)  আরও তথ্য জানতে winexam.in ওয়েবসাইট ফলো করুন, ধন্যবাদ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here