অসুখী একজন – পাবলো নেরুদা – বাংলা কবিতা | মাধ্যমিক বাংলা সাজেশন | Madhyamik Bengali Suggestion – WBBSE | WiN EXAM

0
49
কবিতা - অসুখী একজন - পাবলো নেরুদা | মাধ্যমিক বাংলা সাজেশন | Madhyamik Bengali Suggestion - WBBSE | WiN EXAM

Madhyamik Bengali Suggestion – WBBSE with PDF | মাধ্যমিক বাংলা সাজেশন

কবিতা – অসুখী একজন – পাবলো নেরুদা

বহুবিকল্পীয় প্রশ্ন
সঠিক উত্তরটি নির্বাচন করো : (প্রশ্নমান – ১)
১. পাবলো নেরুদার প্রকৃত নাম
(ক) নেফতালি রিকার্দো রেয়েস বাসোয়ালতো (খ) নেকলি রিকার্দো রেয়েন্স বাসোয়ালতো (গ) গাব্রিয়েল গার্সিয়া মার্কেস (ঘ) গঞ্জালেস ভিদেলা
উত্তরঃ (ক) নেফতালি রিকার্দো রেয়েস বাসোয়ালতো
২. ‘অসুখী একজন’ কবিতাটির অনুবাদক কে?
(ক) পাবলো নেরুদা (খ) সুভাষ মুখোপাধ্যায় (গ) নবারুণ ভট্টাচার্য (ঘ) শঙ্খ ঘোষ
উত্তরঃ (গ) নবারুণ ভট্টাচার্য
৩. “সে জানত না”—কী জানত না?
(ক) ভয়ংকর যুদ্ধ শুরু হবে (খ) কঠিন দুঃখ নেমে আসবে তার জীবনে (গ) আমি আর কখনও ফিরে আসব না (ঘ) আমি চলে যাব বহু দূরে
উত্তরঃ (গ) আমি আর কখনও ফিরে আসব না
৪. “আমি তাকে ছেড়ে দিলাম…”।-বলেছেন
(ক) কবিতার অনুবাদক (খ) কবি স্বয়ং (গ) প্রেমেন্দ্র মিত্র (ঘ) শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়
উত্তরঃ (খ) কবি স্বয়ং
৫. “বৃষ্টিতে ধুয়ে দিল”—কী ধুয়ে দিল?
(ক) রক্তের দাগ (খ) পথের ধুলো (গ) সমস্ত ময়লা (ঘ) পায়ের দাগ
উত্তরঃ (ঘ) পায়ের দাগ
৬. ‘ঘাস জন্মালো”-কোথায় ‘ঘাস জন্মালো?
(ক) রাস্তায় (খ) গৃহাঙ্গনে (গ) জমিতে (ঘ) ময়দানে
উত্তরঃ (ক) রাস্তায়
৭. “হেঁটে গেল”—কে হেঁটে গেল?
(ক) একটি মেয়ে (খ) একটি কুকুর (গ) গির্জার এক নান (ঘ) একজন সন্ত
উত্তরঃ (গ) গির্জার এক নান
৮. “বছরগুলো নেমে এল তার মাথার ওপর”-“বছরগুলো কেমন ?
(ক) নদীর স্রোতের মতো (খ) আগ্নেয় পাহাড়ের মতো (গ) ছড়ানো করতলের মতো (ঘ) পাথরের মতো
উত্তরঃ (ঘ) পাথরের মতো
৯. “ধরে গেল আগুন”—কোথায় আগুন ধরে গেল ?
(ক) সমতলে (খ) পাহাড়ে (গ) জঙ্গলে (ঘ) গ্রাম-গঞ্জে
উত্তরঃ (ক) সমতলে
১০. “তারপর যুদ্ধ এল”—এ যুদ্ধ কেমন?
(ক) রক্তের এক নদীর মতো (খ) রক্তের এক সমুদ্রের মতো (গ) রক্তের এক আগ্নেয় পাহাড়ের মতো (ঘ) কোনোটিই নয়
উত্তরঃ (গ) রক্তের এক আগ্নেয় পাহাড়ের মতো
১১. “মৃত্যু হলো না”-কার মৃত্যু হল না?
(ক) কবির (খ) কবিতার (গ) মেয়েটির (ঘ) শিশুটির
উত্তরঃ (গ) মেয়েটির
১২. কবিতার কথক ঘুমিয়েছিলেন
(ক) ঝুলন্ত বিছানায় (খ) দুগ্ধ ফেননি শয্যায় (গ) সুদৃশ্য পালঙ্কে (ঘ) তক্তপোশে
উত্তরঃ (ক) ঝুলন্ত বিছানায়
১৩. কারা হাজার বছর ধরে ধ্যানে ডুবেছিল ?
(ক) সন্ন্যাসীরা (খ) নানরা (গ) দেবতারা (ঘ) সাধক
উত্তরঃ (গ) দেবতারা
১৪. “তারা আর স্বপ্ন দেখতে পারল না”-এখানে কাজের কথা বলা হয়েছে ?
(ক) কবির পরিচিত ব্যক্তিবর্গের (খ) চিলির বাসিন্দাদের (গ) শান্ত হলুদ দেবতাদের (ঘ) ধ্যানমগ্ন সন্ন্যাসীদের
উত্তরঃ (গ) শান্ত হলুদ দেবতাদের
১৫. ছড়ানো করতলের মতো পাতা
(ক) গোলাপি গাছ (খ) ঝুলন্ত বিছানা (গ) মিষ্টি বাড়ি (ঘ) চিমনি
উত্তরঃ (ঘ) চিমনি
১৬. ছড়িয়ে থাকা বীভৎস মাথা হল
(ক) মানুষের (খ) কুকুরের (গ) মন্দিরের (ঘ) পাথরের মূর্তির
উত্তরঃ (ঘ) পাথরের মূর্তির
১৭. কথক যে বাড়িতে ঘুমিয়েছিলেন সে বাড়ির গাছের রং
(ক) গোলাপি (খ) সবুজ (গ) হলুদ (ঘ) বেগুনি
উত্তরঃ (ক) গোলাপি
১৮. ‘অসুখী একজন’ কবিতার কথকের বাড়িটি কেমন ছিল?
(ক) সুন্দর (খ) প্রাচীন (গ) মিষ্টি (ঘ) সাজানো
উত্তরঃ (গ) মিষ্টি
১৯. “একটা কালো দাগ”-কালো দাগটি হল
(ক) পায়ের দাগ (খ) কাঠকয়লার দাগ (গ) রক্তের দাগ (ঘ) পাথরের দাগ
উত্তরঃ (গ) রক্তের দাগ
২০. যেখানে ছিল শহর সেখানে ছড়িয়ে রইল
(ক) কাঠকয়লা (খ) দোমড়ানো লোহা (গ) মূর্তির বীভৎস মাথা (ঘ) সবগুলিই
উত্তরঃ (ঘ) সবগুলিই
২১. ‘জলতরঙগ’ হল
(ক) জলের ঢেউ (খ) জলের শব্দ (গ) অট্টালিকা বিশেষ (ঘ) বাদ্যযন্ত্র বিশেষ
উত্তরঃ (ঘ) বাদ্যযন্ত্র বিশেষ
২২. পাবলো নেরুদার কোন্ গ্রন্থকে চিলির মহাকাব্য বলা হয়?
(ক) পঞ্চভূতের স্তোত্র (খ) ভাটিয়ালি (গ) নিষ্ফল ভূগোল (ঘ) কান্তো সর্বময়
উত্তরঃ (ঘ) কান্তো সর্বময়
২৩. “দেবতারা/যারা…ডুবে ছিল ধ্যানে”—তাদের গায়ের রং
(ক) কালো (খ) সাদা (গ) হলুদ (ঘ) নীল
উত্তরঃ (গ) হলুদ

অতিসংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমান – ১)
১. “আমি তাকে ছেড়ে দিলাম”—কে, কাকে ছেড়ে দিলেন?
উত্তরঃ ‘অসুখী একজন’ কবিতার কবি তার ভালোবাসার মেয়েটিকে ছেড়ে দিলেন।
২. “চলে গেলাম দূর … দূরে”—কে, কীভাবে দূরে চলে গেলেন?
উত্তরঃ ‘অসুখী একজন’ কবিতার কবি তাঁর প্রণয়িনীকে তার অপেক্ষায় দরজায় দাঁড় করিয়ে রেখে দূরে চলে গেলেন।
৩. “সে জানত না”—কে, কী জানত না ?
উত্তরঃ ‘অসুখী একজন’ কবিতার কবির প্রণয়িনী জানত না যে, তার প্রেমাস্পদ আর কখনও তার কাছে ফিরে আসবেন না।
৪. “বৃষ্টিতে ধুয়ে দিল আমার পায়ের দাগ”—কথাটির তাৎপর্য কী?
উত্তরঃ কথাটির তাৎপর্য হল ভালোবাসার মেয়েটিকে ছেড়ে চলে যাওয়ার পর ধীরে ধীরে দীর্ঘ সময় অতিক্রান্ত হল, মুছে গেল কবির সব চিহ্ন।
৫. “ঘাস জন্মালো রাস্তায়”—কথাটির মধ্যে দিয়ে কী বোঝানো হয়েছে?
উত্তরঃ কথাটির মধ্যে দিয়ে দীর্ঘ সময় অতিক্রান্ত হওয়ার কথাই বোঝানো হয়েছে।
৬. ‘অসুখী একজন’ কবিতাটি মূলত কী জাতীয় কবিতা?
উত্তরঃ ‘অসুখী একজন’ কবিতাটি মূলত যুদ্ধের পটভূমিকায় বিষাদঘন একটি প্রেমের কবিতা।
৭. “তারপর যুদ্ধ এল”—যুদ্ধকে কীসের সঙ্গে তুলনা করা হয়েছে?
উত্তরঃ তারপর যে যুদ্ধ এসেছিল তাকে রক্তের এক আগ্নেয় পাহাড়ের সঙ্গে তুলনা করা হয়েছে।
৮. “সেই মেয়েটির মৃত্যু হলো না।”—এখানে কোন মেয়েটির কথা বলা হয়েছে?
উত্তরঃ ‘অসুখী একজন’ কবিতার কবির প্রণয়িনী যে মেয়েটি তার মনের মানুষটি চলে যাওয়ার পরেও তার প্রতীক্ষায় দিন গুনছিল, তার কথাই বলা হয়েছে।
৯. “তারা আর স্বপ্ন দেখতে পারল না।”—এখানে কাদের কথা বলা হয়েছে?
উত্তরঃ শান্ত হলুদ দেবতারা, যারা হাজার বছর ধরে ডুবেছিল ধ্যানে এবং মন্দির থেকে উলটে পড়েছিল টুকরো টুকরো হয়ে, এখানে তাদের কথাই বলা হয়েছে।
১০. ‘অসুখী একজন’ কবিতার কবি কোথায় ঘুমিয়েছিলেন?
উত্তরঃ ‘অসুখী একজন’ কবিতার কবি ঘুমিয়েছিলেন তার মিষ্টি বাড়ির বারান্দার ঝুলন্ত বিছানায়।
১১. যুদ্ধের আগুনে কী কী জ্বলে গিয়েছিল?
উত্তরঃ যুদ্ধের আগুনে জ্বলে গিয়েছিল গোলাপি গাছ, ছড়ানো করতলের মতো পাতা চিমনি, প্রাচীন জলতরণ।
১২. আগে যেখানে শহর ছিল, যুদ্ধের পর সেখানে কী ছড়িয়ে রইল?
উত্তরঃ আগে যেখানে শহর ছিল যুদ্ধের পর সেখানে ছড়িয়ে রইল কাঠকয়লা, দোমড়ানো লোহা, পাথরের মূর্তির বীভৎস মাথা, রক্তের কালো দাগ।
১৩. “উল্টে পড়ল মন্দির থেকে” কারা, কীভাবে উলটে পড়েছিল ?
উত্তরঃ শান্ত হলুদ ধ্যানমগ্ন দেবতারা টুকরো টুকরো হয়ে উলটে পড়েছিল।
১৪. “সব চূর্ণ হয়ে গেল,” -কী চূর্ণ হয়ে গিয়েছিল?
উত্তরঃ চূর্ণ হয়ে গিয়েছিল কবির মিষ্টি বাড়ি, ছড়ানো করতলের মতো পাতা চিমনি এবং প্রাচীন জলতরঙ্গ।
১৫. যুদ্ধ আসার ফলে কোথায় আগুন ধরে গিয়েছিল?
উত্তরঃ যুদ্ধ আসার ফলে সমস্ত সমতলে আগুন ধরে গিয়েছিল।

ব্যাখ্যাভিত্তিক সংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমান – ৩)
১ “সে জানত না”- ‘সে’ কে? সে কী জানত না ?
২. “ঘাস জন্মালো রাস্তায়”- কথাটির তাৎপর্য ব্যাখ্যা করো।
৩. বছরগুলো/নেমে এল তার মাথার ওপর”- বছরগুলোকে কীসের সঙ্গে তুলনা করা হয়েছে এবং কেন? ১+২
৪. “তারপর যুদ্ধ এল”—যুদ্ধকে কীসের সঙ্গে তুলনা করা হয়েছে? যুদ্ধ আসার ফলে কী হয়েছিল? ১+২
৫. “রক্তের একটা কালো দাগ” –কোথায়, কখন রক্তের কালো দাগ দেখা গিয়েছিল? কার রক্তের দাগের কথা এখানে বলা হয়েছে ? ১+২
৬. “সেই মেয়েটির মৃত্যু হলো না”—কথাটির তাৎপর্য বিশ্লেষণ করো।
৭. “তারা আর স্বপ্ন দেখতে পারল না”—এখানে কাদের কথা বলা হয়েছে? তাদের স্বপ্ন দেখতে না-পারার কারণ কী? ১+২
৮. “যেখানে আমি ঝুলন্ত বিছানায় ঘুমিয়েছিলাম”- কে, কখন, কোথায় সুলত বিছানায় ঘুমিয়েছিলেন? সেই বিছানার পরিণতি কী হয়েছিল এবং কেন? ১+২
৯. “আর সেই মেয়েটি আমার অপেক্ষায়”—কোন্ মেয়েটির কথা বলা হয়েছে? ‘আমার অপেক্ষায়’ বলার তাৎপর্য কী? ১+২
১০. “সব চূর্ণ হয়ে গেল, জ্বলে গেল আগুনে”—চূর্ণ হওয়া এবং জ্বলে যাওয়ার কারণ কী?
১১. “যেখানে ছিল শহর/সেখানে ছড়িয়ে রইল কাঠকয়লা।”—‘অসুখী একজন কবিতা অবলম্বনে শহরের এই পরিণতি কীভাবে হল লেখো।

রচনাধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমান – ৫)
১. ‘অসুখী একজন’ কবিতাটির নামকরণের সার্থকতা বিচার করো।
২. ‘অসুখী একজন’ কবিতাটি একটি বিরহবেদনামূলক কবিতা—আলোচনা করো।
৩. “আমি তাকে ছেড়ে দিলাম”—ছেড়ে দেওয়ার পর যে ঘটনাগুলি ঘটেছিল, তা সংক্ষেপে লেখো।
৪. ‘অসুখী একজন’ কবিতায় অসুখী কে এবং কেন? ১+৪
৫. “তারপর যুদ্ধ এল’– যুদ্ধের ভয়ংকর রূপের একটি সংক্ষিপ্ত পরিচয় লিপিবদ্ধ করো।
৬. “বছরগুলো/নেমে এল তার মাথার ওপর।”—তার’ বলতে কার কথা বলা হয়েছে? বছরগুলো কীরকম ছিল? “নেমে এল’কথাটির তাৎপর্য কী? ১+২+২
৭. “শিশু আর বাড়িরা খুন হলো/সেই মেয়েটির মৃত্যু হল না।”—কী কারণে শিশু ও বাড়িরা খুন হল? মেয়েটির মৃত্যু না-হওয়ার কারণ কী? ১+৪
৮. “তারা আর স্বপ্ন দেখতে পারল না।”-‘তারা’ কারা? তাদের স্বপ্ন দেখতে না-পারার বিষয়টি স্পষ্ট করো। ১+৪
৯. “সেই মিষ্টি বাড়ি, সেই বারান্দা/যেখানে, আমি ঝুলন্ত বিছানায় ঘুমিয়ে ছিলাম” এর মাধ্যমে বক্কার কোন্ বক্তব্য প্রকাশ পেয়েছে, লেখো।
পাঠ্যগত ব্যাকরণ

বহুবিকল্পীয় প্রশ্ন (প্রশ্নমান – ১)
সঠিক উত্তরটি নির্বাচন করো
কারক-বিভক্তি
১. “আমি তাকে ছেড়ে দিলাম/অপেক্ষায় দাঁড় করিয়ে রেখে দরজায়।”-রেখাঙ্কিত পদটি
(ক) কর্মকারকে ‘য় বিভক্তি (খ) অধিকরণ কারকে ‘য়’ বিভক্তি (গ) অপাদান কারকে ‘য়’ বিভক্তি (ঘ) নিমিত্ত কারকে ‘য়’ বিভক্তি
উত্তরঃ (খ)
২. “আমি চলে গেলাম দূর… দূরে।”-রেখাঙ্কিত পদটি
(ক) অধিকরণ কারকে ‘এ’ বিভক্তি (খ) কর্মকারকে ‘এ’ বিভক্তি (গ) করণকারকে ‘এ’ বিভক্তি (ঘ) অপাদান কারকে ‘এ’ বিভক্তি
উত্তরঃ (ক)
৩. “সে জানত না আমি আর কখনো ফিরে আসব না।”—রেখাঙ্কিত পদটি
(ক) কর্মকারকে ‘শূন্য’ বিভক্তি (খ) কর্তৃকারকে ‘শূন্য’ বিভক্তি (গ) করণকারকে ‘শূন্য’ বিভক্তি (ঘ) অপাদান কারকে ‘শূন্য’ বিভক্তি
উত্তরঃ (খ)
৪. “একটা সপ্তাহ… কেটে গেল।”-রেখাঙ্কিত পদটি
(ক) কর্মকারকে ‘শূন্য’ বিভক্তি (খ) অধিকরণ কারকে ‘শূন্য’ বিভক্তি (গ) কর্তৃকারকে ‘শূন্য’ বিভক্তি (ঘ) নিমিত্ত কারকে ‘শূন্য’ বিভক্তি
উত্তরঃ (গ)
৫. “বৃষ্টিতে ধুয়ে দিল আমার পায়ের দাগ।”—রেখাঙ্কিত পদটি
(ক) কর্মকারকে ‘এ’ বিভক্তি (খ) করণকারকে ‘তে’ বিভক্তি (গ) কর্তৃকারকে ‘তে’ বিভক্তি (ঘ) অধিকরণ কারকে ‘তে’ বিভক্তি
উত্তরঃ (খ)
সমাস
৬. “একটা সপ্তাহ আর একটা বছর কেটে গেল।”–সপ্তাহ’ পদটি কোন্ সমাস?
(ক) দ্বন্দ্ব সমাস (খ) দ্বিগু সমাস (গ) কর্মধারয় সমাস (ঘ) তৎপুরুষ সমাস
উত্তরঃ (খ)
৭. “রক্তের এক আগ্নেয় পাহাড়ের মতো।”—“আগ্নেয়পাহাড়’ পদটির ব্যাসবাক্য হবে
(ক) পাহাড়ের আগুন (খ) আগুন পাহাড় (গ) আগুনের পাহাড় (ঘ) অগ্নি উদগিরক পাহাড়
উত্তরঃ (ঘ)
৮. “সমস্ত সমতলে ধরে গেল আগুন”–‘সমতল’ পদটির ব্যাসবাক্য হবে
(ক) সমান তল যার (খ) সম ও তল (গ) তলদেশ সমান যার (ঘ) সমান তলদেশবিশিষ্ট
উত্তরঃ (গ)
৯. “…ঝুলন্ত বিছানায় ঘুমিয়েছিলাম।”—‘ঝুলন্ত’ পদটি কোন সমাস?
(ক) কর্মধারয় সমাস (খ) তৎপুরুষ সমাস (গ) বহুব্রীহি সমাস (ঘ) দ্বন্দ্ব সমাস
উত্তরঃ (গ)
১০, প্রাচীন জলতরঙগ’-জলতরঙ্গ’ পদটির ব্যাসবাক্য হবে
(ক) জল ও তরঙ্গ (খ) জলের তরঙ্গ (গ) জলের মাধ্যমে উখিত তরঙ্গ (ঘ) ‘খ’ ও ‘গ’ উভয়ই
উত্তরঃ (ঘ)
বাক্য
১১. “আমি চলে গেলাম. দূরে।”—বাক্যটির যৌগিক বাক্যের রূপ হবে
(ক) আমি চলে গেলাম এবং দুরে (খ) আমি দূরে এবং দূরে চলে গেলাম (গ) আমি গেলাম, তবে দূরে (ঘ) আমি চলে গেলাম দূরে, বহুদূরে
উত্তরঃ (গ)
১২. “একটা কুকুর চলে গেল-বাক্যটির জটিল বাক্যের রূপ হবে
(ক) যে যায় সে একটা কুকুর (খ) যেটা গেল সেটা কুকুর (গ) যেটা চলে গেল, সেটা একটা কুকুর (ঘ) কুকুরই চলে গেল
উত্তরঃ (গ)
১৩. “ঘাস জন্মালো রাস্তায়”-কোন্ বাক্য?
(ক) জটিল বাক্য (খ) সরলবাক্য (গ) যৌগিক বাক্য (ঘ) নর্থক বাক্য
উত্তরঃ (খ)
১৪. “সব চুর্ণ হয়ে গেল, জ্বলে গেল আগুনে”—বাক্যটির যৌগিক বাক্যের রূপ হবে
(ক) সব চূর্ণ হয়ে গেল অথবা জ্বলে গেল আগুনে (খ) সব চূর্ণ হল এবং আগুনে প্রজ্জ্বলিত হল (গ) সব চূর্ণ হয়ে গেল এবং জ্বলে গেল আগুনে (ঘ) সব চূর্ণ বা প্রজ্জ্বলিত হল আগুনে
উত্তরঃ (গ)
১৫. “যারা হাজার বছর ধরে/ডুবে ছিল ধ্যানে/ উল্টে পড়ল মন্দির থেকে বাক্যটির সরলবাক্যের রূপ হবে
(ক) ধ্যানমগ্নরা উলটে পড়ল মন্দির থেকে (খ) ধ্যানমগ্নরা মন্দির থেকে উলটে পড়ল (গ) হাজার বছরব্যাপী ধ্যানমগ্নরা মন্দির থেকে উলটে পড়ল (ঘ) বর্ষব্যাপী ধ্যানমগ্নরা মন্দির থেকে উলটে পড়ল
উত্তরঃ (গ)
বাচ্য
১৬. “বৃষ্টিতে ধুয়ে দিল আমার পায়ের দাগ”—বাক্যটির কর্মবাচ্যের রূপ হবে
(ক) বৃষ্টি আমার পায়ের দাগ ধুয়ে দিল (খ) বৃষ্টির দ্বারা আমার পায়ের দাগ ধৌত হল (গ) বৃষ্টির মাধ্যমে আমার পায়ের দাগ ধৌত হল (ঘ) বৃষ্টিতে পায়ের দাগ ধুয়ে গেল
উত্তরঃ (খ)
১৭. “সে জানত না”—কোন বাচ্য?
(ক) কর্তৃবাচ্য (খ) কর্মবাচ্য (গ) ভাববাচ্য (ঘ) কর্মকর্তৃবাচ্য
উত্তরঃ (ক)
১৮. “তারা আর স্বপ্ন দেখতে পারল না।”—কোন্ বাচ্য?
(ক) কর্মবাচ্য (খ) কর্তৃবাচ্য (গ) ভাববাচ্য (ঘ) কর্মকর্তৃবাচ্য
উত্তরঃ (খ)
১৯. “শিশু আর বাড়িরা খুন হলো।”—কোন্ বাচ্য?
(ক) ভাববাচ্য (খ) কর্তৃবাচ্য (গ) কর্মকর্তৃবাচ্য (ঘ) কর্মবাচ্য
উত্তরঃ (গ)
২০. “সেই মেয়েটির মৃত্যু হলো না।”—বাক্যটির কর্তৃবাচ্যের রূপ হবে
(ক) সেই মেয়েটি মরল না (খ) সেই মেয়েটি জীবিত থাকল (গ) সেই মেয়েটি মরেনি (ঘ) সেই মেয়েটি মৃত্যুহীন থাকলো
উত্তরঃ (ক)

অতিসংক্ষিপ্ত উত্তরধর্মী প্রশ্ন (প্রশ্নমান – ১)
কারক-বিভক্তি
১. সমস্ত সমতলে ধরে গেল আগুন।”–নিম্নরেখাঙ্কিত পদটির কারক-বিভক্তি নির্ণয় করো।
উত্তরঃ সমতলে—অধিকারণ কারকে ‘এ’ বিভক্তি।
২. উল্টে পড়ল মন্দির থেকে টুকরো টুকরো হয়ে।”-নিম্নরেখাঙ্কিত পদটির কারক-বিভক্তি কী হবে?
উত্তরঃ মন্দির থেকে অপাদান কারকে ‘থেকে’ অনুসর্গ।
৩. “বৃষ্টিতে ধুয়ে দিল আমার পায়ের দাগ।”—নিম্নরেখাঙ্কিত পদটির কারক-বিভক্তি নির্ণয় করো।
উত্তরঃ বৃষ্টিতে—কর্তৃকারকে ‘তে’ বিভক্তি।
৪. “সেখানে ছড়িয়ে রইল কাঠকয়লা।”–নিম্নরেখাঙ্কিত পদটির কারক-বিভক্তি লেখো।
উত্তরঃ কাঠকয়লা–কর্মকারকে ‘শূন্য’ বিভক্তি।
৫. “ঘাস জন্মালো রাস্তায়।”—নিম্নরেখাঙ্কিত পদটির কারক-বিভক্তি কী হবে?
উত্তরঃ রাস্তায়—অধিকরণ কারকে ‘য়’ বিভক্তি।
সমাস
৬. “একটা সপ্তাহ আর একটা বছর কেটে গেল।”–‘সপ্তাহ’ পদটির ব্যাসবাক্যসহ সমাসের নাম লেখো।
উত্তরঃ সপ্তাহ–সপ্ত অহের সমাহার (সমাহার দ্বিগু সমাস)।
৭. “রক্তের এক আগ্নেয় পাহাড়ের মতো।”—নিম্নরেখাঙ্কিত পদটির ব্যাসবাক্যসহ সমাসের নাম লেখো।
উত্তরঃ আগ্নেয়পাহাড়-অগ্নি উদগিরক পাহাড় (মধ্যপদলোপী কর্মধারয় সমাস)।
৮. “বৃষ্টিতে ধুয়ে দিল আমার পায়ের দাগ।”—নিম্নরেখাঙ্কিত পদটির সমাসের নাম লেখো।
উত্তরঃ পায়ের দাগ-(সম্বন্ধ তৎপুরুষ সমাস)।
৯. “ছড়ানো করতলের মতো।”—নিম্নরেখাঙ্কিত পদটির ব্যাসবাক্যসহ সমাসের নাম লেখো।
উত্তরঃ করতলের-করের তল (সম্বন্ধ তৎপুরুষ সমাস), তার।
১০. “সেখানে ছড়িয়ে রইল কাঠকয়লা।”—‘কাঠকয়লা’ পদটির ব্যাসবাক্যসহ সমাসের নাম লেখা।
উত্তরঃ কাঠকয়লা-কাঠ ও কয়লা (দ্বন্দ্ব সমাস)।
বাক্য
১১. “সে জানত না আমি আর কখনো ফিরে আসব না।”—জটিল বাক্যের রূপ দাও।
উত্তরঃ আমি যে আর কখনও ফিরে আসব না তা সে জানত না।
১২. “বৃষ্টিতে ধুয়ে দিল আমার পায়ের দাগ।”—বাক্যটিকে জটিল বাক্যে রূপান্তর করো।
উত্তরঃ বৃষ্টিতে যা ধুয়ে দিল তা হল আমার পায়ের দাগ।
১৩. “শিশু আর বাড়িরা খুন হলো।”—বাক্যটিকে নঞর্থক বাক্যে পরিণত করলে কী হবে?
উত্তরঃ শিশু আর বাড়িরা খুন হল না এমন নয়।
১৪. “সবচূর্ণ হয়ে গেল, জ্বলে গেল আগুনে।”—যৌগিক বাক্যে পরিণত করো।
উত্তরঃ সব চূর্ণ হয়ে গেল এবং জ্বলে গেল আগুনে।
১৫. “ সেখানে ছড়িয়ে রইল কাঠকয়লা।”—প্রশ্নবোধক বাক্যে পরিণত করো।
উত্তরঃ সেখানে যা ছড়িয়ে রইল তা কি কাঠকয়লা নয়?
বাচ্য
১৬. “একটা কুকুর চলে গেল।”—বাক্যটিকে ভাববাচ্যে পরিণত করো।
উত্তরঃ একটা কুকুরের চলে যাওয়া হল।
১৭. “বৃষ্টিতে ধুয়ে দিল আমার পায়ের দাগ।”-কর্মবাচ্যে এর রূপ কী হবে?
উত্তরঃ বৃষ্টির দ্বারা আমার পায়ের দাগ ধৌত হল।
১৮. “তারপর যুদ্ধ এল।”—বাক্যটিকে ভাববাচ্যে পরিণত করো।
উত্তরঃ তারপর যুদ্ধের আসা হল।
১৯. “সেই মেয়েটির মৃত্যু হল না।”—বাক্যটির কর্তৃবাচ্যে রূপ দাও।
উত্তরঃ সেই মেয়েটি মারা গেল না।
২০. “তারা আর স্বপ্ন দেখতে পারল না।”—বাক্যটি ভাববাচ্যে পরিণত করো।
উত্তরঃ তাদের আর স্বপ্ন দেখা হল না।

FILE INFO : Madhyamik Bengali Suggestion – WBBSE with PDF Download for FREE | মাধ্যমিক বাংলা সাজেশন বিনামূল্যে ডাউনলোড | কবিতা – অসুখী একজন – পাবলো নেরুদা (অতিসংক্ষিপ্ত ও সংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর)

File Details:
PDF Name : কবিতা – অসুখী একজন – পাবলো নেরুদা – মাধ্যমিক বাংলা সাজেশন
Language : Bengali
Size : 380.9 kb 
No. of Pages : 11
Download Link : Click Here To Download
বিভিন্ন স্কুল বোর্ড পরীক্ষা, প্রতিযোগিতা মূলক পরীক্ষার সাজেশন, অতিসংক্ষিপ্ত, সংক্ষিপ্ত ও রোচনাধর্মী প্রশ্ন উত্তর (All Exam Guide Suggestion, MCQ Type, Short, Descriptive Question and answer), প্রতিদিন নতুন নতুন চাকরির খবর (Job News in Bengali) জানতে এবং সমস্ত পরীক্ষার এডমিট কার্ড ডাউনলোড (All Exam Admit Card Download) করতে winexam.in ওয়েবসাইট ফলো করুন, ধন্যবাদ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here