HS Geography

উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন 2021 | HS Geography Suggestion 2021 (WBCHSE) with PDF | WiN EXAM

Share

উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion

উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion নিচে দেওয়া হল। এই প্রশ্নোত্তর এবার পশ্চিমবঙ্গ উচ্চ মাধ্যমিক শ্রেণীর ভূগোল  ( WB HS Geography Suggestion | West Bengal Higher Secondary Geography Suggestion  | WBCHSE Board Class 12th Geography Question and Answer) পরীক্ষার জন্য খুব ইম্পর্টেন্ট । আপনারা যারা উচ্চ  | মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন  | HS Geography Suggestion  | WBCHSE Board Higher Secondary Class 12th (XII) Geography Suggestion Question and Answer খুঁজে চলেছেন, তারা নিচে দেওয়া প্রশ্ন ও উত্তর ভালো করে পড়তে পারেন।

 

উচ্চমাধ্যমিক দ্বাদশ শ্রেণীর ভূগোল সাজেশন প্রশ্ন ও উত্তর | West Bengal Higher Secondary Geography Suggestion | WBCHSE Board Class 12th Question and Answer with PDF

উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন  (HS Geography Suggestion ) অধ্যায় ভিত্তিক অতিসংক্ষিপ্ত, সংক্ষিপ্ত ও রোচনাধর্মী প্রশ্নউত্তর (MCQ Type, Short, Descriptive Question & answer) এবং PDF ফাইলের ডাউনলোড লিঙ্ক নিচে দেওয়া রয়েছে।

 

প্রাকৃতিক ভূগোল – Physical Geography | উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion

ভূমিরূপ প্রক্রিয়া – বহির্জাত প্রক্রিয়াসমূহ এবং সংশ্লিষ্ট ভূমিরূপ | প্রাকৃতিক ভূগোল – Physical Geography | উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion

 

MCQ প্রশ্নোত্তর [ মান – 1]

 

1. মহিভাবক আলোড়ন সংগঠিত হয় –
(a) উল্লম্বভাবে (b) অনুভূমিকভাবে (c) তীর্যকভাবে (d) ক’ ও ‘খ’ উভয় ভাবে।

 

উত্তরঃ (a) উল্লম্বভাবে

 

2. মহাদেশ সৃষ্টি হওয়ার কারণ –
(a) আকস্মিক আলোড়ন (b) মহিভাবক আলোড়ন (c) ধীর আলোড়ন (d) গিরিজনি আলোড়ন

 

উত্তরঃ (b) মহিভাবক আলোড়ন

 

3.এক বা একাধিক বক্রতল বরাবর সংঘটিত পুঞ্জিত ক্ষয়কে বলা হয় –
(a) হিমানী সম্প্রপাত (b) ভূমিধস (c) স্লাম্প (d) কর্দম প্রবাহ

 

উত্তরঃ (c) স্লাম্প

 

4. অবরোহণ ও আরোহণ প্রক্রিয়াকে একসঙ্গে বলা হয় –
(a) মহিভাবক প্রক্রিয়া (b) গিরিজনি প্রক্রিয়া। (c) পর্যায়ন প্রক্রিয়া (d) কোনোটিই নয়

 

উত্তরঃ (d) কোনোটিই নয়

 

5. আবহবিকার ও ক্ষয়ীভবন এই দুই প্রক্রিয়াকে সম্মিলিতভাবে বলা হয় –
(a) পুঞ্জিত স্বলন (b) অবরোহণ (c) পুঞ্জিত ক্ষয় (d) নগ্নীভবন

 

উত্তরঃ (d) নগ্নীভবন

 

6. ১৮৭৬ সালে ভূমিরূপবিদ্যার পর্যায়ন ধারণাটি সর্বপ্রথম দেন-
(a) প্র্যাট (b) গিলবার্ট (c) পেঙ্ক (d) ডেভিস

 

উত্তরঃ (b) গিলবার্ট

 

7. অবরোহণ প্রক্রিয়া সংঘটিত হয় ভূপৃষ্ঠে –
(a) একভাবে (b) দুইভাবে (c) চারভাবে (d) তিনভাবে

 

উত্তরঃ (d) তিনভাবে

 

8.অবরোহণ প্রক্রিয়ার পর্যায়ভুক্ত প্রক্রিয়া হলো –

 

(a) আবহবিকার (b) নদীর কাজ (C) ভৌমজলের কাজ (d) হিমবাহের কাজ।

 

উত্তরঃ (a) আবহবিকার

 

9. যান্ত্রিক আবহবিকারের ফলে শিলার –
(a) রাসায়নিক পরিবর্তন (b) ভৌত পরিবর্তন (c) ভৌত ও রাসায়নিক পরিবর্তন (d) বিয়োজন ঘটে

 

উত্তরঃ (b) ভৌত পরিবর্তন

 

10. আবহবিকার ও ক্ষয়ীভবন এই দুই প্রক্রিয়াকে একত্রে বলা হয় –
(a) নগ্নীভবন (b) অবরোহণ (c) পুঞ্জিত ক্ষয় (d) আরোহণ

 

উত্তরঃ (a) নগ্নীভবন

 

11. ভূমিরূপ গঠনে প্রধান ভূমিকা পালন করে –
(a) পার্থিব প্রক্রিয়া (b) মহাজাগতিক প্রক্রিয়া (C) পর্যায়ন পক্রিয়া (d) কোনোটিই নয়

 

উত্তরঃ (a) পার্থিব প্রক্রিয়া

 

12. সর্বাধিক রাসায়নিক আবহবিকার ঘটে থাকে –
(a) সাভানা অঞলে (b) নিরক্ষীয় অঞলে (c) উষ্ণ মরুভূমি অঞলে (d) তুন্দ্রা অঞ্চলে

 

উত্তরঃ (b) নিরক্ষীয় অঞলে

 

13.যান্ত্রিক আবহবিকার লক্ষ করা যায় –
(a) উষ্ণ ও শুষ্ক মরুভূমি অঞলে (b) মেরু অঞ্চলে (c) নিরক্ষীয় অঞ্চলে (d) মৌসুমি জলবায়ু অঞ্চলে

 

উত্তরঃ (a) উষ্ণ ও শুষ্ক মরুভূমি অঞলে

 

14. পর্যায়ন শক্তি বলা হয় –
(a) পার্থিব বলকে (b) অপার্থিব বলকে (c) বহির্জাত বলকে (d) অন্তর্জাত বলকে

 

উত্তরঃ (c) বহির্জাত বলকে

 

15. ভূঅভ্যন্তরে সৃষ্ট যে বলের প্রভাবে ভূপৃষ্ঠে বিভিন্ন ভূমিরূপের সৃষ্টি হয় তাকে বলা হয় –
(a) বহিজাত প্রক্রিয়া (b) অন্তর্জাত প্রক্রিয়া (c) গিরজনি প্রক্রিয়া (d) মহিভাবক প্রক্রিয়া

 

উত্তরঃ (b) অন্তর্জাত প্রক্রিয়া
অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর [মান – 1]

 

1. কৃয়মৃত্তিকা কীভাবে সৃষ্টি হয় ?

 

উত্তরঃজৈবিক অম্লের মাধ্যমে ব্যাসল্ট শিলার বিয়োজন ঘটে এই শিলার সৃষ্টি হয়।

 

2. পর্যায়নের এজেন্টগুলি কী?

 

উত্তরঃ পর্যায়নের মাধ্যম বা এজেন্টগুলি হলো—নদী, বায়ু, হিমবাহ, সমুদ্রতরঙ্গ, ভৌমজল প্রভৃতি। ?
3. নদী কোন কোন প্রক্রিয়ায় ক্ষয়কার্য করে?
উত্তরঃ অবঘর্ষণ, ঘর্ষণ, দ্রবণ, আঘাতজনিত ক্ষয় ইত্যাদি।

 

4. আরোহণ প্রক্রিয়ায় সৃষ্ট ভূমিরূপগুলি কী?

 

উত্তরঃব-দ্বীপ, প্লাবনভূমি, বালুচর প্রভৃতি।

 

5. অবরোহণ প্রক্রিয়ায় সৃষ্ট ভূমিরূপগুলি কী?

 

উত্তরঃক্ষয়জাত পর্বত, বিচ্ছিন্ন মালভূমি, V বা I আকৃতির উপত্যকা, ঢালের পরিবর্তন প্রভৃতি।

 

6. আবহবিকার, পুতি ক্ষয় ও ক্ষয়ীভবনকে একত্রে কী বলা হয়?

 

উত্তরঃ নগ্নীভবন।

 

7. শিলামধ্যস্থ খনিজের সাথে অক্সিজেনের সংযুক্তিকরণকে কী বলা হয়?

 

উত্তরঃজারণ।

 

8. আবহাওয়ার কোন উপাদানগুলি আবহবিকারের প্রকৃতিকে নির্ধারণ করে?

 

উত্তরঃউষ্ণতা, আদ্রতা, বৃষ্টিপাত প্রভৃতি

 

9.ভূপৃষ্ঠ থেকে কত গভীর পর্যন্ত আবহবিকারের প্রভাব লক্ষ করা যায় ?

 

উত্তরঃপ্রায় 300 মিটার পর্যন্ত

 

10. পৃথিবীর অভ্যন্তরস্থ যে শক্তির প্রভাবে ভূমিরূপের গঠন ও বিবর্তন ঘটে থাকে, তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ অন্তর্জাত শক্তি

 

11. ভূপৃষ্ঠের উপরিভাগে যে শক্তিসমূহের দ্বারা ভূমিরূপের পরিবর্তন ঘটে, তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ বহির্জাত শক্তি।

 

12.পুঞ্জিত ক্ষয় সম্পর্কে সর্বপ্রথম কে ব্যাখ্যা দেন ?

 

উত্তরঃ ভূবিজ্ঞানী শার্প (1938)

 

13. লোহায় মরিচা পড়ে কোন প্রক্রিয়ায় ?

 

উত্তরঃঅক্সিডেশন বা জারণ প্রক্রিয়ায়

 

14. আরোহণ প্রক্রিয়ার অন্যতম নিয়ন্ত্রক কী?

 

উত্তরঃভূমির ঢাল

 

15. ভূপৃষ্ঠের নিম্ন ভূমিগুলি বিভিন্ন বহির্জাত শক্তির দ্বারা সৃষ্ট পলি, বালি, কাকর প্রভৃতির মাধ্যমে ভরাট হওয়ার প্রক্রিয়াকে কী বলা হয় ?

 

উত্তরঃআরোহণ। (এর ফলেই গঙ্গার ব-দ্বীপ গঠিত হয়েছে)

 

16. যেসব প্রাকৃতিক শক্তির কার্যের মাধ্যমে উঁচু-নীচু ভূমির পর্যায়ন ঘটে, তাদের কী বলে?

 

উত্তরঃপর্যায়নের এজেন্ট বা মাধ্যম

 

17. ভূপৃষ্ঠের উঁচু-নীচু জায়গাগুলি বহিজাত প্রক্রিয়ার মাধ্যমে ধীরে ধীরে ক্ষয়ে গিয়ে নীচু হয়ে যায়, এই প্রক্রিয়াকে কী বলা হয়?

 

উত্তরঃঅবরোহণ

 

18. শিলাস্তরে চাপের হ্রাস-বৃদ্ধি, তাপমাত্রার পরিবর্তন প্রভৃতি কারণে যান্ত্রিক বা ভৌত পরিবর্তনের মাধ্যমে শিলাসমূহ চূর্ণবিচূর্ণ হওয়ার প্রক্রিয়াকে কী বলে?

 

উত্তরঃ যান্ত্রিক বা ভৌত আবহবিকার

 

19. যে রাসায়নিক বিক্রিয়ার মাধ্যমে শিলা চূর্ণবিচূর্ণ হয়, তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ রাসায়নিক আবহবিকার

 

20. গাছের পাতা, ফুল, ফল প্রভৃতি পচে যে জৈবিক অম্ল সৃষ্টি হয়, তার মাধ্যমে শিলার যে বিয়োজন ঘটে, তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃজৈব-রাসায়নিক আবহবিকার বলে

 

বিশ্লেষণ বা বর্ণনাভিত্তিক প্রশ্নোত্তর [ মান – 7]

 

1.পুঞ্জিত ক্ষয় কাকে বলে? আবহবিকার ও পুঞ্জিত ক্ষয়ের মধ্যে পার্থক্য লেখো।

 

2. অবরোহণ ও আরোহণের মধ্যে পার্থক্য লেখো। আবহবিকার ও ক্ষয়ীভবনের মধ্যে পার্থক্য লেখো।

ভৌমজলের কার্য ও সংশ্লিষ্ট ভূমিরূপ | প্রাকৃতিক ভূগোল – Physical Geography | উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion

 

MCQ প্রশ্নোত্তর[ মান – 1]

 

1. ছত্তিশগড়ের রায়পুর জেলায় হামসগুলি স্থানীয় ভাষায় যে নামে পরিচিত তা হলো
(a) পোনর (b) রাবণ-ভাটা (c) গালি (d) জিও

 

উত্তরঃ (b) রাবণ-ভাটা

 

2. বিশাখাপত্তনমের নিকট ডলফিন নোজ হলো একটি
(a) সিঙ্কহোল (b) পোনর (c) স্ট্যাম্প (d) সমুদ্র ভৃগু

 

উত্তরঃ (d) সমুদ্র ভৃগু

 

3. ফনটেন-দ্য-ভ্যজ (দ্রবণ প্রস্রবণ) যে নদী উপত্যকায় অবস্থিত তা হলো—
(a) রাইন নদী (b) রোন নদী (c) গঙ্গানদী (d) টেমস নদী

 

উত্তরঃ (b) রোন নদী

 

4. সম্পৃক্ত স্তরে সঞ্চিত জলের শীর্ষদেশগুলি যুগ বলে সে। রেখা পাওয়া যায় তাকে বলা হয়
(a) প্রস্রবণ রেখা (b) ল্যাপিস (c) ভৌমজল পিঠ (d) প্রপাত রেখা

 

উত্তরঃ (c) ভৌমজল পিঠ

 

5. ওল্ড ফেথফুল হলো একটি
(a) গিজার (b) খনিজ প্রবণ (c) টেরারোসা (d) ড্রিপস্টোন

 

উত্তরঃ (a) গিজার

 

6. বিশ্বের গভীরতম কার্স্ট (স্লাভ শব্দ—অর্থ উন্মুক্ত উদ্ভিদইনি। প্রস্তরভূমি) গুহা হলো
(a) হোলোক (b) কুবেরা (c) ম্যমথ (d) কালসড

 

উত্তরঃ (b) কুবেরা

 

7. ভৌমজলের প্রধান উৎস হলো
(a) ভাদোস স্তর (b) মিটিওরিক জল (c) সহজাত জল (d) আবহমান জল

 

উত্তরঃ (b) মিটিওরিক জল

 

8. কূপ ও নলকূপ দ্বারা যে স্তর থেকে জল সংগ্রহ করা হয় তা হলো-
(a) ফ্রিয়েটিক স্তর (b) ভাদোস স্তর (c) অ্যাকুইফার (d) সহজাত জল

 

উত্তরঃ (a) ফ্রিয়েটিক স্তর

 

9. স্থায়ী ভৌমজলস্তরের উপরিস্তরে যে জল নিম্নপ্রবাহ করে তা যে নামে পরিচিত
(a) সহজাত জল (b) আবহমান জল (c) ভাদোস স্তর (d) উৎস্যন্দ জল

 

উত্তরঃ (c) ভাদোস স্তর

 

10. ভূঅভ্যন্তরে সম্পৃক্ত স্তরে যে জল পাওয়া যায় তাকে বলা হয়-
(a) সহজাত জল (b) মিটিওরিক জল (c) আবহমান জল (d) ভৌমজল

 

উত্তরঃ (d) ভৌমজল

 

11. কার্স্ট অঞলে সংকীর্ণ ও দীর্ঘ গর্তকে বলা হয়—
(a) হামস (b) জিও (c) পোনর (d) শুষ্ক উপত্যকা

 

উত্তরঃ (c) পোনর

 

12. কার্স্ট অঞ্চলে পোলজি মধ্যস্থ অবশিষ্ট শিলায় গঠিত উচ্চ ভূমিগুলিকে বলা হয়—
(a) হামস (b) ককপিট (c) পোলজি (d) ইনসেলবার্জ

 

উত্তরঃ (a) হামস

 

অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর মান (1)

 

1. পৃথিবী বিখ্যাত উয় প্রস্রবণের নাম কী ?

 

উত্তরঃ U.S.A.-এর ইউলোস্টোন পার্কের ওল্ড ফেথফুল প্রস্রবণ।

 

2. ভৌমজলের নিয়ন্ত্রকসমূহ কী?

 

উত্তরঃ (i) বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ও স্থায়িত্ব ; (ii) ভূমির ঢাল ; (iii) শিলার প্রবেশ্যতা ও সচ্ছিদ্রতা ; (iv) প্রবেশ্য শিলাস্তরের নীচে অপ্রবেশ্য শিলাস্তরের অবস্থান

 

3.কার্স্ট শব্দের অর্থ কী?

 

উত্তরঃ উন্মুক্ত উদ্ভিদহীন প্রস্তরময় ভূমি

 

4. গুহার ভেতর প্রবহমাণ জল দ্বারা সৃষ্ট কার্স্ট ভূমিরূপগুলিকে একত্রে কী বলে?

 

উত্তরঃ ভর ফ্লোস্টোন

 

5.কম গভীরতা ও বিস্তারপূর্ণ নদী দ্বারা গঠিত কার্স্ট ভূমিরূপকে কী বলে?

 

উত্তরঃ ফ্লুডিওকার্স্ট

 

6. শীতল জলবায়ুতে তুষারগলা জল দ্বারা সৃষ্ট কার্স্ট ভূমিরূপ কী নামে পরিচিত?

 

উত্তরঃনেভেলকার্স্ট

 

7. গুহাবক্ষে উপচেপড়া জলের দ্বারা গুহার দুই কিনারায় সৃষ্ট ভূমিরূপকে কী বলে?

 

উত্তরঃ রিমস্টোন

 

8. কার্স্ট অঞ্চলে গুহার ছাদ থেকে ছুরির মতো আকৃতিবিশিষ্ট প্রস্তরখণ্ডকে কী বলে?

 

উত্তরঃ রুফ পেনডেন্ট

 

9. অসম্পর্ক স্তরের মধ্য দিয়ে যে জল প্রবাহিত হয়, তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃভাদোস জল

 

10. যে-সমস্ত শিলার মধ্য দিয়ে জল খুব সহজেই ভূগর্ভে প্রবেশ করতে পারে না , তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ অপ্রবেশ্য শিলা

 

11. মৃত্তিকা বা শিলাস্তরের রগুলি যখন জলপূর্ণ অবস্থায় থাকে তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ সম্পৃক্ত স্তর

 

12. মৃত্তিকা ও শিলার মধ্যে ছোটো ছোটো ফাঁক লক্ষ করা যায়, এগুলিকে কী বলে ?

 

উত্তরঃ ছিদ্র বা রন্দ্র

 

13. যে স্তরের মধ্য দিয়ে জল সহজেই নীচের দিকে চলে যায় অর্থাৎ জল ধরে রাখতে অক্ষম তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ অসম্পৃক্ত স্তর

 

14. ভূঅভ্যন্তরের মৃত্তিকা ও প্রবেশ্য শিলাস্তরের মধ্যে জল দ্বারা সম্পৃক্ত অবস্থায় থাকে যে স্তর, তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ ফ্রিয়েটিক স্তর বা ভৌমজলস্তর

 

15. অসম্পৃক্ত স্তরের নীচে যে স্তরে শুধুমাত্র বর্ষাকালেই জল ভৌমজল রূপে সঞ্চিত থাকে কিন্তু অন্য সময় জল শুকিয়ে যায়, একে কী বলে?

 

উত্তরঃ সবিরাম বা সাময়িক সম্পৃক্ত স্তর

 

16. সবিরাম সম্পৃক্ত স্তরের নীচের স্তরটি সবসময় জলপূর্ণ অবস্থায় থাকে, একে কী বলে?

 

উত্তরঃ স্থায়ী সম্পৃক্ত স্তর

 

17. বৃষ্টির জল, তুষারগলা জল প্রভৃতি ভূপৃষ্ঠের ওপর দিয়ে নীচে চলে গিয়ে ভৌমজলস্তর রূপে অবস্থান করে, সেই জলপূর্ণ স্তরকে কী বলে?

 

উত্তরঃ অ্যাকুইফার বা জলবাহী স্তর

 

18. যে শিলাস্তর জলধারণ করে রাখতে সক্ষম কিন্তু ক্ষরণে অক্ষম, তাকে কী বলে ?

 

উত্তরঃ অ্যাকুইড

 

19. যে শিলাস্তর অপ্রবেশ্য হলেও খুব সামান্য পরিমাণ জল সgয় এবং ক্ষরণে সক্ষম তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ অ্যাকুইটার্ড

 

20. ভূঅভ্যন্তরে সম্পৃক্ত স্তরে যে জল পাওয়া যায় তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ ভৌমজল

 

21. ভৌমজলের প্রধান উৎস কী?

 

উত্তরঃ সে বৃষ্টিপাতের জল এবং তুষারগলা জল

 

22. সাধারণত যে শিলাস্তর কোনোভাবেই জল সয় ও ক্ষরণে সক্ষম নয়, তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ অ্যাকুইফিউজ

 

23. ভূপৃষ্ঠের ওপর দিয়ে বৃষ্টির জল ও তুষারগলা জল ভূঅভ্যন্তরে প্রবেশ করে ভৌমজলে পরিণত হয়, একে কী বলে? উত্তরঃমিটিওরিক জল

 

24. সামান্য পরিমাণ সমুদ্রজল উপকূলের শিলাস্তরের মধ্য দিয়ে নীচের দিকে প্রবেশ করে ভৌমজলে পরিণত হয়, একে কী বলে?

 

উত্তরঃ সামুদ্রিক জল

 

25. যে-সমস্ত শিলার মধ্য দিয়ে জল খুব সহজেই ভূগর্ভে প্রবেশ করে, তাকে কী বলে ?

 

উত্তরঃপ্রবেশ্য শিলা

 

26. পাললিক শিলা গঠিত হওয়ার সময় সমুদ্র বা হ্রদের সামান্য পরিমাণ জল ওই শিলাস্তরের মধ্যে থেকে যায়, তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ সহজাত বা জন্মগত জল

 

27. অনেকগুলো প্রস্রবণ একটি রেখা বরাবর সৃষ্টি হলে তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃপ্রস্রবণ রেখা

 

28. অসংখ্য প্রস্রবণ থেকে যখন ছোটো ছোটো জলপ্রপাত সৃষ্টি হয়, তাকেকী বলে?

 

উত্তরঃ অবিরাম প্রস্রবণ বলে

 

29. ভূপৃষ্ঠের যে-সমস্ত স্থানে কেবলমাত্র আর্দ্র ঋতুতেই ভৌমজল নির্গত হয়, কিন্তু অন্য সময় শুকিয়ে যায়, তাকে কী বলে? উত্তরঃ সবিরাম প্রস্রবণ

 

30. যেসব প্রস্রবণ থেকে শুধুমাত্র উম্ন জল নির্গত হয়, সেগুলিকে কী বলে?

 

উত্তরঃ উষ্ণ প্রস্রবণ (পশ্চিমবঙ্গের বক্রেশ্বর, বিহারের রাজগির প্রভৃতি)

 

31. যেসব প্রস্রবণ থেকে শুধুমাত্র শীতল জল নির্গত হয়, সেগুলিকে কী বলে?

 

উত্তরঃশীতল প্রস্রবণ (দেরাদুনের কাছে সহস্রধারা প্রস্রবণটি থেকে শীতল জল বের হয়)

 

32. যে-সমস্ত প্রস্রবণের জলে সালফার, সোডিয়াম ক্লোরাইড, লৌহ যৌগ ইত্যাদি দ্রবীভূত অবস্থায় থাকে, সেগুলিকে কী বলে?

 

উত্তরঃ খনিজ প্রস্রবণ (পশ্চিমবঙ্গের বক্রেশ্বর, বিহারের রাজগির, উত্তরাখণ্ডের সহস্রধারা ইত্যাদি)

 

33. রাসায়নিক প্রক্রিয়ায় শিলার ক্ষয়কে কী বলে?

 

উত্তরঃ আর রাসায়নিক ক্ষয়

 

34. চুনাপাথর গঠিত অঞ্চলে ভৌমজলের দ্রবণকার্যের ফলে যে লাল ধরনের মৃত্তিকা গঠিত হয়, তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ টেরারোসা। (ডব্লু. এল. কুবিয়েনা নামকরণ করেন)

 

35. চুনাপাথর গঠিত অঞ্চলে দ্রবণ প্রক্রিয়ায় শিলাপৃষ্ঠে যে অসংখ্য দীর্ঘাকৃতির গর্ত সৃষ্টি হয় তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ ইংল্যান্ডে গ্রাইকস, জার্মানিতে কারেন, ফ্রান্সে ল্যাপিস বলে

 

36. কোনো অঞ্চলে অসংখ্য গ্রাইকস গঠিত হলে শিলাস্তরগুলি প্রায় বিচ্ছিন্নভাবে অবস্থান করে, এগুলিকে কী বলে?

 

উত্তরঃ ক্লিন্টস

 

37. চুনাপাথর গঠিত অঞলে দ্রবণকার্যের ফলে ভূপৃষ্ঠে অসংখ্য ছোটো ছোটো গর্তের সৃষ্টি হয়, এগুলিকে কী বলা হয়?

 

উত্তরঃসোয়ালো হোল

 

38. কোন সাগরের তীরবর্তী অলকে কার্স্ট অল বলে ?

 

উত্তরঃআড্রিয়াটিক সাগরের তীরবর্তী অঞ্চল

 

39. চুনাপাথর গঠিত অঞ্চলে দ্রবণকার্যের ফলে ফাদেল আকৃতির অবনমিত স্থানের সৃষ্টি হয়, এগুলিকে কী বলে?

 

উত্তরঃ সিঙ্কহোল

 

বিশ্লেষণ বা বর্ণনাভিত্তিক প্রশ্নোত্তর [মান – 7]

 

1. কার্স্ট অঞলে ভৌমজলের সঞয়কার্যের ফলে সৃষ্ট ভূমিরূপগুলির বর্ণনা দাও। অ্যাকুইফার ও অ্যাকুইক্লুডের মধ্যে পার্থক্য লেখো।

 

2. প্রস্রবণ কী ? প্রকৃতি ও গঠন অনুসারে এর শ্রেণিবিভাগ করো।

 

3. মানুষের অর্থনৈতিক ক্রিয়াকলাপের ওপর কার্স্ট ভূমিরূপের প্রভাব লেখো এবং ভৌমজলের গুরুত্ব সংক্ষেপে লেখো।

 

4. স্ট্যালাকটাইট ও স্ট্যালাগমাইটগ্রাইকস ও সিঙ্কহোলের মধ্যে পার্থক্য লেখো।

 

5. ভৌমজলের উৎস ও নিয়ন্ত্রকসমূহ কী?

সামুদ্রিক প্রক্রিয়াসমূহ ও সংশ্লিষ্ট ভূমিরূপ | প্রাকৃতিক ভূগোল – Physical Geography | উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion

 

MCQ প্রশ্নোত্তর [ মান – 1 ]

 

1. তটভূমির ওপর সমুদ্রের তরঙ্গের সঞ্জয়ের ফলে গঠিত ভূমিভাগকে বলা হয়—
(a) ব্যাকওয়াশ (b) স্ট্যাম্প (c) সৈকতবেলাভূমি (d) জিও

 

উত্তরঃ (c) সৈকতবেলাভূমি

 

2. মূল ভূমিভাগ ও পুরোদেশীয় বাঁধের মাঝখানের অগভীর জলাভূমিকে বলা হয়—
(a) স্পিট (b) সৈকতভূমি (c) রিয়া উপকূল (d) লেগুন উপহ্রদ

 

উত্তরঃ (d) লেগুন উপহ্রদ

 

3.কর্ণাটক ও কেরালার উপকুল হলো—
(a) যৌগিক উপকুল (b) মিশ্র উপকূল (c) রিয়া উপকূল (d) উথিত উপকূল

 

উত্তরঃ (a) যৌগিক উপকুল

 

4. সমুদ্রতরঙ্গ সৃষ্টির প্রধান কারণ হলো
(a) সমুদ্রজলের উয়তা (b) বায়ুপ্রবাহ (c) সমুদ্রজলের লবণতা (d) উপরের সবক’টি ঠিক

 

উত্তরঃ (b) বায়ুপ্রবাহ

 

5. হিমবাহ অধ্যুষিত অঞ্চলে দেখা যায়
(a) ডালমেশিয়ান উপকূল (b) রিয়া উপকূল (c) ফিয়র্ড উপকুল (d) সৈকতশিরা

 

উত্তরঃ (c) ফিয়র্ড উপকুল

 

6. ভারতের পূর্ব উপকূল হলো একটি
(a) যৌগিক উপকুল (b) মিশ্র উপকূল (c) নিমজ্জিত উপকূল (d) উত্থিত উপকূল

 

উত্তরঃ (d) উত্থিত উপকূল

 

7. পূর্বতন যুগোশ্লাভিয়ার উপকূল হলো একটি
(a) ডালমেশিয়ান উপকুল (b) রিয়া উপকূল (c) ফিয়র্ড উপকূল (d) মিশ্র উপকূল

 

উত্তরঃ (a) ডালমেশিয়ান উপকুল

 

8. কেরলের উপকূলের উপহ্রদকে বলা হয়—
(a) টোরস (b) ভৃগু (c) ফিয়র্ড (d) কয়াল

 

উত্তরঃ (d) কয়াল

 

9. সৈকতভূমির ওপর সৃষ্ট আঁকাবাঁকা শিরার মতো। ভূমিরূপকে বলে—
(a) টম্বােলো (b) সৈকতশিরা (c) ব্লো-হোল (d) স্পিট

 

উত্তরঃ (b) সৈকতশিরা

 

10. নরওয়ে ও সুইডেনের উপকূল হলো—
(a) রিয়া উপকূল (b) ফিয়র্ড উপকুল (c) ডালমেশিয়ান উপকুল (d) যৌগিক উপকূল

 

উত্তরঃ (b) ফিয়র্ড উপকুল

 

11. উন্মুক্ত সমুদ্রপৃষ্ঠের ওপর বায়ু বাধাহীনভাবে প্রবাহিত। হয়, এই উন্মুক্ততাকে বলা হয়—
(a) ফেচ (b) টিলা (c) তটভূমি (d) গুহা

 

উত্তরঃ (a) ফেচ

 

12. তরঙ্গাকর্তিত মঞ্চ দেখা যায়—
(a) মালাবার উপকূলে (b) কোঙ্কণ উপকুলে (c) ভারতের পূর্ব উপকূলে (d) করমণ্ডল উপকূলে

 

উত্তরঃ (b) কোঙ্কণ উপকুলে

 

13. বিশ্বের বৃহত্তম প্রবাল প্রাচীর গ্রেট বেরিয়ার রিফ দেখা যায়—
(a) মালাবার উপকূলে (b) করমণ্ডল উপকূলে (c) অস্ট্রেলিয়ার উপকূলে (d) জার্মান উপকূলে

 

উত্তরঃ (c) অস্ট্রেলিয়ার উপকূলে

 

14. ফদেল আকৃতির উপকূল হলো—
(a) চেলসি উপকূল (b) অ্যাটল (c) মিশ্র উপকূল (d) রিয়া উপকূল

 

উত্তরঃ (d) রিয়া উপকূল

 

15. হিমবাহ উপত্যকা নিমজ্জিত হয়ে সৃষ্টি হয়—
(a) ফিয়র্ড উপকূল (b) রিয়া উপকূল (c) ডালয়েশিয়ান উপকূল (d) কোনোটিই নয়

 

উত্তরঃ (a) ফিয়র্ড উপকূল

 

16. উপকূলের সামনের অংশকে বলা হয়—
(a) লেগুন (b) তটভূমি(c) পশ্চাৎ তটভূমি (d) জিও

 

উত্তরঃ (b) তটভূমি

 

অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর [ মান – 1 ]

 

1. উপসাগরের সামনে সৃষ্ট স্পিট ক্রমশ প্রসারিত হলে কী গঠিত হয়?

 

উত্তরঃবে-বার বা উপসাগর বাঁধ

 

2. নিম্নতম জলসীমা থেকে জোয়ারের জলসীমার গড় উচ্চতা পর্যন্ত বিস্তৃত অংশটিতে কী বলে?

 

উত্তরঃ সম্মুখ তটভূমি

 

3. সম্মুখ তটভূমির নিম্নতম স্থান থেকে মহীসোপানের শেষ পর্যন্ত অংশটিকে কী বলা হয়?

 

উত্তরঃ পুরোদেশ তটভূমি বা মগ্ন তটভূমি

 

4. সমুদ্র যেখানে এসে থলভাগে মিলিত হয়, সেই সীমারেখাকে কী বলা হয় ?

 

উত্তরঃ তটরেখা

 

5. প্রবালকীটের জন্য জলের উন্নতা কত ডিগ্রি সে. হওয়া প্রয়োজন?

 

উত্তরঃ প্রায় 179-33° সে,

 

6. সর্বাধিক পরিমাণে প্রবালের উপস্থিতি কোথায় লক্ষ করা যায় ?

 

উত্তরঃ 30° উ: – 30° দ: অক্ষরেখার মধ্যে

 

7. প্রবালের বৃদ্ধির জন্য সমুদ্রজলের গভীরতা কত হওয়া প্রয়োজন?

 

উত্তরঃ 25-30 মিটার

 

8.প্রবালের বৃদ্ধির জন্য সমুদ্রজলের লবণতা কত হওয়া প্রয়োজন?

 

উত্তরঃ 30% -38%

 

9. ভারতের বৃহত্তম কয়ালের নাম কী ?

 

উত্তরঃ ভেদানাদ কয়াল

 

10. দুটি স্পিট সমুদ্রে পরস্পরের সঙ্গে মিলিত হয়ে যে ত্রিকোণাকার ভূখণ্ড গড়ে ওঠে, তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ কাসপেট ফোরল্যান্ড

 

11. হিমবাহের গলনের কারণে সমুদ্রপৃষ্ঠের উত্থান ঘটে, তখন উপকূল অঞ্চল জলমগ্ন হয়ে সমুদ্রের অংশ হয়ে যায়, একে কী বলে?

 

উত্তরঃ নিমজ্জিত উপকূলরেখা

 

12. ভূআলোড়নের ফলে উপকূল অঞ্চল উথিত হলে, তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃউত্থিত উপকূলরেখা

 

13. যে উপকূলরেখায় উত্থান ও নিমজ্জন উভয় ঘটে, তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃযৌগিক উপকূলরেখা

 

14. যে উপকূলরেখায় উত্থান, নিমজ্জন কোনো কিছুই ঘটে না, তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃপ্রশমিত উপকূলরেখা

 

15. উপকূলের সমান্তরালে বিস্তৃত শৈলশিরাবিশিষ্ট পার্বত্যভূমি ভূআন্দোলনের ফলে আংশিক নিমজ্জিত হলে যে উপকূলের সৃষ্টি হয়, তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ ডালমেশিয়ান উপকূল

 

16. সমুদ্রতরঙ্গ সৈকতভূমির ওপর আসার পর ভূমির ঢাল বরাবর সমুদ্রে ফিরে যাওয়াকে কী বলে?

 

উত্তরঃ পশ্চাগামী তরঙ্গ বা ব্যাকওয়াশ

 

17. ঝটিকা তরঙ্গ, সুনামি প্রভৃতি তরঙ্গ দ্বারা উপকূলের অনেক ক্ষয়ক্ষতি হয়, এদের কী বলে?

 

উত্তরঃ বিনাশকারী তরঙ্গ

 

18. সমুদ্রতরঙ্গ অগভীর উপকূল পেরিয়ে সৈকতে আছড়ে পড়লে, তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃসম্মুখতরঙ্গ বা সোয়াশ

 

19. সমুদ্রতরঙ্গ কয়টি পদ্ধতিতে ক্ষয়কার্য করে থাকে?

 

উত্তরঃ চারটি পদ্ধতিতে (অবঘর্ষ, ঘর্ষণ ক্ষয়, দ্রবণ ক্ষয় ও জলপ্রবাহ ক্ষয়)।

 

20. সমুদ্র যেখানে এসে স্থলভাগে মিলিত হয়, সেই সীমারেখাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ তটরেখা (Shoreline)।

 

21. স্বলভাগ ও সমুদ্রের জলভাগের সংযোগস্থলকে কী বলা হয় ?

 

উত্তরঃ উপকূল

 

22. ঝটিকা তরঙ্গের জল তটভূমির ওপর দিয়ে অভ্যন্তরভাগে যতদূর পৃষান্ত প্রবেশ করে, তার শেষ সীমা বরাবর রেখাকে কী বলা হয় ?

 

উত্তরঃ উপকূলরেখা

 

23. মূল ভূখণ্ড থেকে বহুদূরে সামুদ্রিক অংশে প্রবাল গঠিত ভূভাগকে কী বলা হয় ?

 

উত্তরঃ প্রবালদ্বীপ।

 

24. সম্মুখ তটভূমি এবং পশ্চাৎ তটভূমির মাঝে সঞ্চিত অনুভূমিক শিরার মতো স্বল্পোচ্চ ভূমিভাগকে কী বলা হয় ?

 

উত্তরঃবার্ম

 

25. ক্রমাগত তরঙ্গের আঘাতে সমুদ্র উপকূলে যে খাড়া পাড় তৈরি হয়, তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ সমুদ্রভৃগু

 

26. তরঙ্গাকতিত মরে যে অংশ নিম্ন জোয়ারের জলতলের নীচে থাকে তাকে কী বলে ?

 

উত্তরঃ পুরোদেশীয় মঞ

 

27. পুরোদেশীয় বাঁধের পিছনে আবদ্ধ সমুদ্রজল যে লবণাক্ত জলাভূমির সৃষ্টি করে, তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ লেগুন (স্থানীয় ভাষায় কয়াল)

 

28. উপকূল থেকে দূরে অবস্থিত সামুদ্রিক অংশে সৃষ্ট বৃত্তাকার প্রবালপ্রাচীরকে কী বলা হয়?

 

উত্তরঃ অ্যাটল

 

বিশ্লেষণ বা বর্ণনাভিত্তিক প্রশ্নোত্তর [মান – 7]

 

1. সমুদ্রতরঙ্গা কী? সমুদ্রতরঙ্গের শ্রেণিবিভাগ করো। সমুদ্রতরঙ্গের ক্ষয় ও সঞ্চয়কার্যের ফলে গঠিত ভূমিরূপগুলি সংক্ষেপে লেখো।

 

2. উৎপত্তি ও গঠন অনুসারে প্রবালপ্রাচীরের শ্রেণিবিভাগ করে সংক্ষেপে আলোচনা করো। প্রবালপ্রাচীরের উৎপত্তি সংক্রান্ত নিমজ্জন ও হৈমবাহিক নিয়ন্ত্রণ তত্ত্বটি সংক্ষেপে লেখো।

ক্ষয়চক্র (গঠন ও প্রক্রিয়া) | প্রাকৃতিক ভূগোল – Physical Geography | উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion

 

MCQ প্রশ্নোত্তর [মান – 1]

 

1.পুনর্যৌবন লাভের ফলে নদীখাতটি আরো সংকীর্ণ ও গভীর হলে তাকে বলা হয়-
(a) কর্তিত নদীবাক (b) নিক পয়েন্ট (c) মেসা (d) হামাদা

 

উত্তরঃ (a) কর্তিত নদীবাক

 

2. ডেভিসের ক্ষয়চক্রে যৌবন অবস্থায় কী ধরনের ক্ষয়কার্য প্রাধান্য পায়?
(a) ঊধ্বমুখী (b) নিম্নমুখী (c) পার্শ্বীয় (d) সবক’টি ঠিক

 

উত্তরঃ (b) নিম্নমুখী

 

3. Desert pavement ক্ষয়চক্রের কোন পর্যায়ে সৃষ্টি হয়?
(a) বার্ধক্য (b) যৌবন (c) পরিণত পর্যায় (d) কোনোটিই নয়

 

উত্তরঃ (c) পরিণত পর্যায়

 

4. নিকবিন্দুতে সৃষ্ট ভূমিরূপটি হলো-
(a) গিরিখাত (b) মোনাডনক (c) জলপ্রপাত (যৌবন পর্যায়ে) (d) উপত্যকার মধ্যে উপত্যকা

 

উত্তরঃ (c) জলপ্রপাত (যৌবন পর্যায়ে)

 

5. একটি সয়জাত সমভূমি হলো-
(a) বাজাদা (b) পেডিমেন্ট (c) প্লায়া (d) তরঙ্গকর্তিত সমভূমি

 

উত্তরঃ (a) বাজাদা

 

6. নদী উপত্যকায় নিম্নক্ষয় ও পার্শ্বক্ষয়ের হার সমান হয়—
(a) যৌবন পর্যায়ে (b) পরিণত পর্যায়ে (c) বার্ধক্য পর্যায়ে (d) কোনোটিই নয়

 

উত্তরঃ (a) যৌবন পর্যায়ে

 

7. নীচের কোনটি নদীর পুনর্যৌবন লাভে গঠিত হয় না?
(a) নদীম (b) নিকপয়েন্ট (c) নদীবাঁক (d) প্লাবনভূমি

 

উত্তরঃ (d) প্লাবনভূমি

 

অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর [মান – 1]

 

1. পেডিপ্লেন কী ?

 

উত্তরঃ L.C. King এর পেডিপ্লেন গঠন তত্ত্ব (1048) অনুসারে, বার্ধক্য পর্যায়ে ইনসেলবার্জগুলির উচ্চতা ও আয়তন হাস পায় এবং পেডিমেন্টের প্রসার ঘটিয়ে পেডিপ্লেনের সৃষ্টি হয়।

 

2. Base level of erosion বলতে কী বোঝো?

 

উত্তরঃ পৃথিবীর বিভিন্ন বাহ্যিক প্রাকৃতিক শক্তি স্থান ও কালের সাপেক্ষে যতটা সম্ভব নিরমুখী ক্ষয় করতে পারে, তার শেষ সীমাকে বলা হয় Base level of erosiof ৰা ক্ষয়ের ভিত্তিসীমা।

 

3. বোনহার্ট কী?

 

উত্তরঃ মরু অঞ্চলের ইনসেলবার্জগুলিকে ভূতত্ত্ববিদ বোনহার্টের নামানুসারে বোনহার্ট বলা হয়।

 

4. আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রে সরার মতো আকৃতিবিশিষ্ট পর্বতবেষ্টিত উপত্যকাগুলিকে কী বলা হয় ?

 

উত্তরঃ বোলসন

 

5. পুনর্যৌবন লাভের ফলে নদী উপত্যকায় যে ধাপবিশিষ্ট ভূমিরূপের সৃষ্টি হয়, তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ নদীমঞ্চ।

 

6. মরু অঞ্চলে হঠাৎ বৃষ্টিপাতের ফলে যে নদী উপত্যকা গঠিত হয় আবার অন্য সময়ে শুষ্ক উপত্যকা রূপে অবস্থান করে, তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ ওয়াদি।

 

7. মরু অঞলের ক্ষয়চক্রের বার্ধক্য পর্যায়ে সৃষ্ট সময়ভূমিকে লসন কী নামে অভিহিত করেছেন?

 

উত্তরঃপ্যানফ্যান

 

8. স্বাভাবিক ক্ষয়চক্রের বার্ধক্য পর্যায়ে সৃষ্ট সময়ভূমিকে পেঙ্ক কী নামে অভিহিত করেছেন?

 

উত্তরঃ এনডান্ফ

 

9. পর্বতের পাদদেশ থেকে প্লায়া পর্যন্ত অংশকে একত্রে কী বলা ?

 

উত্তরঃ পিড়মন্ট

 

10. “ক্ষয়চক্র’ শব্দটি প্রথম কে ব্যবহার করেন?

 

উত্তরঃW.M. Davis (1899)

 

11. ‘ডেভিসের ত্রয়ী’ বলতে কী বোঝো?

 

উত্তরঃ ভূমিরূপের গঠন, পদ্ধতি ও পর্যায়কে একত্রে বয়ী বলা হয়।

 

12. শুষ্ক ক্ষয়চক্রে অবশিষ্ট টিলার নাম কী ?

 

উত্তরঃ ইনসেলবার্জ

 

13. স্বাভাবিক ক্ষয়চক্রের কোন পর্যায়ে জলপ্রপাত খরস্রোত সৃষ্টি হয়?

 

উত্তরঃ যৌবন পর্যায়ে

 

14. পেডিপ্লেনেশন তত্ত্বের প্রবক্তা কে?

 

উত্তরঃ L.C. King (1948)।

 

15. ক্ষয়চক্রের কোন পর্যায়ে নদীর পায়িত অবস্থান শুরু হয়?

 

উত্তরঃভর পরিণত পর্যায়ে

 

16. ক্ষয়চক্র চলাকালীন যেকোনো পর্যায়ে ভূমিরূপের উত্থান ৰা অবনমনজনিত কারণে ক্ষয়চক্র সম্পূর্ণতা লাভ করে না, একে কী বলে?

 

উত্তরঃ ক্ষয়চক্রে ব্যাঘাত

 

17. পেডিমেন্ট কাকে বলে?

 

উত্তরঃ ক্ষয়চক্রের পরিণত পর্যায়ে মরু অঞ্চলে পর্বতের পাদদেশে সৃষ্ট প্রস্তরময় ঢাল সমতলভূমিকে বলা হয় পেডিমেন্ট।

 

18. মরু অঞলে পেডিমেন্টের সামনে নুড়ি, বালি, কাকর, পলি প্রভৃতি সঞ্জিত হয়ে যে বিস্তীর্ণ সমভূমির সৃষ্টি হয়, তাকে কী বলা হয় ?

 

উত্তরঃবাজাদা

 

19. মরু অঞ্চলে ক্ষয়চক্রের দ্বারা সৃষ্ট টেবিলাকৃতির যে উচ্চ ভূমিগুলি সৃষ্টি হয়, তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ মেসা

 

20. মরু অঞলে ক্ষয়কার্যের ফলে মেসাগুলির উচ্চতা হ্রাস পেয়ে খাড়া চলবিশিষ্ট ঢিবির ন্যায় যে ভূমিরূপের সৃষ্টি হয়, তাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ বিউটস

 

21. শুষ্ক অঞ্চলে ক্ষয়চক্রের ফলে সৃষ্ট অবশিষ্ট পাহাড়গুলিকে কী বলা হয় ?

 

উত্তরঃ ইনসেলবার্জ

 

22. শুষ্ক ক্ষয়চক্রের শেষ পর্যায়ে সৃষ্ট সময়ভূমিকে কী বলা হয়?

 

উত্তরঃপেডিপ্লেন

 

23. স্বাভাবিক ক্ষয়চক্রের যৌবন পর্যায়ে নদীর জলের আবর্তনজনিত কারণে যে গোলাকৃতি গর্তের সৃষ্টি হয়, তাকে কী বলে? উত্তরঃ পটহোল বা মন্থকূপ

 

24. মোনানক কাকে বলে?

 

উত্তরঃ স্বাভাবিক ক্ষয়চক্রের বার্ধক্য পর্যায়ে সৃষ্ট সময়ভূমির ওপর অবস্থিত কঠিন শিলা গঠিত পাহাড়গুলিকে বলা হয় মোনাডনক।

 

25. মরু অঞ্চলে সৃষ্ট ছোটো লবণাক্ত হ্রদগুলিকে কী বলা হয় ?

 

উত্তরঃ প্লয়া

 

বিশ্লেষণ বা বর্ণনাভিত্তিক প্রশ্নোত্তর [ মান – 7]

 

1. উইলিয়াম মরিস ডেভিস বর্ণিত ক্ষয়চক্রের বিভিন্ন পর্যায় উপযুক্ত চিত্র সহ আলোচনা করো। নদীর ক্ষয়চক্রের ব্যাঘাত’ বলতে কী বোঝো?

 

2. ক্ষয়চক্রের বাধা সৃষ্টির কারণ কী ? পেডিমেন্ট ও বাজাদার মধ্যে পার্থক্য লেখো।

 

3. ক্ষয়চক্র কী? স্বাভাবিক ক্ষয়চক্রের পূর্বশর্তগুলি কী? নদীর পুনর্যৌবন লাভ বলতে কী বোঝো? স্বাভাবিক ও মর ক্ষয়চক্রের পার্থক্য কী?

জলনির্গম প্রণালী বা নদীনকশা | প্রাকৃতিক ভূগোল – Physical Geography | উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion

 

MCQ প্রশ্নোত্তর [ মান – 1 ]

 

1. ল্যাকোলিথ বা ব্যাথোলিথের উপর সৃষ্ট নদীনকশা হলো
(a) কেন্দ্রবিমুখ (b) কেন্দ্রমুখী (c) বৃক্ষরূপী (d) বঁড়শির্বাক

 

উত্তরঃ (a) কেন্দ্রবিমুখ

 

2. লতাগাছের মাচা আকৃতির নদীনকশাকে বলা হয়
(a) আয়তাকার (b) জাফরিরূপী (c) পিনেট (d) অঙ্গরীয়াকার

 

উত্তরঃ (b) জাফরিরূপী

 

3. ভূপৃষ্ঠে নদী গঠিত নিয়মিত ঢালযুক্ত অবনত স্থানকে বলা হয় –
(a) নদী অববাহিকা (b) শাখানদী (c) নদী উপত্যকা (d) কোনোটিই নয়

 

উত্তরঃ (c) নদী উপত্যকা

 

4. প্রধান নদী তার উপনদী ও শাখা-প্রশাখা নিয়ে যে অণ্ডলের ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয় সেই অঞ্চলকে বলা হয় –
(a) নদী উপত্যকা (b) নদী অববাহিকা (c) উপনদী (d) শাখানদী

 

উত্তরঃ (b) নদী অববাহিকা

 

5. পাশাপাশি অবস্থিত দুটি নদী অববাহিকাকে যে উচ্চভূমি পৃথক করে রাখে তাকে বলা হয় –
(a) জলবিভাজিকা (b) পূর্ববর্তী নদী (c) শাখানদী (d) উপনদী

 

উত্তরঃ (a) জলবিভাজিকা

 

6. ভারতের গোদাবরী, কৃয়া, কাবেরী নদী অববাহিকায় দেখা যায়-
(a) পিনেট (b) আয়তকার (c) জাফরিরূপী (d) বৃক্ষরূপী জলনিৰ্গম প্রণালী।

 

উত্তরঃ (d) বৃক্ষরূপী জলনিৰ্গম প্রণালী

 

7. ড্রেনড্রনের অর্থ হলো –
(a) মৃত্তিকা (b) বৃক্ষ (c) প্রাণী (d) উদ্ভিদ

 

উত্তরঃ (b) বৃক্ষ

 

8. ভারতের নর্মদা, শোন প্রভৃতি নদী উপত্যকায় দেখা যায়—
(a) পিনেট (b) বৃক্ষরূপী (c) আয়তকার জাফরিরূপী (d) জলনির্গম প্রণালী

 

উত্তরঃ (a) পিনেট

 

9. নদীজালিকার জ্যামিতিক আকৃতি হলো –
(a) নদীখাত নকশা (b) নদী উপত্যকা (c) নদীনকশা (d) অসংগঠিত নদী

 

উত্তরঃ (c) নদীনকশা

 

10. গম্বুজ ভূগঠনে কঠিন ও কোমল শিলাস্তরকে ভিত্তি করে গড়ে উঠা নদীনকশা—
(a) কেন্দ্রমুখী (b) কেন্দ্রবিমুখ (c) জাফরিরুপী (d) অঙ্গুরীয়াকার বা অ্যানুলার

 

উত্তরঃ (d) অঙ্গুরীয়াকার বা অ্যানুলার

 

অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর [ মান – 1 ]

 

1. পরবতী নদী কাকে বলে?

 

উত্তরঃ অনুগামী নদী উপত্যকার দু’দিক থেকে যেসব নদী উৎপত্তি লাভ করে শিলার । আয়াম বরাবর উপত্যকা সৃষ্টি করে অনুগামী নদীর সঙ্গে সমকোণে এসে মিলিত হয়, তাদের পরবর্তী নদী বলে।

 

2. বিপরা নদী কাকে বলে?

 

উত্তরঃ যেসব নদী অনুগামী নদীর বিপরীত দিকে অর্থাৎ ঢালের বিপরীত দিতে প্রবাহিত। হয়, তাদের বিপরা নদী বলে।

 

3.পুনর্ভবা নদী কাকে বলে ?

 

উত্তরঃ ভূভাগ গঠনের দ্বিতীয় পর্যায়ে সৃষ্টি হয়ে যেসব নদী অনুগামী নদীর দিকেই প্রবাহিত হয়, তাকে পুনর্ভবা নদী বলে।

 

4. অসংগত নদী কাকে বলে?

 

উত্তরঃ যেসব নদীর গঠন ভূমিভাগের প্রাথমিক ঢাল, শিলার প্রকৃতি ও বিন্যাস, ভূতাত্ত্বিক গঠন, নদীর বয়স ইত্যাদি অনুসারে নির্ধারিত হয় না, তাদের অসংগত নদী বলে।

 

5. অধ্যারোপিত নদী কাকে বলে?

 

উত্তরঃ নতুন সঞ্চিত শিলাস্তরের উপর গঠিত কোনো নদী নীচের প্রাচীন শিলার উপর অধিষ্ঠিত হলে, তাকে বলা হয় অধ্যারোপিত নদী। সুবর্ণরেখা নদীতে এধরনের অবস্থান লক্ষ করা যায়।

 

6. অন্তবাহিনী নদী কাকে বলে ?

 

উত্তরঃ যেসব নদী দেশের প্রান্তসীমা অতিক্রম না করে অভ্যন্তরভাগে সীমাবদ্ধ থাকে, তাকে অন্তর্বাহিনী নদী বলে। যেমন – ভারতের লুনি নদী।

 

7. উপনদী কাকে বলে?

 

উত্তরঃ কোনো প্রধান বা মূল নদীর গতিপথের দু’পাশ থেকে ছোটো ছোটো জলধারা বা নদী মূল নদীতে এসে মিলিত হয়, তাদের বলা হয় উপনদী।

 

8. শাখানদী কাকে বলে?

 

উত্তরঃ কোনো প্রধান বা মূল নদী থেকে ছোটো ছোটো শাখার আকারে জলধারা বেরোয়, সেগুলিকে বলা হয় শাখানদী।

 

9. ধারণ অববাহিকা কাকে বলে?

 

উত্তরঃ কোনো মূল নদী, তার বিভিন্ন উপনদী ও শাখানদী যে অঞ্চলের ওপর দিয়ে প্রবাহিত হয়, সেই অঞ্চলটিকে বলা হয় মূল নদীর অববাহিকা বা ধারণ অববাহিকা।

 

বিশ্লেষণ বা বর্ণনাভিত্তিক প্রশ্নোত্তর [ মান (7) ]

 

1. চিত্র সহ বিভিন্ন প্রকার জলনিৰ্গম প্রণালী সংক্ষেপে আলোচনা করো। জলনির্গম প্রণালীর নিয়ন্ত্রকগুলি কী?

 

2. বিনুনি আকৃতির নদীখাত কী? বৃক্ষরূপী নদীনকশা ও জাফরিরূপী নদীনকশার মধ্যে – পার্থক্য করো।

মৃত্তিকা | প্রাকৃতিক ভূগোল – Physical Geography | উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion

 

MCQ প্রশ্নোত্তর [ মান – 1 ]

 

1. তুন্দ্রা মৃত্তিকার নীচে অবস্থিত চিরতুষার স্তরকে বলা হয়—
(a) পার্মাফ্রস্ট (b) ডুরিক্রাস্ট (c) এলুভিয়েশন (d) ক্যাটেনা

 

উত্তরঃ (a) পার্মাফ্রস্ট

 

2. মৃত্তিকার B স্তরে অদ্রবণীয় পদার্থের সয়ের ফলে গঠিত একটি কঠিন আবরণকে বলা হয় –
(a) হার্ডপ্যান (b) ডুরিক্রাস্ট (c) রেনজিনা (d) পার্মাফ্রস্ট

 

উত্তরঃ (b) ডুরিক্রাস্ট

 

3. কৃয় মৃত্তিকার অপর নাম হলো –
(a) ডাফ বা মাল (b) ক্যাটেনা (c) রেগুর (d) আঞ্চলিক মৃত্তিকা

 

উত্তরঃ (c) রেগুর

 

4. চেস্টনাট ও সিরোজম হলো –
(a) মরু অঞলের মৃত্তিকা (b) নিরক্ষীয় অঞলের মৃত্তিকা (c) নাতিশীতোষ্ণু অঞলের মৃত্তিকা (d) কোনোটিই নয়

 

উত্তরঃ (a) মরু অঞলের মৃত্তিকা

 

5. হার্ডপ্যান লক্ষ করা যায় –
(a) পডসল (b) ল্যাটেরাইট (c) সিরোজেম (d) কৃয় মৃত্তিকায়

 

উত্তরঃ (b) ল্যাটেরাইট

 

6. মৃত্তিকার উল্লম্ব প্রস্থচ্ছেদকে বলা হয় –
(a) রোরাইজন (b) পরিলেখ (c) ক্যাটেনা (d) রেগোলিথ

 

উত্তরঃ (b) পরিলেখ

 

7. মৃত্তিকার সব স্তর দেখা যায় –
(a) পরিণত (b) অপরিণত (c) কঙ্কালসার (d) চারনোজেম মৃত্তিকাতে

 

উত্তরঃ (a) পরিণত

 

8. ভূত্বকের উপরিভাগে আবহবিকারের ফলে সৃষ্ট শিলাচূর্ণকে বলা হয় –
(a) টেররোসা (b) রেনজিনা (c) রেগোলিথ (d) চারনোজেম

 

উত্তরঃ (c) রেগোলিথ

 

9. জৈব পদার্থের পরিমাণ কম থাকে –
(a) A হরাইজনে (b) B হরাইজনে (c) C হরাইজনে (d) কোনোটিই নয়

 

উত্তরঃ (b) B হরাইজনে

 

10. এলুভিয়েশন প্রক্রিয়া লক্ষ করা যায় মৃত্তিকার—
(a) C স্তরে (b) B স্তরে (c) A স্তরে (d) C ও A উভয়ই স্তরে

 

উত্তরঃ (c) A স্তরে

 

11. মৃত্তিকাবিজ্ঞানের যে অংশে মৃত্তিকা ও উদ্ভিদের পারস্পরিক সম্পর্ক নিয়ে আলোচিত হয় তাকে বলে—

 

(a) জুলজি (b) পেডোলোজি (c) বায়োলজি (d) ইডফোলজি

 

উত্তরঃ (d) ইডফোলজি

 

12. মৃত্তিকার pH-এর মান 7-এর কম হলে –
(a) আম্লিক (b) ক্ষারকীয় (c) প্রশমিত (d) অতিক্ষারকীয়

 

উত্তরঃ (a) আম্লিক

 

13. মৃত্তিকাবিজ্ঞানের জনক হলেন –
(a) জেনি (b) ডকুচেভ (C) মিলনে (d) হিলগার্ড

 

উত্তরঃ (b) ডকুচেভ

 

14. মৃত্তিকা পরিলেখের ধারণা সর্বপ্রথম দিয়েছেন –
(a) ডকুচেভ (b) মিলনে (c) জেনি (d) হিলগার্ড

 

উত্তরঃ (a) ডকুচেভ

 

15. মৃত্তিকার ‘A’ ও ‘B’ স্তরকে একত্রে বলে –
(a) ক্যাটেনা (b) পেডন (c) সোলাম (d) পরিলেখ

 

উত্তরঃ (c) সোলাম

 

16. আবহবিকারের ফলে সৃষ্ট শিথিল শিলাচূর্ণ –
(a) রেগোলিথ (b) পেড়ন(c) ক্যাটেনা (d) সোলাম

 

উত্তরঃ (a) রেগোলিথ

 

17. মৃত্তিকার প্রাথমিক কণাগুলি সমষ্টিতে পরিণত হয়ে একক গঠন করলে তাকে বলে –
(a) পেড়ন (b) পলিপেড়ন (c) পেড (d) এপিপেড়ন

 

উত্তরঃ (c) পেড

 

18. ইলুভিয়েশন প্রক্রিয়া লক্ষ করা যায় মৃত্তিকার –
(a) C স্তরে (b) B স্তরে (c) A স্তরে (d) কোনোটিই নয়

 

উত্তরঃ (b) B স্তরে

 

19. অ্যালুমিনিয়াম ও লৌহ অক্সাইড মিশ্রিত মৃত্তিকাকে বলা হয়—
(a) ল্যাটেরাইট (b) চারনোজেম (c) পডসল (d) পেডালফার মৃত্তিকা

 

উত্তরঃ (a) ল্যাটেরাইট

 

20. প্রেইরি ও স্তেপ তৃণভূমি অঞলে লক্ষ করা যায় –
(a) পডসল (b) ল্যাটেরাইট (c) পেডোক্যাল (d) চারনোজেম মৃত্তিকা

 

উত্তরঃ (d) চারনোজেম মৃত্তিকা

 

21. পিট বা বগ মৃত্তিকা দেখা যায় –
(a) আগ্নেয় শিলায় (b) স্থলভাগে (c) জলাভূমিতে (d) চুনাপাথরের ওপরে

 

উত্তরঃ (c) জলাভূমিতে

 

22. চুনাপাথর ও মার্বেল থেকে সৃষ্ট মৃত্তিকাকে বলা হয় –

 

(a) রেগোলিথ (b) পার্মাফ্রস্ট (c) রেনজিনা (d) ডুরিক্রাস্ট

 

উত্তরঃ (c) রেনজিনা

 

23. মরুপ্রায় ও মরুভূমি অঞলে লবণাক্ত মৃত্তিকা গঠনের প্রক্রিয়াকে বলা হয় –
(a) রেনজিনা (b) স্যালিনাইজেশন (c) হার্ডপ্যান (d) কোনোটিই নয়

 

উত্তরঃ (b) স্যালিনাইজেশন

 

অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর [ মান – 1]

 

1. খনিজকরণ কাকে বলে?

 

উত্তরঃ হিউমাস থেকে খনিজ গঠনকারী প্রক্রিয়াকেই বলা হয় খনিজকরণ। এটি হলো খনিজ পদার্থের প্রত্যাবর্তন প্রক্রিয়া।

 

2. মৃত্তিকার জলধারণ ক্ষমতা কাকে বলে?

 

উত্তরঃ একক আয়তনের মৃত্তিকার রন্ধ্রে যে পরিমাণ জল সঞ্জিত হয় তার পরিমাণকে বলা হয় মৃত্তিকার জলধারণ ক্ষমতা।

 

3. মৃত্তিকার সচ্ছিদ্রতা কাকে বলে?

 

উত্তরঃ মৃত্তিকার ছিদ্র বা রন্ধ্র দিয়ে বায়ু, জল চলাচল করতে পারে। সেই ছিদ্রযুক্ত মৃত্তিকাকে মৃত্তিকার সচ্ছিদ্রতা বলে।

 

4. অ্যারিডিসল ও ভার্টিসল মৃত্তিকার বৈশিষ্ট্য লেখো।

 

উত্তরঃ অ্যারিডিসল : এটি শুষ্ক অঞলের মৃত্তিকা, মৃত্তিকার রং হালকা হয়

 

ভার্টিসল : এটি কাদাকণা সমৃদ্ধ মৃত্তিকা, প্রচুর পরিমাণে জল ধরে রাখতে পারে।

 

5. এন্টিসল ও মলিসল মৃত্তিকার বৈশিষ্ট্য লেখো।

 

উত্তরঃএন্টিসল : এই মৃত্তিকা বয়সে নবীন, স্তর সুস্পষ্ট নয়, কম উর্বরতাযুক্ত।

 

মলিসল : এই মৃত্তিকা খুব শক্ত নয়, রং গাঢ় কালো, নাতিশীতোয় জলবায়ু অঞ্চলে দেখা যায়।

 

6. ইনসেপটিসল ও হিস্টোসল মৃত্তিকার বৈশিষ্ট্য লেখো।

 

উত্তরঃ ইনসেপটিসল : এটি বয়সে নবীন, অপরিণত মৃত্তিকা, আদ্র ও আদ্ৰপ্ৰায় জলবায়ুতে দেখা যায়।

 

হিস্টোসল : এই মৃত্তিকায় জৈব পদার্থ বেশি থাকে, কাদাকণার পরিমাণ খুব কম।

 

7. অক্সিসল ও আলটিসল মৃত্তিকার বৈশিষ্ট্য লেখো।

 

উত্তরঃ অক্সিসল : আর্দ্র জলবায়ুতে দেখা যায়, এই মৃত্তিকার উপরিস্তরে Fe & AI পড়ে থাকে।

 

আলটিসল : ক্রান্তীয় ও মৌসুমি জলবায়ুতে দেখা যায়, Fe & AI অধিক থাকে।

 

8. স্পােডোেসল ও আলফিসল মৃত্তিকার বৈশিষ্ট্য লেখো।

 

উত্তরঃ স্পােডোসল : এই মৃত্তিকা ধূসর ও অনুর্বর প্রকৃতির।

 

আলফিসল : এই মৃত্তিকা প্রেইরি অঞ্চলে সৃষ্টি হয় এবং উর্বর প্রকৃতির।

 

9. অ্যান্ডিসল ও জেলিসল মৃত্তিকার বৈশিষ্ট্য লেখো।

 

উত্তরঃ অ্যান্ডিসল : এই মৃত্তিকা অগ্ন্যুৎপাতে সৃষ্ট ছাই জমাটবদ্ধ হয়ে সৃষ্টি হয়।

 

জেলিসল : পার্বত্যভূমির উচ্চ অংশে সৃষ্টি হয়।

 

10. মৃত্তিকার অবনমন কাকে বলে?

 

উত্তরঃ প্রাকৃতিক ও অপ্রাকৃতিক কারণে যখন মৃত্তিকার গুণগত মান নষ্ট হয় এবং মৃত্তিকা। উর্বরতা হারায়, তখন তাকে মৃত্তিকার অবনমন বলে।

 

11 . ল্যাটেরাইজেশন কী?

 

উত্তরঃ আদ্র-গ্রীষ্মমণ্ডলীয় জলবায়ু অঞলে যে প্রক্রিয়ায় মৃত্তিকার উপর স্তর থেকে সিলিকা অপসৃত হয় এবং আয়রন ও অ্যালুমিনিয়াম কণা সঞ্চিত হয়ে থাকে, তাকে ল্যাটেরাইজেশন বলে। ও মৃত্তিকা গঠনের উপাদানগুলি কী? উত্তর মৃত্তিকা গঠনকারী প্রধান প্রধান উপাদানগুলি হলো—জলবায়ু, ভূমিরূপ, জৈবপদার্থ, উৎস পদার্থ, সময়। s=f (cl, 0, r, p, t) s=Soil, f=factor, cl=climate, o=organic, r=relief, p=parent material, t=time.

 

12. মৃত্তিকা গঠনের পদ্ধতিগুলি কী?

 

উত্তরঃ মৃত্তিকা গঠনের পদ্ধতিগুলি হলো—হিউমিফিকেশন, খনিজকরণগুলি, পড়জোলাইজেশন, ল্যাটেরাইজেশন, প্লেইজেশন, স্যালিলাইজেশন, এলুভিয়েশন, ইলুভিয়েশন ইতাদি।

 

13. হিউমিফিকেশন কাকে বলে?

 

উত্তরঃ সাধারণত রেগোলিথের ওপর মৃত উদ্ভিদ ও প্রাণীর দেহাবশেষ পচে এক ধরনের জটিল কালো রঙের পদার্থ সৃষ্টি করে, যাকে হিউমাস বলে। এইরূপে হিউমাস গঠন প্রক্রিয়াকে বলা হয় হিউমিফিকেশন।

 

14. রেগোলিথ কী?

 

উত্তরঃ যান্ত্রিক ও রাসায়নিক আবহবিকারের ফলে শিলা চূর্ণবিচূর্ণ হয়ে আদি শিলার ওপর শিথিল এক পাতলা আস্তরণ সৃষ্টি হয় একে রেগোলিথ বলে।

 

15. সোলাম কী ?

 

উত্তরঃ আবহবিচূর্ণিত শিলাচূর্ণের সঙ্গে জৈব সংমিশ্রণে পরিপূর্ণ মৃত্তিকার সৃষ্টি হলে তাকে সোলাম বলে।

 

16. মৃত্তিকার ক্যাটেনা কাকে বলে?

 

উত্তরঃ ভূমিঢালের তারতম্য অনুযায়ী ঢালের বিভিন্ন অংশে ভিন্ন ভিন্ন মৃত্তিকার সৃষ্টি হয়। ঢালের সাথে মৃত্তিকার এই ভিন্নতার সম্পর্ককে মৃত্তিকার ক্যাটেনা বলে।

 

17. মৃত্তিকার pHকী ?

 

উত্তরঃ সাধারণত মৃত্তিকার অম্লত্ব, ক্ষারত্ব পরিমাপক স্কেল হলো pH ; মৃত্তিকার pH-এর মান 7-এর কম হলে আম্লিক হয় এবং pH-এর মান 7-এর বেশি হলে ক্ষারকীয় হয়ে থাকে।

 

18. ড্যুরিক্রাস্ট বলতে কী বোঝো?

 

উত্তরঃ তৃণভূমি অঞলে যেখানে সারনোজেম মৃত্তিকার সৃষ্টি হয়, সেখানে বৃষ্টিপাতের। স্বল্পতা হেতু ধৌত প্রক্রিয়ায় ক্ষয় খুব কমই হয়ে থাকে। এর ফলে মৃত্তিকার নিম্নস্তরে চুনজাতীয় পদার্থ সঞ্জিত হয়ে যে কঠিন স্তর গঠিত হয়, তাকে রিক্রাস্ট বলা হয়।

 

19. রেনজিনা কী?

 

উত্তরঃ গাঢ় রঙের এক ধরনের অনাঞলিক মৃত্তিকাকে বলা হয় রেনজিনা। এই মৃত্তিকার A স্তর ভঙ্গুর প্রকৃতির হয়। I?

 

20. ডাফ ও মাল কাকে বলে?

 

উত্তরঃ সরলবর্গীয় অরণ্য অঞ্চলে অবস্থিত মৃত্তিকা প্রােফাইলের ‘O’ স্তরটিকে বলা হয় ডাফ। পর্ণমোচী অরণ্য অঞ্চলে অবস্থিত মৃত্তিকা প্রােফাইলের ‘0 স্তরটিকে বলা হয় মাল।

 

21. মিশেল কী ?

 

উত্তরঃ মৃত্তিকার কলয়েডগুলির মধ্যে ঋণাত্মক তড়িৎ, খনিজ এবং জৈব কলয়েড থাকলে তাকে মিশেল বলে।

 

22. মৃত্তিকার স্তরায়ণ কাকে বলে?

 

উত্তরঃ ভূপৃষ্ঠের কোনো স্থানের মৃত্তিকাকে উল্লম্বভাবে প্রস্তচ্ছেদ করলে কতকগুলি সুস্পষ্ট স্তর দেখা যায়, এগুলিকে বলা হয় মৃত্তিকার স্তরায়ণ।

 

23. জনক শিলা কাকে বলে?

 

উত্তরঃ ভূত্বকের উপরিভাগে বারিমণ্ডল, শিলামণ্ডল ও জীবমণ্ডলের ক্রিয়ার ফলে যে। মৃত্তিকার সৃষ্টি হয়, তাকে বলা হয় জনক শিলা।

 

বিশ্লেষণ বা বর্ণনাভিত্তিক প্রশ্নোত্তর [ মান (7) ]

 

1. মৃত্তিকা সৃষ্টির প্রক্রিয়াগুলির সংক্ষিপ্ত পরিচয় দাও । এলুভিয়েশন ও ইলুভিয়েশনের মধ্যে পার্থক্য লেখো।

 

2. কীভাবে মৃত্তিকার অবক্ষয় ঘটে থাকে ? মৃত্তিকা সংরক্ষণের উপায়গুলি সংক্ষেপে বর্ণনা করো।

 

3. আঞ্চলিক, অআঞ্চলিক ও আন্তঃআলিক মৃত্তিকার মধ্যে পার্থক্য লেখো। পেডালফার ও পেডোক্যাল মৃত্তিকার মধ্যে পার্থক্য লেখো।

বায়ুমণ্ডল | প্রাকৃতিক ভূগোল – Physical Geography | উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion

 

MCQ প্রশ্নোত্তর [ মান – 1 ]

 

1. জেট বায়ুপ্রবাহ দেখা যায় ভূপৃষ্ঠ থেকে উপরে –
(a) ৫-১০ কিমি (b) ৭.৫ – ১৪ কিমি (c) ৮-৯ কিমি (d) ২০ – ২৫ কিমি।

 

উত্তরঃ (b) ৭.৫ – ১৪ কিমি

 

2. জেট বায়ুর আবিষ্কারক হলেন –
(a) জে. সি ফারমেন (b) সি. জি. রসবি (C) পিটারসন (d) ট্রিওয়ারদা

 

উত্তরঃ (b) সি. জি. রসবি

 

3. বায়ুমণ্ডলীয় গোলযোগ দেখা যায় যে স্তরে –
(a) ট্রপোপেজ (b) ট্রপোস্ফিয়ার (c) ওজোনমণ্ডল (d) স্ট্রাটোস্ফিয়ার

 

উত্তরঃ (b) ট্রপোস্ফিয়ার

 

4. অস্ট্রেলিয়া উপকূলে ঘূর্ণবাত হলো –
(a) খামসিন (b) উইলি উইলি (C) ফন (d) সাইমুন

 

উত্তরঃ (b) উইলি উইলি

 

5. এল নিনো দেখা যায় –
(a) ভারত মহাসাগরে (b) আরব সাগরে (c) প্রশান্ত মহাসাগরে (d) আটলান্টিক মহাসাগরে

 

উত্তরঃ (c) প্রশান্ত মহাসাগরে

 

6. হারমাট্টান প্রবাহিত হয় –
(a) মিশরে (b) লিবিয়ায় (c) গিনি উপকূলে (d) ভারতে

 

উত্তরঃ (c) গিনি উপকূলে

 

7. জেট স্ট্রিম দেখা যায় –
(a) ট্রপোস্ফিয়ারের উর্ধ্বে (b) স্ট্রাটোস্ফিয়ারের ঊর্ধ্বে (c) মেসোস্ফিয়ারের ঊর্ধ্বে (d) কোনোটিই নয়

 

উত্তরঃ (a) ট্রপোস্ফিয়ারের উর্ধ্বে

 

8. কখন এল-নিনো সংঘটিত হয়?
(a) শরৎকালে (b) গ্রীষ্মকালে (c) ডিসেম্বর মাসে (d) বর্ষাকালে

 

উত্তরঃ (c) ডিসেম্বর মাসে

 

9. ক্রান্তীয় ঘূর্ণবাতের গতিবেগ –
(a) ১০০ কিমি (b) ১০ কিমি (c) ১০০-২৫০ কিমি (d) ২০-৩০০ কিমি

 

উত্তরঃ (c) ১০০-২৫০ কিমি

 

10. সর্বাপেক্ষা বিধ্বংসী প্রকৃতির ঘূর্ণিঝড় –
(a) সাইক্লোন (b) টাইফুন (c) ফন (d) টর্নেডো

 

উত্তরঃ (d) টর্নেডো

 

11. রাজস্থানের ধূলিঝড়কে বলা হয় –
(a) ফন (b) আঁধি (c) সাইমুন (d) কালবৈশাখী

 

উত্তরঃ (b) আঁধি

 

12. U.S.A-এর মিসিসিপি উপত্যকায় সৃষ্ট টর্নেডোকে বলা হয়—
(a) টুইস্টার (b) টাইফুন (c) ব্যাগুই (d) ফন

 

উত্তরঃ (a) টুইস্টার

 

13. ফিলিপিন্স দ্বীপপুঞ্জে ঘূর্ণবাতকে বলা হয় –
(a) টাইফুন (b) হারমাট্টান (c) টুইস্টার (d) ব্যাগুই

 

উত্তরঃ (d) ব্যাগুই

 

14. পূর্ব চিন সাগরে সৃষ্ট ক্রান্তীয় ঘূর্ণিঝড় কী নামে পরিচিত?
(a) উইলি উইলি (b) হ্যারিকেন (c) টাইফুন (d) টর্নেডো

 

উত্তরঃ (c) টাইফুন

 

15. বঙ্গোপসাগরে উদ্ভূত নিম্নচাপ বিশিষ্ট ঝড়-ঝঞা হলো—
(a) হারমাট্টাম (b) টর্নেডো (c) টাইফুন (d) সাইক্লোন

 

উত্তরঃ (d) সাইক্লোন
অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর [মান – 1]

 

1.মৌসুমি বিস্ফোরণ কী?

 

উত্তরঃ ঊর্ধ্ব আকাশে কিউমুলোনিম্বাস মেঘ হতে হঠাৎ মুষলধারে ঝড়-বৃষ্টি হতে শর করে, দক্ষিণ ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় একে মৌসুমি বিস্ফোরণ বলে।

 

2. নিরক্ষীয় শান্তমণ্ডল কাকে বলে?

 

উত্তরঃ নিরক্ষরেখার উভয় পাশে 59–10° অক্ষাংশে উত্তর-পূর্ব ও দক্ষিণ-পূর্ব আয়ন। বায়ু মিলিত হলে নিরক্ষরেখায় বায়ুর অনুভূমিক প্রবাহ লক্ষ করা যায় না বলে নিরক্ষীয়। অঞলটিকে শান্তমণ্ডল বলা হয়।

 

3. Rain follows the sun কী?

 

উত্তরঃ নিরক্ষীয় নিম্নচাপ বলয় ও বৃষ্টিবলয় সূর্যের উত্তরায়ণ ও দক্ষিণায়নের সঙ্গে সঙ্গে স্থান পরিবর্তন করে, তাই একে Rain follows the sun বলা হয়।

 

4. হ্যারিকেন কী?

 

উত্তরঃ মেক্সিকো উপসাগরের উপকূল, ক্যারিবিয়ান সাগর, পশ্চিম ভারতীয় দ্বীপপুঞ্জ ও উত্তর-পূর্ব প্রশান্ত মহাসাগরে সৃষ্ট ক্রান্তীয় ঘূর্ণবাতকে বলা হয় হ্যারিকেন।

 

5. হ্যাডলি কোশ কাকে বলে?

 

উত্তরঃ নিরক্ষীয় ও ক্রান্তীয় অঞ্চলে বায়ু নিরক্ষীয় প্রদেশের দিকে এবং অধিক উয়তায় ভূপৃষ্ঠ থেকে মেরুর দিকে চলাচল করে। এটি আবহবিদ জর্জ হ্যাডলি লক্ষ করেন বলে তাঁর নামানুসারে একে হ্যাডলি কোশ বলে। এটি নিরক্ষরেখার উভয় পাশে কর্কটীয় ও মকরীয় উচ্চচাপ বলয়ে লক্ষ করা যায়।

 

6. ফেরেল কোশ কী?

 

উত্তরঃ মধ্য অক্ষাংশে বায়ু ভূপৃষ্ঠ থেকে মেরুর দিকে এবং অধিক উন্নতায় নিরক্ষীয় প্রদেশের দিকে চলাচল করে। এটি উইলিয়াম ফেরলে 1856 সালে লক্ষ করেন বলে তাঁর নামানুসারে একে ফেরল কোশ বলে।

 

7. রসবি তরঙ্গ কী ?

 

উত্তরঃ পথিবীর আবর্তন গতি ও তাপের তারতম্য জনিত কারণে উভয় গোলার্ধে পশ্চিমা বায় পশ্চিম থেকে পূর্বে বয়ে চলেছে। এই বায়ুপ্রবাহের ফলে যে বৃহদাকতির তরল তৈরি হয়, তাকে রসবি তরঙ্গ বলে।

 

8. বজ্রবিদ্যুৎ সহ ঝঞ্ঝা কাকে বলে?

 

উত্তরঃ মেঘে মেঘে ঘর্ষণের ফলে প্রচণ্ড বেগে বজ্রবিদ্যুৎ সহ বৃষ্টি হলে তাকে বজ্রবিদ্যুৎ সহ ঝঞ্ঝা বলে।

 

9. ওয়াকার সার্কুলেশন কাকে বলে?

 

উত্তরঃ নিরক্ষরেখা বরাবর একটি বৃহদাকৃতির বায়ুমণ্ডলীয় কোশ পূর্ব-পশ্চিমে বিস্তৃত। রয়েছে, একেই ব্রিটিশ বিজ্ঞানী স্যার গিলবার্ট ওয়াকারের নামানুসারে ওয়াকার সার্কুলেশন বলে। অনেকেই একে সার্দান অসিলেশন বলে।

 

10. এল নিনো কী?

 

উত্তরঃ এল নিনো শব্দের অর্থ হলো শিশু জিশুখ্রিস্ট। 2-7 বছর অন্তর ক্রান্তীয় প্রশান্ত। মহাসাগরের পূর্ব প্রান্তে পেরু উপকূল দিয়ে যে দক্ষিণমুখী উষ্ণ স্রোত প্রবাহিত হয়, তাকে এল নিনো বলে।

 

11. লা নিনা কী?

 

উত্তরঃ লা নিনা শব্দের অর্থ হলো ছোটো মেয়ে। এটি এল নিনোর বিপরীত অবস্থা। প্রশান্ত মহাসাগরের পূর্বভাগে যখন শুষ্ক ও শান্ত আবহাওয়া বিরাজ করে, তখন তাকে লা নিনা বলা হয়।

 

12. বায়ুপ্রবাহ কাকে বলে?

 

উত্তরঃ চাপের তারতম্য জনিত কারণে বায়ু উচ্চচাপ অঞ্চল থেকে নিম্নচাপ অঞ্চলের দিকে প্রবাহিত হওয়াকে বলা হয় বায়ুপ্রবাহ।

 

13. বায়ুস্রোত কাকে বলে?

 

উত্তরঃ উষ্ণতার তারতম্য জনিত কারণে ঊর্ধ্বমুখী ও নিম্নমুখী হয়ে বায়ুর স্থানান্তর ঘটে, একে বায়ুস্রোত বলে।

 

14. ঘূর্ণবাতজাত ঝড় কাকে বলে?

 

উত্তরঃ সাধারণত যখন কোনো ঘূর্ণবাতের সঙ্গে প্রবল গতিতে বায়ু প্রবাহিত হতে থাকে তখন তাকে ঘূর্ণবাতজাত ঝড় (cyclonic storm) বলে।

 

15. মৌসুমি নিম্নচাপ কাকে বলে?

 

উত্তরঃ বঙ্গোপসাগরে দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমি বায়ুর আগমনকালে দুর্বল প্রকৃতির। ঘূর্ণবাতের সৃষ্টি হয়, সাধারণভাবে একে মৌসুমি নিম্নচাপ বলে।

 

16. ক্রান্তীয় ঝড় কাকে বলে?

 

উত্তরঃ যেসব ক্রান্তীয় ঘূর্ণবাতে বাতাসের গতিবেগ ঘণ্টায় 63-87 কিমি হয়, তাদের ক্রান্তীয় ঝড় বলে।

 

17. জেট স্ট্রিম কী?

 

উত্তরঃ সমুদ্রপৃষ্ঠ থেকে 10-12 কিমি. উচ্চতায় আঁকাবাঁকা বা সর্পিলভাবে পশ্চিম থেকে। পূর্বে প্রবল গতিসম্পন্ন যে বায়ু প্রবাহিত হয়, তাকে জেট স্ট্রিম বলে।
বিশ্লেষণ বা বর্ণনাভিত্তিক প্রশ্নোত্তর [ মান (7) ]

 

1. ঘূর্ণবাতের চক্ষুর সংজ্ঞা দাও । ক্রান্তীয় ঘূর্ণবাতের শ্রেণিবিভাগ ও উৎপত্তি সংক্ষেপে ব্যাখ্যা করো।

 

2. ক্রান্তীয় ঘূর্ণবাত ও নাতিশীতোষ্ণ ঘূর্ণবাতের মধ্যে পার্থক্য লেখো।

 

3. উষ্ণ সীমান্ত ও শীতল সীমান্তের মধ্যে পার্থক্য লেখো। ঘূর্ণবাত ও প্রতীপ । ঘূর্ণবাতের মধ্যে পার্থক্য লেখো।

 

4. জেট স্ট্রিম কী ? এর বৈশিষ্ট্য লেখ ? মৌসুমি বায়ুর উপর জেট বায়ুর প্রভাব উল্লেখ করো।

 

5. জেট স্ট্রিমের ইনডেক্স সাইকেল কী ? মৌসুমি বায়ুর উপর এল নিনোর প্রভাব ব্যাখ্যা করো। ত্রিকোশ মডেল কী?

জলবায়ুর শ্রেণিবিভাগ | প্রাকৃতিক ভূগোল – Physical Geography | উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion

 

MCQ প্রশ্নোত্তর [ মান – 1]

 

1. কোপেন জলবায়ুর শ্রেণিবিভাগে Af বলতে বুঝিয়েছেন
(a) মৌসুমি অঞ্চলকে (b) স্টেপ অঞ্চলকে (c) ক্রান্তীয় বৃষ্টি অরণ্যকে (d) ক্রান্তীয় সাভানাকে

 

উত্তরঃ (c) ক্রান্তীয় বৃষ্টি অরণ্যকে

 

2. ‘Daldrums’ দেখা যায় যে অঞলে –
(a) মেরু অঞ্চলে (b) ক্রান্তীয় অঞ্চলে (c) নিরক্ষীয় অঞ্ছলে (d) মরু অঞলে

 

উত্তরঃ (c) নিরক্ষীয় অঞ্ছলে

 

3. ব্রিকফিল্ডার বলতে বোঝায় –
(a) নিয়ত বায়ু (b) তৈলখনি (c) লোহাখনি (d) স্থানীয় বায়ুকে

 

উত্তরঃ (d) স্থানীয় বায়ুকে

 

4. যে মেঘকে ‘Four O’clock Rain’ বলা হয় –
(a) কিউমুলোনিম্বাস মেঘকে (b) পরিচলন বৃষ্টিকে (c) সিট্রাসকে (d) কিউমুলা মেঘকে

 

উত্তরঃ (a) কিউমুলোনিম্বাস মেঘকে

 

5. ভূমধ্যসাগরীয় অঞলে ঘূর্ণিঝড় হয় –
(a) শীতকালে (b) গ্রীষ্মকালে (c) বর্ষাকালে (d) শরৎকালে

 

উত্তরঃ (a) শীতকালে

 

6. নিরক্ষীয় জলবায়ু অঞলে সারাবছর যে ঋতু লক্ষ করা যায়–
(a) ৩টি (b) ৪টি (c) ২টি (d) ১টি

 

উত্তরঃ (d) ১টি

 

7. মধ্য অক্ষাংশীয় অঞলে মহাদেশের পশ্চিমে যে জলবায়ু দেখা যায় –
(a) নিরক্ষীয় (b) ক্রান্তীয় মৌসুমি (c) ভূমধ্যসাগরীয় (d) ক্রান্তীয় সাভানা

 

উত্তরঃ (c) ভূমধ্যসাগরীয়

 

8. নিরক্ষীয় অঞলে বার্ষিক গড় উষ্ণতার পরিমাণ –
(a) ২৩°সে. (b) ২৬°সে. (c) ২৯°সে. (d) ৩৫°সে.

 

উত্তরঃ (b) ২৬°সে.

 

9. জেট বায়ুপ্রবাহ দেখা যায় –
(a) ট্রপোস্ফিয়ারের ঊর্ধ্বস্তরে (b) ট্রপোস্ফিয়ারের নিম্নস্তরে (c) স্ট্র্যাটোস্ফিয়ারের ঊর্ধ্বস্তরে (d) স্ট্রাটোপজে

 

উত্তরঃ (a) ট্রপোস্ফিয়ারের ঊর্ধ্বস্তরে

 

10. চিলির ভূমধ্যসাগরীয় ঝোপঝাড়ের নাম হলো –
(a) ম্যাটারোল (b) ফিনাস (c) মাকিয়া (d) ম্যাকুইস

 

উত্তরঃ (a) ম্যাটারোল

 

অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর [মান – 1]

 

1. জিওস্ট্রফিক বায়ু কোথায় লক্ষ করা যায়?

 

উত্তরঃ ঊধ্ব আকাশে চাপজনিত শক্তি ও কোরিওলিস বল সমান হওয়ায় এই বায়ুর সৃষ্টি হয় বা লক্ষ করা যায়।

 

2. খামসিন কী?

 

উত্তরঃ আফ্রিকা মহাদেশের মিশরে প্রবাহিত এক প্রকার উষ্ণ-শুষ্ক স্থানীয় বায়ুকে বলা হয় খামসিন।

 

3. ফিনবস কী?

 

উত্তরঃ দক্ষিণ আফ্রিকায় ছোটো ছোটো ফুলে ঢাকা যে ঝোপঝাড় জন্মায় তাদের স্থানীয় ভাষায় বলা হয় ফিনবস।

 

4. জলবায়ু কাকে বলে?

 

উত্তরঃ আবহাওয়ার বিভিন্ন উপাদান যথা উয়তা, বৃষ্টিপাত, বায়ুপ্রবাহ প্রভৃতির 30–35 বছরের গড় অবস্থাকে বলা হয় জলবায়ু।

 

5. হ্যারিকেন কোথায় কোথায় লক্ষ করা যায় ?

 

উত্তরঃ পশ্চিম ভারতীয় দ্বীপপুঞ্জ, মেক্সিকো উপকূল, উত্তর আটলান্টিক, এবং উত্তর-পূর্ব প্রশান্ত মহাসাগরীয় দ্বীপপুঞ্জে।

 

6. জলবায়ু অল কীভাবে নির্ণয় করা হয়?

 

উত্তরঃ প্রধানত উষ্ণতা ও বৃষ্টিপাতের সমতা লক্ষ করেই জলবায়ু অঞল নির্ণয় করা হয়। ?

 

7. নিরক্ষীয় জলবায়ু এশিয়ার কোথায় দেখা যায় ?

 

উত্তরঃ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, মালয়েশিয়া, ইন্দোনেশিয়া ও মায়ানমারের দক্ষিণে।

 

8. সীমান্ত কী?

 

উত্তরঃ দু’টি সম্পূর্ণ বিপরীতধর্মী বায়ুপুঞ্জের মধ্যবর্তী স্থানকে বলা হয় সীমান্ত।

 

বিশ্লেষণ বা বর্ণনাভিত্তিক প্রশ্নোত্তর [ মান (7) ]

 

1. মৌসুমি বায়ুর উৎপত্তি সম্পর্কে সংক্ষেপে আলোচনা করো। মৌসুমি বৃষ্টিপাতের অনিশ্চয়তার প্রধান কারণ কী ?

 

2. মৌসুমি বিস্ফোরণ কী ? মৌসুমি জলবায়ু ও ভূমধ্যসাগরীয় জলবায়ুর মধ্যে পার্থক্য লেখো।

 

3. নিরক্ষীয় জলবায়ু অঞল সম্পর্কে সংক্ষেপে লেখো। ভূমধ্যসাগরীয় জলবায়ু অঞলে অধিকাংশ বৃষ্টিপাত শীতকালে হয় কেন ? নিরক্ষীয় অঞ্চলে সর্বদা পরিচলন বৃষ্টিপাত হয় কেন?

 

4. কোপেনের জলবায়ুর শ্রেণিবিভাগ করে সংক্ষেপে আলোচনা করো।

জলবায়ু ও স্বাভাবিক উদ্ভিদ | প্রাকৃতিক ভূগোল – Physical Geography | উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion

 

MCQ প্রশ্নোত্তর [ মান – 1 ]

 

1. জলজ উদ্ভিদকে বলে –
(a) হাইড্রোফাইট (b) মেসোফাইট (c) জেরোফাইট (d) হ্যালোফাইট

 

উত্তরঃ (a) হাইড্রোফাইট

 

2. সাধারণ উদ্ভিদকে বলে –
(a) হ্যালোফাইট (b) জেরোফাইট (c) মেসোফাইট (d) হাইড্রোফাইট

 

উত্তরঃ (c) মেসোফাইট

 

3. লবণাম্বু উদ্ভিদ হলো –
(a) মেসোফাইট (b) হাইড্রোফাইট (c) জেরোফাইট (d) হ্যালোফাইট

 

উত্তরঃ (d) হ্যালোফাইট

 

4. নিরক্ষীয় জলবায়ু অঞলের উদ্ভিদ যে শ্রেণির অন্তর্গত
(a) মেগাথার্মস (b) মেসোথার্মস (c) মাইক্রোথার্মস (d) হেকিসটোথার্মস

 

উত্তরঃ (a) মেগাথার্মস

 

5. অধিক বৃষ্টিপাতযুক্ত অঞলে জন্মায় যে বৃক্ষ –
(a) পর্ণমোচী বৃক্ষ (b) চিরহরিৎ বৃক্ষ (c) বিরুৎজাতীয় বৃক্ষ(d) কাটাজাতীয়

 

উত্তরঃ (b) চিরহরিৎ বৃক্ষ

 

6. অতিউষ্ণ ও আর্দ্র অঞ্চলের উদ্ভিদকে বলে –
(a) মেসোথার্মস (b) মেগাথার্মস (c) হেকিস্টোথার্মস (d) মাইক্রোথার্মস

 

উত্তরঃ (b) মেগাথার্মস

 

7. ভারতের গাঙ্গেয় সমভূমি অঞ্চলে সবচেয়ে বেশি দেখা যায়—
(a) হ্যালোফাইট (b) জেরোফাইট (c) হাইড্রোফাইট (d) মেসোফাইট

 

উত্তরঃ (d) মেসোফাইট

 

8. যেসকল উদ্ভিদ ১০° সে. – ২০° সে. উয়তাযুক্ত অঞ্চলে জন্মায়, তাদের বলে –
(a) মেগাথার্মস (b) মেসোথার্মস (c) মাইক্রোথার্মস (d) হেকিস্টোথার্মস

 

উত্তরঃ (a) মেগাথার্মস

 

9. অতিঅল্প তাপমাত্রায় বেড়ে ওঠা উদ্ভিদকে বলা হয় –
(a) মাইক্রোথার্মস (b) মেসোথার্মস (c) হেকিস্টোথার্মস (d) স্কিওফাইট

 

উত্তরঃ (c) হেকিস্টোথার্মস

 

10. ফার্ন এক ধরনের –
(a) স্কিওফাইট (b) হ্যালোফাইট (C) মাইক্রোথার্মস (d) মেগাথার্মস

 

উত্তরঃ (a) স্কিওফাইট

 

11. জাঙ্গল উদ্ভিদ যে পরিবেশে জন্মায় ও বেঁচে থাকে –
(a) মরু (b) আদ্র(c) নিরক্ষীয় (d) শুষ্ক অঞ্চলে

 

উত্তরঃ (d) শুষ্ক অঞ্চলে

 

12. বালি ও কঁাকর মাটিতে জন্মানো উদ্ভিদ হলো –
(a) সাম্মােফাইট (b) লিথোফাইট (c) সাইক্রোফাইট (d) অক্সিলোফাইট

 

উত্তরঃ (a) সাম্মােফাইট

 

13. শিলাগাত্রে জন্মানো উদ্ভিদকে বলে –
(a) সাইকোফাইট (b) লিথোফাইট (c) অক্সিলোফাইট (d) সাম্মােফাইট

 

উত্তরঃ (b) লিথোফাইট

 

14. মরু ও মরুপ্রায় অঞলে যে উপাদান কম –
(a) আদ্রর্তা (b) গতি (c) প্রবাহ (d) অভিমুখ

 

উত্তরঃ (a) আদ্রর্তা

 

15. নিরক্ষীয় জলবায়ু অঞলের উদ্ভিদ যে শ্রেণিতে পড়ে
(a) মেসোথার্মস (b) হেকিস্টোথার্মস (c) মেগাথার্মস (d) মাইক্রোথার্মস

 

উত্তরঃ (c) মেগাথার্মস

 

16. ছায়াপ্রিয় উদ্ভিদ কোন শ্রেণির অন্তর্গত ?
(a) স্কিওফাইট (b) হ্যালোফাইট (c) হেলিওফাইট (d) টেরিডোফাইট

 

উত্তরঃ (a) স্কিওফাইট

 

17. আলোকপ্রিয় উদ্ভিদ কোন শ্রেণির অন্তর্গত?
(a) হ্যালোফাইট (b) হেলিওফাইট (C) স্কিওফাইট (d) টেরিডোফাইট

 

উত্তরঃ (b) হেলিওফাইট

 

18. ভূগর্ভস্থ জলের প্রধান উৎস হলো –
(a) তুষারপাত (b) ভৌমজল (c) নদীর জল (d) বৃষ্টিপাত

 

উত্তরঃ (d) বৃষ্টিপাত

 

19. জাঙ্গল উদ্ভিদ হলো—
(a) মেসোফাইট (b) হাইড্রোফাইট (c) জেরোফাইট (d) হ্যালোফাইট

 

উত্তরঃ (c) জেরোফাইট

 

20. ঠান্ডা মাটিতে জন্মানো উদ্ভিদ –
(a) অক্সিলোফাইট (b) সাইক্রোফাইট (c) লবণাম্বু উদ্ভিদ (d) ক্যাসমোফাইট

 

উত্তরঃ (b) সাইক্রোফাইট
অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর [ মান (1) ]

 

1. যে-সমস্ত উদ্ভিদ প্রকৃতির বুকে প্রাকৃতিক উপাদানের (উষ্ণতা, বৃষ্টিপাত, মৃত্তিকা প্রভৃতি) উপর নির্ভর করে জন্মায়, তাদের কী বলে?

 

উত্তরঃ স্বাভাবিক উদ্ভিদ

 

2. মেগাথার্মস জাতীয় উদ্ভিদ কোন অঞ্চলে দেখা যায় ?

 

উত্তরঃ নিরক্ষীয় অঞ্চলে

 

3. আম্লিক মৃত্তিকার উদ্ভিদকে কী বলা হয়?

 

উত্তরঃ অক্সিলোফাইট

 

4. যে-সমস্ত উদ্ভিদ অধিক সূর্যালোকে ভালো জন্মায় তাদের কী বলে?

 

উত্তরঃ আলোকপ্রিয় বা হেলিওফাইট উদ্ভিদ।

 

5. যে-সমস্ত উদ্ভিদ ছায়া অঞলে ভালো জন্মায় তাদের কী বলে?

 

উত্তরঃ ছায়াপ্রিয় উদ্ভিদ বা স্কিওফাইট।

 

6. জলবায়ু পরিবর্তনের দু’টি নিদর্শন উল্লেখ করো।

 

উত্তরঃ (i) পৃথিবীর অক্ষকোণের ও কক্ষপথের পরিবর্তন; (ii) বায়ুমণ্ডলের গঠনে পরিবর্তন।

 

7. উভচর জলজ উদ্ভিদের নামগুলি কী?

 

উত্তরঃ হোগলা, শুশনি, রেনান, কুলাস, হিংচেশাক ইত্যাদি।

 

8. ছত্রাক ও শৈবাল কোন বর্গের উদ্ভিদ?

 

উত্তরঃ সমাঙ্গদেহী বা থ্যালোফাইটা।

 

9. কোন বিজ্ঞানী, কত সালে উদ্ভিদের শ্রেণিবিভাগ করেন?

 

উত্তরঃবিজ্ঞানী ওয়ার্মিং, ১৮৯৫ সালে উদ্ভিদের শ্রেণিবিভাগ করেন।

 

10. কোন মূল উদ্ভিদের দেহে বায়ুর প্রয়োজন মেটায়?

 

উত্তরঃ শ্বাসমূল (Pneumatophores)।

 

11. ঝাঝি, পাতা শ্যাওলা কী ধরনের জলজ উদ্ভিদ ?

 

উত্তরঃ মূলযুক্ত জলজ উদ্ভিদ।

 

12. বাবলা, আকন্দ, করবী ইত্যাদি কী ধরনের উদ্ভিদ?

 

উত্তরঃ জাঙ্গল বা জেরোফাইট উদ্ভিদ।

 

13. অক্সিলোফাইট কী?

 

উত্তরঃ অম্লধর্মী মৃত্তিকায় জন্মানো উদ্ভিদকে অক্সিলোফাইট বলে।

 

14. বর্তমানে পৃথিবীতে মোট বনভূমির পরিমাণ কত?

 

উত্তরঃ 30%।

 

15. যে-সমস্ত উদ্ভিদ অধিক উন্নতায় জন্মায় তাদের কী বলে?

 

উত্তরঃ মেগাথার্মস

 

16. যে-সমস্ত উদ্ভিদ কম উয়তায় জন্মায় তাদের কী বলে?

 

উত্তরঃ মাইক্রোথার্মস

 

17. যে-সমস্ত উদ্ভিদ অতিরিক্ত শীত সহ্য করতে পারে তাদের কী বলে?

 

উত্তরঃ হেকিস্টোথার্মস

 

18. ম্যানগ্রোভ শ্রেণির উদ্ভিদ কোথায় দেখা যায় ?

 

উত্তরঃ সুন্দরবনে।

 

19. যেসব উদ্ভিদের ফুল ফুটতে দিনের আলো বেশি লাগে সেসব উদ্ভিদ কোথায় জন্মায়?

 

উত্তরঃ উচ্চ অক্ষাংশে

 

20. যেসব উদ্ভিদ চরম শুষ্ক ও উষ্ম ঋতুতে বেঁচে থাকে তাদের কী বলে?

 

উত্তরঃ দৃঢ় ক্ষরা সহ্যকারী

 

বিশ্লেষণ বা বর্ণনাভিত্তিক প্রশ্নোত্তর [ মান (7) ]

 

1. স্বাভাবিক উদ্ভিদের উপর জলবায়ুর প্রভাব সংক্ষেপে আলোচনা করো।

 

2. মেসাফাইট, হাইড্রোফাইট ও হ্যালোফাইট উদ্ভিদের মধ্যে তুলনা করো। মরু অঞ্চলের উদ্ভিদগুলি খর্বাকার হয় কেন?

 

3. জলজ উদ্ভিদ (Hydrophyte) ও লবণাম্বু উদ্ভিদ (Halophyte)-এর শ্রেণিবিভাগ করে অভিযোজনগত বৈশিষ্ট্য সংক্ষেপে আলোচনা করো।

জলবায়ুর পরিবর্তন | প্রাকৃতিক ভূগোল – Physical Geography | উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion

 

MCQ প্রশ্নোত্তর [ মান – 1 ]

 

1. ক্লোরোফ্লুরোকার্বন (CFC) -এর প্রধান উৎস –
(a) শীতাতপ নিয়ন্ত্রক যন্ত্র (b) শিল্প (c) যানবাহন (d) আগ্নেয়গিরি

 

উত্তরঃ (a) শীতাতপ নিয়ন্ত্রক যন্ত্র

 

2. ওজোন গ্যাসের ঘনত্ব সবচেয়ে বেশি হয়ে থাকে –
(a) ট্রপোস্ফিয়ারে (b) স্ট্র্যাটোস্ফিয়ারে (c) এক্সোস্ফিয়ারে (d) মেসোস্ফিয়ারে।

 

উত্তরঃ (b) স্ট্র্যাটোস্ফিয়ারে

 

3. ওজোন স্তরের গর্ত সর্বপ্রথম পর্যবেক্ষণ করেন –
(a) ড: সলমন রুশদি (b) ড: ফারমেন (c) ড: বিশ্বম্ভর সেন (d) ড: সুসান সলোমান

 

উত্তরঃ (b) ড: ফারমেন

 

4. কে প্রথম ওজোন গ্যাসের উপস্থিতি প্রমাণ করেন?
(a) ক্রিস্টিয়ান ফ্রেডরিক স্কোনসি (b) লিন্ডেম্যান (c) ক্রিকমে (d) ডেভিস

 

উত্তরঃ (a) ক্রিস্টিয়ান ফ্রেডরিক স্কোনসি

 

5. বায়ুমণ্ডলের গ্রিনহাউস গ্যাসগুলির মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো—
(a) নাইট্রোজেন (b) অক্সিজেন (c) ক্লোরোফ্লুরো কার্বন (d) হাইড্রোজেন

 

উত্তরঃ (c) ক্লোরোফ্লুরো কার্বন

 

6. গ্রিনহাউস প্রভাব সবচেয়ে বেশি হয় –
(a) স্ট্র্যাটোস্ফিয়ারে (b) ট্রপোস্ফিয়ারে (c) মেসোস্ফিয়ারে (d) এক্সোস্ফিয়ারে

 

উত্তরঃ (b) ট্রপোস্ফিয়ারে

 

অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর [মান – 1]

 

1. ওজোন গ্যাসের ঘনত্ব সবচেয়ে বেশি লক্ষ করা যায় কোন স্তরে?

 

উত্তরঃ স্ট্রাটোস্ফিয়ার স্তরে

 

2. পৃথিবীর প্রাকৃতিক সৌরপর্দা কাকে বলে?

 

উত্তরঃ ওজোন স্তরকে।

 

3. বায়ুমণ্ডলের ওজোন গ্যাসের ঘনত্ব পরিমাপের এককের নাম কী ?

 

উত্তরঃডবসন একক

 

4. কোন যন্ত্রের সাহায্যে ওজন স্তরের ঘনত্ব পরিমাপ করা হয়?

 

উত্তরঃ স্পেকট্রোফটোমিটার যন্ত্রের সাহায্যে

 

5. কোথায় সর্বাধিক ওজোন গহুর লক্ষ করা যায় ?

 

উত্তরঃ আন্টার্কটিকার আকাশে। (?)

 

6. সূর্য থেকে কত পরিমাণ শক্তি পৃথিবীতে এসে পৌছায় ?

 

উত্তরঃ প্রায় 200 কোটি ভাগের 1 ভাগ

 

7. মানুষের নানা ধরনের কাজের ফলে ওজোন স্তরের ক্ষয় হচ্ছে প্রতিনিয়ত। ফলে বড়ো বড়ো ফুটো বা গহুর সৃষ্টি হয়েছে, একে কী বলে?

 

উত্তরঃ ওজোন ক্ষয়

 

8. অপসুর কাকে বলে ?

 

উত্তরঃ 4 জুলাই সূর্য থেকে পৃথিবীর দূরত্ব সবচেয়ে বেশি—প্রায় 15 কোটি 20 লক্ষ কিমি থাকে, এই দিনকে অপসুর অবস্থা বলে।

 

9. অনুসুর কাকে বলে?

 

উত্তরঃ ৩ জানুয়ারি সূর্য থেকে পৃথিবীর দূরত্ব সবচেয়ে বেশি থাকে প্রায় 14 কোটি 70 লক্ষ কিমি থাকে, এই দিনকে অনুসুর অবস্থা বলে।

 

10. সর্বপ্রথম কে ওজোন গ্যাসের অস্তিত্ব প্রমাণ করেন?

 

উত্তরঃ 1840 সালে জার্মান বিজ্ঞানী স্কোনবিন।

 

বিশ্লেষণ বা বর্ণনাভিত্তিক প্রশ্নোত্তর [ মান – 7]

 

1. পরিবেশের উপর ওজোন স্তরের অবক্ষয়ের প্রভাব সংক্ষেপে আলোচনা করো।

 

2. গ্রিনহাউস এফেক্ট ও গ্লোবাল ওয়ার্মিং কী ? এর কারণ ও প্রভাব সংক্ষেপে আলোচনা করো।

জীববৈচিত্র্য | প্রাকৃতিক ভূগোল – Physical Geography | উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion

 

MCQ প্রশ্নোত্তর [ মান – 1]

 

1. ভারতে বন্যপ্রাণী সুরক্ষা আইন কত সালে প্রণয়ন করা হয়?

 

(a) 1972 (b) 1971 (c) 1970 (d) 1962 সালে

 

উত্তরঃ (a) 1972

 

2. পৃথিবীতে মোট কয়টি জীববৈচিত্র্য হটস্পট আছে?
(a) 25 (b) 34 (c) 40 (d) 55টি

 

উত্তরঃ (b) 34

 

3. বর্তমানে ভারতে মোট কয়টি জীবমণ্ডল সংরক্ষণ অল আছে?
(a) 15 (b) 16 (c) 17 (d) 18টি

 

উত্তরঃ (d) 18টি

 

4. সবচেয়ে বেশি জীববৈচিত্র্য লক্ষ করা যায় কোন অলে?
(a) মেরু অঞ্চলের তুলনায় ক্রান্তীয় অঞলে (b) শুষ্ক অঞ্চলের তুলনায় আর্দ্র অঞ্চলে। (c) উচ্চ অলের তুলনায় নিম্ন অঞ্চলে (d) উপরের সবক’টিই ঠিক

 

উত্তরঃ (d) উপরের সবক’টিই ঠিক

 

5. বিশ্ব সংরক্ষণ উপদেষ্টা কেন্দ্রের (1992) গণনা অনুসারে পৃথিবীতে মোট প্রজাতির সংখ্যা কত?
(a) 1.25 কোটি (b) 1.30 কোটি (c) 1.50 কোটি (d) 1.60 কোটি

 

উত্তরঃ (a) 1.25 কোটি

 

6. নিম্নের কোনটি ভারতের হটস্পট অঞল?
(a) পশ্চিমঘাট পর্বত অঞল (b) হিমালয় অঞ্চল (c) ইন্দো-বার্মা অঞ্চল (d) সবকটিই ঠিক

 

উত্তরঃ (d) সবকটিই ঠিক

 

7. ভারতে মোট কয়টি সংরক্ষণ অঞ্চল আছে?
(a) 605 (b) 705 (c) 805 (d) 905টি

 

উত্তরঃ (a) 605

 

8. ভারতে মোট কয়টি বন্যপ্রাণী অভয়ারণ্য অঞ্চল আছে?
(a) 6157 (b) 515 (c) 415 (d) 315টি

 

উত্তরঃ (b) 515

 

9. ভারতে কয়টি জাতীয় উদ্যান রয়েছে?
(a) 80 (b) 70 (c) 90 (d) 99টি

 

উত্তরঃ (c) 90

 

10. ভারতে কয়টি জীবমণ্ডল সংরক্ষণ অঞ্চল আছে?
(a) 15 (b) 13 (c) 17 (d) 14টি

 

উত্তরঃ (d) 14টি

 

11. ভারতে ঘোষিত প্রথম জাতীয় উদ্যান কোনটি ?
(a) করবেট (উত্তরাঞ্চল) (b) কানহা (c) কাজিরাঙা (d) দুধুয়া

 

উত্তরঃ (a) করবেট (উত্তরাঞ্চল)

 

12. রামসার সম্মেলন কত সালে অনুষ্ঠিত হয়?
(a) 1972 (b) 1971 (c) 1970 (d) 1969 সালে

 

উত্তরঃ (b) 1971

 

13. বসুন্ধরা সম্মেলন ব্রাজিলে কত সালে অনুষ্ঠিত হয়?
(a) 1990 (b) 1991 (c) 1992 (d) 1993 সালে

 

উত্তরঃ (c) 1992

 

14. ভারতে অরণ্য সংরক্ষণ আইন কত সালে প্রণয়ন করা হয়?
(a) 1981 (b) 1982 (C) 1993 (d) 1980 সালে

 

উত্তরঃ (d) 1980 সালে

 

অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর [ মান – 1]
1. জীববৈচিত্র্যের গুরুত্ব কী?

 

উত্তরঃ বায়ু, জল, মৃত্তিকা সম্পদ সংরক্ষণ করা, পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষা করা, জৈব সম্পদের জোগান দেওয়া প্রভৃতি।

 

2. পৃথিবীতে মোট কয়টি জীব ভৌগোলিক রাজ্য আছে?

 

উত্তরঃ আটটি।

 

3. বাস্তৃতান্ত্রিক বৈচিত্র কাকে বলে?

 

উত্তরঃ প্রকৃতিতে অবস্থিত কোনো বাস্তুতন্ত্রের মধ্যে যে বিভিন্নতা লক্ষ করা যায়, তাকে বলা হয় বাস্তুতান্ত্রিক বৈচিত্র্য।

 

4. ইকোটোন কী?

 

উত্তরঃ পাশাপাশি অবস্থিত দু’টি বাস্তুতন্ত্রের মিলনস্থলকে বলা হয় ইকোটন।

 

5. পৃথিবীতে কয়টি মেগাবায়োডাভারসিটি অল আছে?

 

উত্তরঃ 19টি

 

6. বিলুপ্ত ও বিপন্ন প্রজাতি কাকে বলে?

 

উত্তরঃ যেসব প্রজাতির অস্তিত্ব বর্তমানে নেই তাদের বিলুপ্ত এবং যেসব প্রজাতির বিলুপ্ত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে, তাদের বিপন্ন প্রজাতি বলে। ও

 

7. পলিপ্লয়ডি কী ?

 

উত্তরঃ একটি নির্দিষ্ট প্রজাতির জিনপুল পরিবর্তন ঘটিয়ে নতুন প্রজাতির সৃষ্টি হয়। এই পদ্ধতিকে বলা হয় পলিপ্লয়ডি।

 

8. পৃথিবীতে মোট কয়টি মেগাবায়োডাভারসিটি জোন লক্ষ করা যায়?

 

উত্তরঃ 200টি দেশের মধ্যে 17টি দেশে।

 

9. প্রজাতির বিলুপ্তির সম্ভাবনা বেশি কেন?

 

উত্তরঃ ভৌগোলিক বিস্তার সংকীর্ণ, জীবসংখ্যা খুবই কম, দেহের আকৃতি বিশাল মাপের, নিম্ন জন্মহার, জিনগত বৈচিত্র্য ইত্যাদি কারণে প্রজাতির বিলুপ্তি হয়।

 

10. সংকটপূর্ণ, বিপন্ন, বিপদপ্রবণ প্রজাতি কী?

 

উত্তরঃ যেসব প্রজাতির জীবসংখ্যা 50%-এর বেশি বিলুপ্ত হবার সম্ভাবনা রয়েছে তাদের সংকটপূর্ণ প্রজাতি, 20%-এর বেশি বিলুপ্ত হবার সম্ভাবনা রয়েছে তাদের বিপন্ন প্রজাতি এবং 10%-এর বেশি বিলুপ্ত হবার সম্ভাবনা রয়েছে, তাদের বিপদপ্রবণ প্রজাতি বলে।

 

11. কত সালে মানুষ ও জীবমণ্ডল কর্মসূচি গ্রহণ করা হয়?

 

উত্তরঃ 1971 সালে (UNESCO)।

 

12. পৃথিবীর বৃহত্তম উদ্ভিদ উদ্যান কোনটি?

 

উত্তরঃ ইংল্যান্ডের কিউ-এ অবস্থিত রয়্যাল বোটানিক্যাল গার্ডেন্স।

 

13. বাস্তুতন্ত্র কাকে বলে?

 

উত্তরঃ যে নিয়মের মাধ্যমে কোনো একটি নির্দিষ্ট অঞ্চলে বসবাসকারী জীবসম্প্রদায় ও ওই অজীবজাত উপাদানগুলির মধ্যে পারস্পরিক আন্তঃক্রিয়ায় উদ্ভুত উপাদানসমুহের বিনিময় ঘটে, তাকে বাস্তুতন্ত্র বলে।

 

14. গামা বৈচিত্র্য কাকে বলে?

 

উত্তরঃ যেকোনো বৃহৎ আয়তন ভৌগোলিক অঞলের মধ্যে পরিবেশ, প্রাকৃতিক বাসভূমি এবং গোষ্ঠীগত বিভিন্নতার জন্য উদ্ভূত জীববৈচিত্র্যকে বলা হয় গামা বৈচিত্র্য।

 

15. আলফা বৈচিত্র্য কাকে বলে?

 

উত্তরঃতার একটি নির্দিষ্ট জীবগোষ্ঠীর মধ্যে অবস্থিত প্রজাতির সংখ্যাকে বলা হয় আলফা বৈচিত্র্য।

 

16. বিটা বৈচিত্র্য কাকে বলে ?

 

উত্তরঃ আন্তঃপ্রাকৃতিক বাসভূমি বা আন্তঃগোষ্ঠী জীববৈচিত্র্যকে বিটা বৈচিত্র্য বলে।

 

17. ক্লাড বলতে কী বোঝায়?

 

উত্তরঃ প্রকৃতিতে বসবাসকারী নির্দিষ্ট প্রজাতির উদ্ভিদ বা প্রাণীর সমস্ত বংশধরকে একত্রে বলা হয় ক্লাড।

 

18. ইন-ভিট্রো সংরক্ষণ কাকে বলে?

 

উত্তরঃ অতিশীতল সংরক্ষণ পদ্ধতিতে প্রজাতির সংরক্ষণ ব্যবস্থাকে বলা হয় ইন-ভিট্রো সংরক্ষণ।

 

19. প্রজাতিভবন কাকে বলে?

 

উত্তরঃ যে পদ্ধতির মাধমে একটি প্রজাতির জীব থেকে একাধিক প্রজাতির সৃষ্টি হয়, তাকে প্রজাতিভবন বলে।

 

20. ক্রান্তীয় অঞ্চলে জীববৈচিত্র্য সর্বাধিক লক্ষ করা যায় কেন?

 

উত্তরঃ ক্রান্তীয় অঞ্চলে জীববৈচিত্র্য সমৃদ্ধির কারণ হলো—স্থিতিশীল জলবায়ু, প্রাচীন। জীবগোষ্ঠী, উয়-আর্দ্র জলবায়ু, উচ্চ সংকরায়ণের হার, পর্যাপ্ত সূর্যালোক, প্রজাতির একত্র সহাবস্থান ইত্যাদি।

 

21. জৈবিক হটস্পট কাকে বলে ?

 

উত্তরঃ যেসব প্রাকৃতিক পরিবেশে বেশি সংখ্যায় প্রজাতি অবলুপ্তির পথে এবং সংকটাপন্ন সাধারণত সেইসব বাসস্থানকে বলা হয় জৈবিক হটস্পট।

 

বিশ্লেষণ বা বর্ণনাভিত্তিক প্রশ্নোত্তর [মান – 7]

 

1. জীববৈচিত্র্যের শ্রেণিবিভাগ করো। জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণের কৌশলগুলি আলোচনা করো।

 

2. জীববৈচিত্র্য কী ? লাল তালিকা কী ? জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণের পদ্ধতিগুলি আলোচনা করো।

 

3. জীববৈচিত্র্য বিনাশের কারণ ও প্রভাবগুলি সংক্ষেপে লেখো।

 

4. জীববৈচিত্র্যের হটস্পট কাকে বলে ? সংরক্ষিত ও সুরক্ষিত বনভূমির মধ্যে – পার্থক্য লেখো।

মানুষ-পরিবেশ আন্তঃসম্পর্ক বা মিথস্ক্রিয়া | প্রাকৃতিক ভূগোল – Physical Geography | উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion

 

MCQ প্রশ্নোত্তর [ মান – 1]

 

1. পশ্চিমবঙ্গে কত সালে আয়লা ঘূর্ণিঝড় লক্ষ করা গিয়েছিল?
(a) 2009 (b) 2008 (c) 2010 (d) 2002 সালে

 

উত্তরঃ (a) 2009

 

2. 2014 সালের অক্টোবর মাসে ভারতে কোন ঘূর্ণিঝড় লক্ষ করা গিয়েছিল ?
(a) আয়লা (b) হুদহুদ (c) সুপার সাইক্লোন (d) কোনোটিই নয়

 

উত্তরঃ (b) হুদহুদ

 

3. কত সালে ভারতে কেন্দ্রীয় বন্যা নিয়ন্ত্রণ পর্ষদ গঠন করা হয়েছিল?
(a) 1960 (b) 1950 (c) 1954 (d) 1955 সালে

 

উত্তরঃ (c) 1954

 

4. কত সালে ভারতে ওড়িশার উপকূলে সুপার সাইক্লোন হয়েছিল?
(a) 1999 সালের 29 অক্টোবর (b) 2002 সালের 4 জুলাই – (c) 2000 সালের 29 ডিসেম্বর (d) কোনোটিই নয়

 

উত্তরঃ (a) 1999 সালের 29 অক্টোবর

 

5. কোন দশককে আন্তর্জাতিক প্রাকৃতিক বিপর্যয় নিরসন দশক হিসেবে ঘোষণা করা হয়েছে?
(a) 1980-1990 (b) 1990-2000 (c) 2000-2010 (d) কোনোটিই নয়

 

উত্তরঃ (b) 1990-2000

 

6. ট্রেস ইন্টিকৈটরের মাধ্যমে কোন তথ্য জানা যায়?
(a) দুর্যোগ ও বিপর্যয় (b) সুনামি (c) ভূমিকম্প (d) সবক’টিই ঠিক

 

উত্তরঃ (a) দুর্যোগ ও বিপর্যয়

 

7. বন্যা নিয়ন্ত্রণের উপায় কী?
(a) বনসৃজন, জলাধার নির্মাণ (b) জলাশয় খনন, নদীনিকাশি উন্নত করা (c) বন্যার পূর্বাভাস দেওয়া, সচেতনতা বৃদ্ধি (d) উপরের সবকটিই ঠিক

 

উত্তরঃ (d) উপরের সবকটিই ঠিক

 

8. একটি জৈব দুর্যোগের উদাহরণ দাও।
(a) জনসংখ্যা বিস্ফোরণ (b) ইউট্রোফিকেশন (c) a ও b দুটোই ঠিক (d) কোনোটিই নয়

 

উত্তরঃ (c) a ও b দুটোই ঠিক

 

অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর [ মান – 1]

 

1. বিপর্যয়ের বৈশিষ্ট্য লেখো।

 

উত্তরঃ মানুষের জীবনযাত্রাকে ব্যাহত করে; প্রচুর প্রাণহানি ও সম্পত্তিহানি ঘটায়; বিপর্যয় বিভিন্নভাবে উপস্থিত হয়—কখনো হঠাৎ আবার কখনো ধীরে; পরিবেশের গুণগত মান হ্রাস পায়; বিপর্যয় প্রাকৃতিক বা মানবিক উভয় কারণেই হতে পারে।

 

2. ভারতের বিপর্যয়প্রবণ এলাকার নাম কী?

 

উত্তরঃ হিমালয় পার্বত্য অঞ্চল, পশ্চিমবঙ্গ, ওড়িশা, গুজরাতের উপকূল, রাজস্থান, মহারাষ্ট্র, মধ্যপ্রদেশ, ছত্তিশগড় ইত্যাদি।

 

3. পৃথিবীর বিপর্যয়পূর্ণ এলাকার নাম কী ?

 

উত্তরঃপাত সীমান্ত এলাকা, ক্যারিবিয়ান সাগর (হ্যারিকেন), চিনসাগর (টাইফুন), ভারতীয় উপমহাদেশ (সাইক্লোন), অস্ট্রেলিয়া (উইলি-উইলি) ব-দ্বীপ সন্নিহিত অঞল (ভারত, বাংলাদেশ), উম্ন মরু অঞ্চল (উত্তর-পশিচম ভারত, পাকিস্তান) উত্তর আফ্রিকার সাহারা, দক্ষিণ আমেরিকার আটাকাম মরুভূমি ইত্যাদি। (?)

 

4. সুনামি কী ?

 

উত্তরঃসমুদ্র তলদেশে প্রবল ভূমিকম্পের ফলে সমুদ্রের উপরের জলরাশি বিশালাকৃতির জলোচ্ছাসের রূপ ধারণ করে উপকূলের উপরে আছড়ে পড়ে একে জাপানি ভাষায় সুনামি বলে।

 

5. অগ্ন্যুৎপাত কাকে বলে?

 

উত্তরঃ ভূঅভ্যন্তরে প্রচণ্ড তাপ, চাপ ও তেজস্ক্রিয় পদার্থের উপস্থিতির কারণে ভূত্বকের কোনো। দুর্বল স্থান দিয়ে প্রচণ্ড বেগে যে গলিত উত্তপ্ত তরল পদার্থ বের হয়, তাকে অগ্ন্যুৎপাত বলে।

 

6. ভূমিকম্পের দেশ কাকে বলা হয় ?

 

উত্তরঃ জাপানকে

 

7. ভূমিধস কী?

 

উত্তরঃপাহাড়ের ঢাল বরাবর মাধ্যাকর্ষণ শক্তির প্রভাবে শিলাচূর্ণ, মৃত্তিকা, পাথরের খণ্ড হঠাৎ নেমে আসাকে বলা হয় ভূমিধস।

 

8. খরা কী ?

 

উত্তরঃওই সাধারণত স্বাভাবিক বৃষ্টিপাতের তুলনায় 75% কম বৃষ্টি হলে, তাকে খরা বলা হয়।

 

9. বন্যা কী ?

 

উত্তরঃ বর্ষার জল, হিমবাহ গলিত জল নদীতে এসে মিশলে নদীর জল দুই কূল ছাপিয়ে পার্শ্ববর্তী এলাকাকে জলমগ্ন করে তোলে, তখন তাকে বলা হয় বন্যা।

 

10. ঘূর্ণিঝড় বা সাইক্লোন কী ?

 

উত্তরঃ কোনো স্থানে বায়ুর চাপ হঠাৎ হ্রাস পেয়ে নিম্নচাপের সৃষ্টি হলে প্রবল বেগে পার্শ্ববর্তী অঞ্চল থেকে ঘূর্ণির মতো বায়ুর ধেয়ে আসাকে বলা হয় সাইক্লোন।

 

11. হড়পা বান কী?

 

উত্তরঃ উচ্চ অববাহিকায় অল্প সময়ে হঠাৎ অত্যন্ত তীব্র গতিতে নদীখাতের মধ্য দিয়ে জল প্রবাহিত হলে নদীর দুই কূল অত্যন্ত জলমগ্ন হয়ে পড়ে, একে হড়পা বান বলে।

 

12. সব দুর্যোগ বিপর্যয় নয় কেন?

 

উত্তরঃ বিপর্যয় হলো দুর্যোগের ফল। দুর্যোগ হলো প্রাকৃতিক বা মানবসৃষ্ট ঘটনাবলি। সুতরাং দুর্যোগ সবসময় বিপর্যয়ে নাও হতে পারে। কিন্তু বিপর্যয় আসে দুর্যোগের হাত ধরেই। তাই সব দুর্যোগ বিপর্যয় নয়।

 

বিশ্লেষণ বা বর্ণনাভিত্তিক প্রশ্নোত্তর [ মান – 7 ]

 

1. প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও মনুষ্যসৃষ্ট দুর্যোগের মধ্যে পার্থক্য লেখো। উদাহরণ সহ দুর্যোগের শ্রেণিবিভাগ করো।

 

2. সুনামি কী ? প্রাকৃতিক দুর্যোগ ও বিপর্যয় নিয়ন্ত্রণের উপায় ও ব্যবস্থাপনাগুলি সংক্ষেপে লেখো।

অর্থনৈতিক ভূগোল – Economic Geography

অর্থনৈতিক ক্রিয়াকলাপ | অর্থনৈতিক ভূগোল – Economic Geography | উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion

 

MCQ প্রশ্নোত্তর [ মান – 1]

 

1. ভিক্ষাবৃত্তি যে অর্থনৈতিক ক্রিয়াকলাপ –
(a) প্রথম (b) চতুর্থ (c) তৃতীয় (d) কোনো অর্থনৈতিক ক্রিয়াকলাপ নয়

 

উত্তরঃ (d) কোনো অর্থনৈতিক ক্রিয়াকলাপ নয়

 

2. অর্থনৈতিক ক্রিয়াকলাপের নবীনতম সংযোজন –
(a) কোয়ার্টনারি (b) টারসিয়ারি (c) সেকেন্ডারি (d) কুইনারি

 

উত্তরঃ (a) কোয়ার্টনারি

 

3. শস্য উৎপাদনের সঙ্গে জড়িত অর্থনৈতিক কার্যাবলি হলো—
(a) প্রথম স্তরের কার্যাবলি (b) দ্বিতীয় বা গৌণ স্তরের কার্যাবলি (c) তৃতীয় বা পরিষেবা স্তরের কার্যাবলি (d) নব্য স্তরের কার্যাবলি

 

উত্তরঃ (a) প্রথম স্তরের কার্যাবলি

 

4. নির্ণায়কের কাজ কোন স্তরের অর্থনৈতিক ক্রিয়াকলাপের অন্তর্গত ?
(a) দ্বিতীয় (b) তৃতীয় (c) প্রথম (d) পঞ্চম স্তরের

 

উত্তরঃ (d) পঞ্চম স্তরের

 

5. নিম্নলিখিত বিষয়গুলির মধ্যে কোনটি চতুর্থ স্তরের অর্থনৈতিক ক্ষেত্রের অন্তর্গত নয় –
(a) বিমা (b) বিজ্ঞাপন (c) পরিবহণ (d) গবেষণা

 

উত্তরঃ (d) গবেষণা

 

6. যে ধরনের শ্রমিক পঞ্চম স্তরের অর্থনৈতিক ক্রিয়াকলাপের সঙ্গে যুক্ত –
(a) কৃষক(b) শিল্পশ্রমিক (c) পরিবহণ কর্মী (d) নীতিনির্ধারক

 

উত্তরঃ (d) নীতিনির্ধারক

 

অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর [ মান – 1]

 

1. চতুর্থ স্তরের ক্রিয়াকলাপের উদাহরণ দাও।

 

উত্তরঃ ব্যাঙ্কিং, বিমা, মিউনিসিপ্যাল পরিষেবা, তথ্যপ্রযুক্তি, অধিক উন্নত আধুনিক পেশা, সফটওয়্যার নির্মাতা।

 

2. পঞ্চম স্তরের ক্রিয়াকলাপের উদাহরণ দাও।

 

উত্তরঃ আইনি পরামর্শ, আর্থিক উপদেষ্টা, পেশাদার উপদেষ্টা, পলিসি বা নীতি, নারীর ক্ষমতায়ন, নির্ণায়কের কাজ, নীতি নির্ধারক ইত্যাদি।

 

3. প্রাথমিক স্তরের ক্রিয়াকলাপের উদাহরণ দাও।

 

উত্তরঃ বনজ সম্পদ সংগ্রহ ও পশুশিকার, খনিজ সম্পদ আহরণ, মৎস্যশিকার, জীবিকাসত্তাভিত্তিক কৃষি ইত্যাদি।

 

4. দ্বিতীয় স্তরের ক্রিয়াকলাপের উদাহরণ দাও।

 

উত্তরঃ শ্রমশিল্প, প্রক্রিয়াকরণ ও দ্রব্যের রূপান্তরকরণ, নির্মাণকাজ।

 

5. তৃতীয় স্তরের ক্রিয়াকলাপের উদাহরণ দাও।

 

উত্তরঃ ব্যাবসাবাণিজ্য, যোগাযোগ ও পরিবহণ পরিষেবা, পর্যটন, শিক্ষকের শিক্ষাদান, আন্তর্জাতিক বাণিজ্য ইত্যাদি।

 

বিশ্লেষণ বা বর্ণনাভিত্তিক প্রশ্নোত্তর [ মান – 7]

 

1. বিভিন্ন ধরনের অর্থনৈতিক ক্রিয়াকলাপের বর্ণনা দাও।

 

কৃষি | অর্থনৈতিক ভূগোল – Economic Geography | উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion

 

MCQ প্রশ্নোত্তর [ মান – 1]

 

1. ব্লু মাউন্টেন কফি বলা হয় –
(a) রোবাস্টা কফিকে (b) আরবীয় কফিকে (c) লাইবেরীয় কফিকে (d) জামাইকান কফিকে

 

উত্তরঃ (d) জামাইকান কফিকে

 

2. একটি ছোটো জমিতে কর্ষণ করে সেখানে বীজ ছড়িয়ে চারা তৈরি করার পদ্ধতিকে কী বলে?
(a) খারিফ শস্য (b) নার্সারি বেড (c) ইউট্রোফিকেশন (d) শস্যাবর্তন

 

উত্তরঃ (b) নার্সারি বেড

 

3. চিনের কোথায় বাসন্তিক গম চাষ হয় ?
(a) হুনান (b) উত্তর ইউনান (c) হেইলং জিয়াং (d) কোনোটিই নয়

 

উত্তরঃ (c) হেইলং জিয়াং

 

4. ধান চাষের জন্য কোন জলবায়ু আদর্শ?
(a) নাতিশীতোষ (b) ভূমধ্যসাগরীয় (c) নিরক্ষীয় (d) ক্রান্তীয় মৌসুমি জলবায়ু অঞলের

 

উত্তরঃ (d) ক্রান্তীয় মৌসুমি জলবায়ু অঞলের

 

5. কফি কোন জলবায়ু অঞ্চলে ভালো হয় ?
(a) গ্রীষ্মকালীন (b) শীতকালীন (c) বসন্তকালীন (d) বর্ষাকালীন ক্রান্তীয় জলবায়ু অঞ্চলে

 

উত্তরঃ (a) গ্রীষ্মকালীন

 

6. আইসোটিক কথার অর্থ কী?
(a) সমব্যয় রেখা (b) সমপরিবহণ ব্যয় রেখা (c) সমশ্রম ব্যয় রেখা (d) সমদূরত্ব রেখা

 

উত্তরঃ (b) সমপরিবহণ ব্যয় রেখা

 

7. কৃষ্ণ বা রেগুর মৃত্তিকায় চাষ হয় ।
(a) তুলো (b) গম (c) পাট (d) ইক্ষু

 

উত্তরঃ (a) তুলো

 

8. প্রাকৃতিক রাবার উৎপাদন করে মুলত
(a) ভারত (b) মালয়েশিয়া (c) বাংলাদেশ (d) a ও b উভয়ই ঠিক

 

উত্তরঃ (b) মালয়েশিয়া

 

9. সারা বছর বিভিন্ন জাতের ফুলের চাষকে বলে-~
(a) হটিকালচার (b) ফ্লোরিকালচার (c) পোমাকালচার (d) ওলেরিকালচার

 

উত্তরঃ (b) ফ্লোরিকালচার

 

10. সারা বছর বিভিন্ন জাতের ফলের চাষকে বলে–
(a) হটিকালচার (b) ফ্লোরিকালচার (c) পোমাকালচার (d) ওলেরিকালচার

 

উত্তরঃ (c) পোমাকালচার

 

11. জীবনবৃক্ষ নামে পরিচিত
(a) আম গাছ (b) কলা গাছ (c) বট গাছ (d) নারকেল গাছ

 

উত্তরঃ (d) নারকেল গাছ

 

12. বিশ্বের সবথেকে বেশি কফি আমদানিকারক দেশ হলো—
(a) পাকিস্তান (b) মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র (c) ভারত (d) শ্রীলঙ্কা

 

উত্তরঃ (b) মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র

 

13. মোচা কফি বা মোকা কফি হলো –
(a) জ্যামাইকা কফি (b) লাইবেরীয় কফি (c) আরবীয় কফি (d) রোবাস্টা কফি

 

উত্তরঃ (c) আরবীয় কফি

 

14. কল্পতরু বৃক্ষ হলো –
(a) আম (b) জাম (c) নিম (d) নারকেল

 

উত্তরঃ (d) নারকেল

 

15. তুলা গাছ আক্রান্ত হয় –
(a) ধসা রোগে (b) বল উইভিল পোকার দ্বারা (c) শুয়োপোকার দ্বারা(d) গোবরে পোকার আক্রমণে

 

উত্তরঃ (b) বল উইভিল পোকার দ্বারা

 

অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর [ মান – 1 ]
1. ইন্টার কালচার বলতে কী বোঝো?

 

উত্তরঃ যে কৃষিব্যবস্থায় একই জমিতে একই সময়ে বিভিন্ন সারিতে দুই-তিন ধরনের শস্য চাষ করা হয়, তাকে ইন্টারকালচার বলে।

 

2. ভারতে ধান উৎপাদনে কোন রাজ্য প্রথম স্থান অধিকার করেছে?

 

উত্তরঃ উত্তরপ্রদেশ (পশ্চিমবঙ্গ দ্বিতীয়) পাঞ্জাব (হেক্টরপ্রতি উৎপাদনে প্রথম)

 

3. কে শস্য সমন্বয় বিষয়ে একটি গাণিতিক মডেল উপস্থাপন করেন?

 

উত্তরঃ 1954 সালে মার্কিন কৃষি ভূগোলবিদ জে. সি. উইভার।

 

4. মেক্সিকোর ‘গম উন্নয়ন কর্মসূচির’ কর্ণধার কে ছিলেন?

 

উত্তরঃ ড: নরম্যান আর্নেস্ট (বারলগ 1951)।

 

5. বিশ্বের কোন দেশ ধান ও গম উৎপাদনে প্রথম?

 

উত্তরঃ ধান—চিন (ভারত দ্বিতীয়)। গম—চিন (ভারত দ্বিতীয়)।

 

6. মিলেট কী ?

 

উত্তরঃ জোয়ার, বাজরা, রাগি প্রভৃতিকে একত্রে মিলেট বলে।

 

7. জোয়ার ও বাজরা উৎপাদনে ভারতের কোন রাজ্য প্রথম?

 

উত্তরঃ জোয়ার– মহারাষ্ট্র (কর্ণাটক দ্বিতীয়)। বাজরা— রাজস্থান (উত্তর প্রদেশ দ্বিতীয়)।

 

8. হেক্টর প্রতি বাজরা উৎপাদনে ভারতের কোন রাজ্য প্রথম?

 

উত্তরঃ তামিলনাড়ু।

 

9. চা ও কফি উৎপাদনে বিশ্বের কোন দেশ প্রথম?

 

উত্তরঃ চা—চিন ও কফি—ব্রাজিল।

 

10. তুলো ও আখ উৎপাদনে বিশ্বের কোন দেশ প্রথম?

 

উত্তরঃ তুলো—চিন, ও আখ—ব্রাজিল।

 

11. ভারতের প্রাচীনতম খালটি কোথায় লক্ষ করা যায়?

 

উত্তরঃ কাবেরী নদীর গ্র্যান্ড এলিট (তামিলনাড়ু)।?

 

12. ভারতে হেক্টর প্রতি সর্বাধিক ডাল উৎপাদিত (2011) হয় কোন রাজ্যে ?

 

উত্তরঃ উত্তরপ্রদেশ।

 

13. ভারতের কোন রাজ্য ডাল উৎপাদনে প্রথম স্থান অধিকার করে?

 

উত্তরঃ উত্তরপ্রদেশ (2011)।

 

14. ‘সবুজ বিপ্লব’ কথাটি সর্বপ্রথম কে ব্যবহার করেন?

 

উত্তরঃ উইলিয়াম এস. গ্যাড।

 

15. চিনাবাদাম উৎপাদনে পৃথিবীর কোন দেশ প্রথম স্থান অধিকার করে?

 

উত্তরঃভারত (2011)।

 

16. পৃথিবীর সর্বশ্রেষ্ঠ পাট উৎপাদক দেশ কোনটি?

 

উত্তরঃ ভারত (2011)।

 

17. চিনের কোন অংশকে ‘গমের গোলা’ বলা হয় ?

 

উত্তরঃ মধ্যাংশকে।

 

18. দুধ উৎপাদনে ভারতের স্থান পৃথিবীতে কততম?

 

উত্তরঃ প্রথম (2011)।

 

19. National Dairy Development Board কত সালে গঠিত হয়?

 

উত্তরঃ 1965 সালে।

 

20. ভারতের শ্রেষ্ঠ কফি উৎপাদক রাজ্য কোনটি ?

 

উত্তরঃ কর্ণাটক (কোদাগু জেলায় সর্বাধিক উৎপাদিত হয়)।

 

21. সয়াবিন উৎপাদনে (2011) ভারতের কোন রাজ্য প্রথম স্থান অধিকার করে?

 

উত্তরঃ মধ্যপ্রদেশ।

 

22. শ্রীলঙ্কার কোন জেলা নারকেল চাষের জন্য বিখ্যাত?

 

উত্তরঃ পুট্টালাম।

 

23. শ্রীলঙ্কার কোথায় সর্বপ্রথম চা চাষ হয়?

 

উত্তরঃ ক্যান্ডিতে।

 

24. তুলো চাষের পক্ষে কোন মৃত্তিকা আদর্শ?

 

উত্তরঃ চারনোজেম মৃত্তিকা।

 

25. পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ আখ উৎপাদক দেশ কোনটি?

 

উত্তরঃ ব্রাজিল।

 

26. ভারতের কোন রাজ্য ধান উৎপাদনে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করে?

 

উত্তরঃ পশ্চিমবঙ্গ (2011)।

 

27. ব্রাজিলের কফি বাগানগুলিকে কী বলা হয়?

 

উত্তরঃ ফাজেন্ডা।

 

28. চিনের কোথায় বাসন্তিক গম উপাদিত হয় ?

 

উত্তরঃ হেইলংজিয়াং।

 

29. Coconut Triangle কোন দেশে লক্ষ করা যায়?

 

উত্তরঃ শ্রীলঙ্কায়।

 

30. শ্রীলঙ্কার কোন ফসলটি লিভিং ফার্মেসি নামে পরিচিত?

 

উত্তরঃ ডাব।

 

31. পাটের বিকল্প দুটি কৃত্রিম তন্তুর নাম উল্লেখ করো।

 

উত্তরঃ রেয়ন ও নাইলন।

 

32. ভারতে কৃষির উন্নতিকল্পে যে সংস্থা কাজ করছে তার নাম কী ?

 

উত্তরঃ ICAR (Indian Council of Agriculture Research).

 

33. ভারতের দুটি চিনাবাদাম উৎপাদক রাজ্যের নাম লেখো।

 

উত্তরঃ গুজরাত (প্রথম) ও তামিলনাড়ু।

 

34. ভারতে সবুজ বিপ্লবের প্রভাব কোন শস্যের ওপর সর্বাধিক?

 

উত্তরঃ গম।

 

35. ভারতের দুটি রাগি উৎপাদক রাজ্যের নাম লেখো?

 

উত্তরঃ কর্ণাটক ও তামিলনাড়ু।

 

36. চিনের কোথায় শীতকালে সর্বাধিক পরিমাণে গম উৎপাদিত হয়?

 

উত্তরঃ শ্যানডং প্রদেশে।

 

37. শস্য সমন্বয়ের ধারণা সর্বপ্রথম কে দেন?

 

উত্তরঃ জে. সি. উইভার (1954)।

 

38. কোন জলবায়ু অঞ্চলে ধান চাষ সর্বাধিক হয় ?

 

উত্তরঃ মৌসুমি এবং চিনদেশীয় জলবায়ু অলে।

 

39. শ্রীলঙ্কার মোট নারকেল (জীবনবৃক্ষ) উৎপাদনের 80% কোথায় উৎপাদিত হয়ে থাকে?

 

উত্তরঃ উত্তর পশ্চিমাঞ্চল-এ।

 

40. চিনের বৃহত্তম ধান উৎপাদক অঞ্চলটির নাম লেখো।

 

উত্তরঃ ইয়াংসিকিয়াং নদীর মধ্য ও নিম্ন অববাহিকা অঞ্চল চিনের বৃহত্তম ধান উৎপাদক অঞ্চল।

 

41. দ্বিতীয় বৃহত্তম চিনাবাদাম উৎপাদনকারী দেশ কোনটি?

 

উত্তরঃ ভারত

 

42. ট্রাক ফার্মিং কথাটি কোন দেশে বেশি ব্যবহৃত হয়?

 

উত্তরঃ আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রে।

 

43. বাংলাদেশের পাটবলয় বলতে কী বোঝো?

 

উত্তরঃ বাংলাদেশের ঢাকা-কুমিল্লা-ময়মনসিংহকে পাটবলয় বলা হয়।

 

44. চিনাবাদাম উৎপাদনে দ্বিতীয় স্থানাধিকারী দেশ কোনটি ?

 

উত্তরঃ ভারত চিনাবাদাম উৎপাদনে দ্বিতীয়।

 

45. ভারতের কোথায় চিনাবাদাম অধিক উৎপাদিত হয় ?

 

উত্তরঃ ভারতের দক্ষিণ ও পশ্চিম অংশে।

 

46. দক্ষিণ ভারতে কী ধরনের কফি প্রচুর পরিমাণে জন্মায়?

 

উত্তরঃ রোবাস্টা ও আরবীয় কফি।

 

47. কোন ধরনের তুলা সাগরদ্বীপীয় তুলা নামে পরিচিত?

 

উত্তরঃ দীর্ঘ আঁশযুক্ত তুলা।

 

48. শস্য কেন্দ্রীভবন কী ?

 

উত্তরঃ কোনো নির্দিষ্ট এলাকায় নির্দিষ্ট সময়ে যেকোনো শস্যের ঘনত্বকে বলা হয় শস্য কেন্দ্রীভবন।

 

49. ইউট্রোফিকেশন কাকে বলে?

 

উত্তরঃ বৃষ্টির জলের দ্বারা বাহিত বিভিন্ন পদার্থগুলো জলশয়ের তলদেশে জমা বেঁধে ভরাট হয়ে পড়াকে বলা হয় ইউট্রোফিকেশন।

 

50. বাণিজ্যিক কৃষি কাকে বলে?

 

উত্তরঃ আধুনিক পরিকাঠামোর সাহায্যে বাণিজ্যের উদ্দেশ্যে যে কৃষিব্যবস্থা গড়ে তোলা হয়, তাকে বলা হয় বাণিজ্যিক কৃষি।

 

51. সবুজ বিপ্লব কাকে বলে ?

 

উত্তরঃ 1960 -এর দশকে কৃষিক্ষেত্রে আধুনিক যন্ত্রপাতি প্রয়োগ উসফলনশীল বীজের ব্যবহার, রাসায়নিক সার ও জলসেচের ব্যবহারের মাধ্যমে যে অভাবনীয় অগ্রগতি দেখা যায়, তাকেই মূলত সবুজ বিপ্লব বলে। (?)

 

52. শ্বেত বিপ্লব কাকে বলে ?

 

উত্তরঃ 1970-এর দশকে National Dairy Development Corporation)-এর সাহায্যে ভারতে দুগ্ধ উৎপাদনের যে অভাবনীয় অগ্রগতি দেখা যায়, তাকেই বলা হয় শ্বেত বিপ্লব। এই বিপ্লবের জনক ড: ভার্গিস কুরিয়েন।

 

53. বাজারকেন্দ্রিক উদ্যান কৃষি কী ?

 

উত্তরঃ বড়ো বড়ো শহর বা নগরের দৈনন্দিন চাহিদা পূরণের জন্য শহর বা নগরের উপকণ্ঠে শাকসবজি, ফলমূল প্রভৃতি চাষাবাদ করা হয়, একে বলা হয় বাজারকেন্দ্রিক উদ্যান কৃষি। একে ট্রাক ফার্মিংও বলা হয়।

 

54. মালচিং কী?

 

উত্তরঃ সাধারণত জমির আদ্রতা ও বাষ্পীভবন রোধের জন্য বিভিন্ন উপাদান (ঘাস, ছাই, পাতা, ধূলিকণা) দ্বারা যে আস্তরণ দেওয়া হয়, তাকেই মালচিং বলে।

 

55. পৃথিবীর কোথায় আর্দ্র কৃষি লক্ষ করা যায় ?

 

উত্তরঃ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার মৌসুমি জলবায়ুযুক্ত অঞ্চলে।

 

56. জীবিকাসত্তাভিত্তিক কৃষি কোথায় লক্ষ করা যায়?

 

উত্তরঃ ভারত, চিন, বাংলাদেশ, থাইল্যান্ড, ভিয়েতনাম, মিশর প্রভৃতি দেশে।

 

বিশ্লেষণ বা বর্ণনাভিত্তিক প্রশ্নোত্তর [ মান – 7 ]

 

1. ভারতীয় কৃষিতে সবুজ বিপ্লবের প্রভাব আলোচনা করো। নিবিড় জীবিকাসত্তাভিত্তিক কৃষির ক্ষেত্রে মাথাপিছু উৎপাদন কম কেন? শস্য সমন্বয়ের সংজ্ঞা দাও।

 

2. ব্যাপক কৃষি প্রধানত রপ্তানিভিত্তিক হওয়ার কারণ কী ? উষ্ণ ও আদ্র কৃষির মধ্যে পার্থক্য লেখো। আধুনিক কৃষিতে যান্ত্রিকীকরণের দু’টি করে সুফল ও কুফল লেখো।

 

3. শস্যাবর্তনের দুটি বৈশিষ্ট্য লেখো। ভারতে ডাল চাষের সমস্যা কী কী? শ্বেত বিপ্লবের প্রভাব সংক্ষেপে লেখো। ভারতের নীল বিপ্লব সম্পর্কে সংক্ষেপে লেখো।

 

4. জীবিকাসত্তাভিত্তিক ও বাণিজ্যিক কৃষি/ নিবিড় ও ব্যাপক কৃষি/ স্থানান্তর ও স্থায়ী কৃষির মধ্যে পার্থক্য লেখো।

 

5. বাণিজ্যিক কৃষি ও বাজারভিত্তিক উদ্যান কৃষির বৈশিষ্ট্য লেখো। বাজারভিত্তিক উদ্যান কৃষির গুরুত্ব বৃদ্ধি পাচ্ছে কেন?

 

6. ধানচাষকে জীবিকাসত্তাভিত্তিক কৃষি বলা হয় কেন? ধান ও গম উৎপাদনের অনুকূল পরিবেশের মধ্যে তুলনামূলক আলোচনা করো।

 

7. ভূমধ্যসাগরীয় কৃষি ব্যবস্থার বৈশিষ্ট্য লেখো। শ্রীলঙ্কা নারকেল উৎপাদনে বিখ্যাত কেন? মিশর কাপাস চাষে উন্নত কেন ?

 

8. ভারতের চা উৎপাদক অলগলির বর্ণনা দাও। ভারতে এই শিল্পের সমস্যা কী?

শিল্প | অর্থনৈতিক ভূগোল – Economic Geography | উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion

 

MCQ প্রশ্নোত্তর [ মান – 1]

 

1. কাগজ ও কাগজ বোর্ড উৎপাদনে প্রথম স্থান অধিকার করে–
(a) জাপান (b) চিন (c) কানাডা (d) পাকিস্তান।

 

উত্তরঃ (b) চিন

 

2. রাশিয়ার ম্যাঞ্চেস্টার বলা হয়
(a) মস্কোকে (b) চিলিয়াভিনিস্ককে (c) ইভানোভাকে (d) কোনোটিই নয়।

 

উত্তরঃ (c) ইভানোভাকে

 

3. ভারতের বৃহত্তম পেট্রো-রাসায়নিক শিল্পকেন্দ্রটি অবস্থিত।
(a) জামনগর (b) হলদিয়া (c) বগাইগাও (d) কোনোটিই নয়

 

উত্তরঃ (a) জামনগর

 

4. উদীয়মান শিল্প বা Sunrise Industry বলা হয়
(a) পেট্রো-রাসায়নিক শিল্পকে (b) কাগজ শিল্পকে (c) চা শিল্পকে (d) লৌহ-ইস্পাত শিল্পকে

 

উত্তরঃ (a) পেট্রো-রাসায়নিক শিল্পকে

 

5. শিল্প স্থানিকতা তত্ত্বের প্রবক্তা হলেন—
(a) ওয়েবার (b) জিমারম্যান (c) মরিস (d) হ্যান্টিংটন

 

উত্তরঃ (a) ওয়েবার

 

6. খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ শিল্পে বিশ্বে প্রথম স্থান অধিকার করে—
(a) মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র (b) জাপান (c) ভারত (d) চিন

 

উত্তরঃ (a) মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র

 

7. নিউজপ্রিন্ট উৎপাদনে প্রথম স্থান অধিকার করে-
(a) কানাডা (b) নিউইয়র্ক (c) জাপান (d) ভারত

 

উত্তরঃ (a) কানাডা

 

8. খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ শিল্পে ভারত উৎপাদন ও রপ্তানিতে বিশ্বে–
(a) দ্বিতীয় স্থান (b) পঞ্চম স্থান (c) প্রথম স্থান (d) সপ্তম স্থান

 

উত্তরঃ (b) পঞ্চম স্থান

 

9. কাগজ শিল্প সর্বাধিক বিকাশ লাভ করেছে—
(a) নিরক্ষীয় অরণ্যে (b) সরলবর্গীয় অরণ্যে (c) মৌসুমি অরণ্যে (d) কোনোটিই নয়

 

উত্তরঃ (b) সরলবর্গীয় অরণ্যে

 

10. ভারতের ম্যাঞ্চেস্টার বলা হয়—
(a) মুম্বাই (b) কোয়েম্বাটুর (c) দুর্গাপুর (d) আমেদাবাদকে

 

উত্তরঃ (d) আমেদাবাদকে

 

10. দক্ষিণ ভারতের ম্যাঞ্চেস্টার বলা হয়-
(a) দুর্গাপুর (b) আমেদাবাদ (c) কোয়েম্বাটুর (d) মুম্বাইকে

 

উত্তরঃ (c) কোয়েম্বাটুর

 

11. চিনের ম্যাঞ্চেস্টার বলা হয়-
(a) সাংহাই (b) ওসাকা (c) ইভানোভা (d) হোয়াংহোকে

 

উত্তরঃ (a) সাংহাই

 

12. ভারতের রূঢ় বলা হয়-
(a) মুম্বাই (b) আমেদাবাদ (c) দুর্গাপুর (d) কলকাতাকে

 

উত্তরঃ (c) দুর্গাপুর

 

13. পৃথিবীর বৃহত্তম মোটরগাড়ি নির্মাণ কেন্দ্রটি হলো—
(a) সাংহাই (b) নিউইয়র্ক (c) ডেট্রয়েট (d) কোনোটিই নয়

 

উত্তরঃ (c) ডেট্রয়েট

 

অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর [ মান – 1]

 

1.মজুরি সূচক কী?

 

উত্তরঃ মজুরি সূচক হলো কোনো শিল্পে একক প্রতি উৎপাদনের জন্য গড় মজুরি। কোনো শিল্পের মজুরি সূচক যত বাড়বে শিল্পটি ন্যূনতম পরিবহণ ব্যয় অবস্থান থেকে তত। ন্যূনতম মজুরি অবস্থানের দিকে সরে যাবে।

 

2. শিল্পাঞল কী ?

 

উত্তরঃ কোনো ভৌগোলিক এলাকায় একদেশিকতার কারণে গড়ে ওঠা সহযোগী এবং প্রতিদ্বন্দ্বী শিল্পগুলির একত্রিত সমাবেশকে বলা হয় শিল্পাঞ্চল।

 

3. শ্রমগুণক কী ?

 

উত্তরঃ কোনো উৎপাদিত সামগ্রীর একক ওজন প্রতি মজুরি যে পরিমাণ কাঁচামাল এবং উৎপাদিত দ্রব্য কোনো শিল্পে পরিবহণ করা দরকার হয় তার সম্মিলিত ওজনের অনুপাতকে শ্রমগুণক বলে।

 

4. ওয়েবারের শিল্প স্থাপন তত্ত্ব বলতে কী বোঝো?

 

উত্তরঃ শিল্পের জন্য প্রয়োজনীয় কাঁচামাল ও উৎপাদিত শিল্পজাত দ্রব্যের আপেক্ষিক পরিবহণ ব্যয়, শ্রমিক ব্যয় এবং এক স্থানে অবস্থিত শিল্পের পিণ্ডভবন এই তিন-এর উপর নির্ভর করে মোট পরিবহণ ব্যয় যেখানে সর্বনিম্ন সেখানে শিল্প স্থাপনের নীতিকে ওয়েবারের মতানুসারে শিল্প অবস্থান তত্ত্ব বলা হয়।

 

5. আগস্ট লশ-এর তত্ত্বের মূলকথা কী ?

 

উত্তরঃ যেখানে শিল্পজাত সামগ্রীর চাহিদা এবং লাভ বেশি অর্থাৎ শিল্পটি বাজারের কেন্দ্রস্থলে স্থাপিত হবে।

 

6. কাগজ শিল্পের রাসায়নিক কাচামালগুলি কী?

 

উত্তরঃ কস্টিক সোডা, ব্লিচিং পাউডার, সোডা অ্যাশ, চুন, গন্ধক ইত্যাদি।

 

7. বাজার-এলাকা তত্ত্ব বা সর্বাধিক মুনাফা তত্ত্ব—এই তত্ত্বের প্রবক্তা কে?

 

উত্তরঃ আগস্ট লশ।

 

8. পেট্রোকেমিক্যাল শিল্পের কাঁচামালগুলি কী?

 

উত্তরঃ ন্যাপথা, মিথেন, ইথিলিন ইত্যাদি।

 

9. পেট্রো-রাসায়নিক শিল্পজাত দ্রব্যগুলি কী?

 

উত্তরঃকৃত্রিম তন্তু, পলিমার, ইলাসটোমার ইত্যাদি।

 

10. USA-এর কয়েকটি মোটরগাড়ি নির্মাণকেন্দ্রের নাম লেখো।

 

উত্তরঃ ডেট্রয়েট, বস্টল, মিচিগান চেস্টার, সেন্ট লুইস ইত্যাদি।

 

11. পৃথিবীর বৃহত্তম নিউজপ্রিন্ট কারখানার নাম কী?

 

উত্তরঃ আবিটিবি বোওয়াটার ইনক।

 

12. ভারতের ইস্পাত নগরী কাকে বলে?

 

উত্তরঃ জামশেদপুরকে।

 

13. USA-এর বৃহত্তম মোটরগাড়ি সংস্থার নাম কী ?

 

উত্তরঃ জেনারেল মোটরস কর্পোরশেন।

 

14. জিওটেক ধরনের পাট প্রধানত কোন কাজে ব্যবহার করা হয়?

 

উত্তরঃ ভূমিক্ষয় নিয়ন্ত্রণে।

 

15. কে সর্বপ্রথম আইসোডাপেনের ধারণা দিয়েছেন?

 

উত্তরঃ আলফ্রেড ওয়েবার।

 

16. সমপরিহণ ব্যয় রেখাকে কী বলে?

 

উত্তরঃ আইসোটিম।

 

17. ওজন হ্রাসমান কাচামালের পণ্যসূচকের মান কত?

 

উত্তরঃ 1-এর বেশি।

 

18. অনুসারী শিল্প কাকে বলে?

 

উত্তরঃ যেসব ক্ষুদ্রায়তন শিল্প বৃহদায়তন শিল্পকে কেন্দ্র করে গড়ে ওঠে, তাদের অনুসারী শিল্প বলে।

 

19. ভারতের প্রথম মোটরগাড়ি নির্মাণ কারখানা কোথায় অবস্থিত ?

 

উত্তরঃ মুম্বাই-এর কুরলায়।

 

20. ভারতের প্রথম কাগজকলটি কোথায় অবস্থিত?

 

উত্তরঃ শ্রীরামপুরে।

 

21. রাসায়নিক রাজধানী’ কোন শহরকে বলা হয় ?

 

উত্তরঃ উইলসিংটন শহরকে।

 

22. শিল্পের অবস্থানগত তত্ত্ব বা ন্যূনতম ব্যয় তত্ত্ব-এর ধারণাটি কে দেন?

 

উত্তরঃ আলফ্রেড ওয়েবার।

 

23. শস্য সমন্বয়’ ধারণাটি কে দেন?

 

উত্তরঃ উইভার।

 

24. ছত্তিশগড়ের একটি কয়লা উৎপাদক কেন্দ্রের নাম লেখো।

 

উত্তরঃ কোরবা।

 

25. বিশ্বের মোটরগাড়ি নির্মাণের শহর’ কাকে বলা হয়?

 

উত্তরঃ আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রের ডেট্রয়েট শহরকে।

 

26. ভারতের দুটি পেট্রো-রাসায়নিক শিল্পকেন্দ্রের নাম লেখো।

 

উত্তরঃ ভদোদরা ও জামনগর (ভারতের বৃহত্তম)।

 

27. ভারতের কোন শিল্প একক বৃহত্তম শিল্প?

 

উত্তরঃ কার্পাসবয়ন শিল্প (বিশুদ্ধ কাঁচামাল ভিত্তিক শিল্প)।

 

28. শিল্প স্থাপনের ক্ষেত্রে চাহিদা শঙ্কুর ধারণা কে দিয়েছেন?

 

উত্তরঃ আগস্ট লশ।

 

29. ভারতের কোন রাজ্য কাগজ উৎপাদনে প্রথম স্থান অধিকার করে?

 

উত্তরঃ মহারাষ্ট্র।

 

30. কানাডার কোথায় কাগজ শিল্পকেন্দ্র স্থাপিত হয়েছে?

 

উত্তরঃ অন্টারিও কুইবেক অঞ্চলে।

 

31. লৌহ ইস্পাত শিল্পের কাঁচামালগুলি কী?

 

উত্তরঃ আকরিক লোহা, স্পঞ্জ লোহা, কোক কয়লা, ডলোমাইট ইত্যাদি।

 

32. ভারতের একমাত্র উপকূলীয় ইস্পাত শিল্পকেন্দ্রের নাম লেখো।

 

উত্তরঃ বিশাখাপত্তনম।

 

33. ভারতের ছত্তিশগড়ের একটি লৌহখনির নাম লেখো।

 

উত্তরঃ বায়লাডিলা।

 

34. SAIL-এর পুরো নাম কী ?

 

উত্তরঃ Steel Authority of India Limited (সদর দপ্তর কলকাতা)।

 

35. মালয়েশিয়ায় রবার শিল্পের জন্য বিখ্যাত কোন প্রদেশটি ?

 

উত্তরঃ কেডা প্রদেশ।

 

36. কানাডার বৃহত্তম খাদ্যপ্রক্রিয়াকরণ শিল্পের নাম কী?

 

উত্তরঃ মাংসজাত দ্রব্যের উৎপাদন।

 

37. যুক্তরাষ্ট্রের ডেয়ারি রাজ্য কাকে বলে হয়?

 

উত্তরঃ উইসকনসিন।

 

38. ইউরোপের কোন রাজ্যটি কাগজ উৎপাদনে প্রথম?

 

উত্তরঃ জার্মানি।

 

39. বিশ্বের বৃহত্তম মোটরগাড়ি নির্মাণ কারখানা কোথায় অবস্থিত?

 

উত্তরঃ ডেট্রয়েট।

 

40. বিশ্বের কোন দেশ রেডিমেট বস্ত্র উৎপাদনে প্রথম?।

 

উত্তরঃ চিন।

 

41. কার্পাস বস্ত্রবয়ন শিল্প গড়ে তোলার উপযুক্ত স্থান কোনটি?

 

উত্তরঃ কার্পাস উৎপাদক অঞলের কাছে।

 

42. হলদিয়া শিল্পকেন্দ্রটি যে দু’টি নদীর সংযোগস্থলে গড়ে উঠেছে তার নাম কী ?

 

উত্তরঃ হুগলি নদী ও হলদি নদী।

 

43. ভারতের খাদ্যপ্রক্রিয়াকরণ শিল্পে অগ্রণী একটি রাজ্যের নাম করো।

 

উত্তরঃ পশ্চিমবঙ্গ।

 

44. ছত্তিশগড়ের প্রধান লৌহ-ইস্পাত শিল্পকেন্দ্রের নাম কী ?

 

উত্তরঃ ভিলাই।

 

45. কোন দেশের, কোন শহরকে ম্যাঞ্চেস্টার বলা হয়?

 

উত্তরঃ দক্ষিণ ভারতের ম্যাঞ্চেস্টার—কোয়েম্বাটোর, ভারতের—আমেদাবাদ চিনের সাংহাই, রাশিয়ার—ইভানোভাসা, জাপানের—ওসাকা উত্তর ভারতের–কানপুর।

 

46. দক্ষিণ ভারতের দু’টি লৌহ-ইস্পাত শিল্পকেন্দ্রের নাম করো।

 

উত্তরঃ বিশ্বেশ্বরা আয়রন অ্যান্ড স্টিল লিমিটেড (ভদ্রাবতী) এবং বিশাখাপত্তনম স্টিল প্রােজেক্ট।

 

47. ভিলাই-এর লৌহ-ইস্পাত শিল্পকেন্দ্রটি কোন অদ্ভুল থেকে আকরিক লৌহ সংগ্রহ করে ?

 

উত্তরঃ দল্লি-রাজহারা অঞ্চল থেকে সংগ্রহ করে।

 

48. বেঙ্গালুরু কী ধরনের শিল্পের জন্য বিখ্যাত?

 

উত্তরঃ ইলেকট্রনিক শিল্পের জন্য।

 

49. ওজন হ্রাসকারী কঁচামাল কাকে বলে?

 

উত্তরঃ যে-সমস্ত কাচামাল শিল্পজাত দ্রব্যে পরিণত হওয়ার পর ওজনের হ্রাস পায়, তাদের অবিশুদ্ধ বা ওজন হ্রাসকারী কাচামাল বলে। যেমন—আখ, আকরিক লোহা প্রভৃতি।

 

50. বিশুদ্ধ কাচামাল কাকে বলে?

 

উত্তরঃ যে-সমস্ত কাচামাল শিল্পজাত দ্রব্যে পরিণত হওয়ার পর ওজনের হ্রাস-বৃদ্ধি ঘটে , তাদের বিশুদ্ধ কাচামাল বলে। যেমন—তুলো, পাট।

 

51. আইসোটিম কাকে বলে?

 

উত্তরঃ ওয়েবারের মতে, কাচামালের পরিবহণ ব্যয় ও উৎপাদিত দ্রব্যের পরিবহণ ব্যয়কে পৃথকভাবে যে রেখা দ্বারা প্রকাশ করা হয়, তাকে আইসোটিম বলে। এর অর্থ সমপরিবহণ ব্যয় রেখা।

 

52. আইসোডোপান কাকে বলে?

 

উত্তরঃ কাঁচামাল ও উৎপাদিত দ্রব্যের মিলিত মোট পরিবহণ ব্যয়যুক্ত স্থানগুলিকে যে রেখা দ্বারা যুক্ত করা হয়, ওয়েবারের মতে তাকে আইসোডোপান বলে।

 

53. কাগজ শিল্পের তন্তুজাতীয় কাঁচামালগুলি কী?

 

উত্তরঃ পাট, তুলো ইত্যাদি।

 

54. ক্রিটিক্যাল আইসোডোপান কাকে বলে?

 

উত্তরঃ যে রেখা বরাবর সুলভ শ্রমিকের মজুরি বাবদ ব্যয় লাঘবের পরিমাণ, কঁাচামাল ও। উৎপাদিত দ্রব্যের মোট পরিবহণ ব্যয় সমান তাকে ক্রিটিক্যাল আইসোডোপান বলে।

 

55. শিল্পের অবস্থানগত ত্রিভুজ কাকে বলে?

 

উত্তরঃ কোনো একটি শিল্পে দু’টি কাঁচামাল ও একটি বাজার থাকলে এই তিনটি। উপাদানকে যুক্ত করা হলে একটি ত্রিভুজ গঠিত হয়, এইরূপ অবস্থানকে বলা হয় অবস্থানগত ত্রিভুজ।

 

বিশ্লেষণ বা বর্ণনাভিত্তিক প্রশ্নোত্তর [ মান – 7]

 

1. পশ্চিম ভারতে পেট্রো-রাসায়নিক শিল্প গড়ে ওঠার কারণ কী? বর্তমানে আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রে কার্পাস শিল্প দক্ষিণাঞ্চলে স্থানান্তরের কারণ কী?

 

2. মুম্বাই-আমেদাবাদে বা পশ্চিম ভারতে কার্পাসবয়ন শিল্পের একদেশীভবনের কারণ কী? কানাডা কাগজ শিল্পে উন্নত কেন? মালয়েশিয়া রবার শিল্পে উন্নত কেন?

 

3. খাদ্যপ্রক্রিয়াকরণ শিল্প কী? এই শিল্প গড়ে ওঠার কারণগুলি লেখো।

 

4. পূর্ব ও মধ্যভারতে লৌহ-ইস্পাত শিল্প গড়ে ওঠার কারণ কী? ভারতে রেডিমেড পোশাক শিল্প গড়ে ওঠার কারণগুলি সংক্ষেপে লেখো।

 

5. কাপাসবয়ন শিল্পে ভারত ও USA-এর নিউ ইংল্যান্ড অলের উন্নতির কারণ কী ? নিউ ইংল্যান্ড অঞলের কার্পাসবয়ন শিল্পে অবনতির কারণ কী? ডেট্রয়েটে মোটরগাড়ি নির্মাণকেন্দ্র কেন বিকাশ লাভ করেছে?

 

6. দুর্গাপুরকে ভারতের রূঢ় বলা হয় কেন? ভারতে লৌহ-ইস্পাত শিল্পের সমস্যাগুলি লেখো। পেট্রো-রসায়ন শিল্পকে উদীয়মান শিল্প বলা হয় কেন?

তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম স্তরের অর্থনৈতিক ক্রিয়াকলাপ | অর্থনৈতিক ভূগোল – Economic Geography | উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion

 

MCQ প্রশ্নোত্তর [ মান – 1]

 

1. বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থার সদর দপ্তর অবস্থিত
(a) জেনিভাতে (b) ভিয়েনাতে (c) ভারতে (d) নিউইয়র্কে

 

উত্তরঃ (a) জেনিভাতে

 

2. সার্ক গঠিত হয়–
(a) 1995 সালে (b) 1986 সালে (c) 1985 সালে (d) 1991 সালে

 

উত্তরঃ (c) 1985 সালে

 

3. পৃথিবীর দীর্ঘতম রেলপথটি হলো—
(a) নর্দান প্যাসিফিক (b) ট্রান্স সাইবেরিয়ান (c) ট্রান্স কাস্পিয়ান (d) ট্রান্স ককেশাস

 

উত্তরঃ (b) ট্রান্স সাইবেরিয়ান

 

4. ভারতের দীর্ঘতম সড়কপথ হলো—
(a) গ্র্যান্ড ট্রাঙ্ক রোড (b) বারাণসী-কন্যাকুমারিকা সড়কপথ (c) কলকতা-মুম্বাই সড়কপথ (d) কোনোটিই নয়

 

উত্তরঃ (a) গ্র্যান্ড ট্রাঙ্ক রোড

 

5. ভারতের দীর্ঘতম রেলপথটি হলো—
(a) পূর্ব রেলপথ (b) পশ্চিম রেলপথ (c) দক্ষিণ-পূর্ব রেলপথ (d) উত্তর রেলপথ

 

উত্তরঃ (d) উত্তর রেলপথ

 

6. পৃথিবীতে প্রথম রেলপথ চালু হয়—
(a) 1825 সালে (b) 1915 সালে (c) 1953 সালে (d) 1990 সালে

 

উত্তরঃ (a) 1825 সালে

 

7. ভারতের মধ্যে টেলিযোগাযোগ পরিষেবা দেওয়ার জন্য যে সংস্থাটি কাজ করে –
(a) VSNL (b) BSNL(C) TRAI(d) INSAT.

 

উত্তরঃ (b) BSNL

 

8. লঘুপদ উদ্যোগ (Foot Loose) যে অর্থনৈতিক ক্রিয়াকলাপ
(a) প্রথম (b) দ্বিতীয় (c) চতুর্থ (d) তৃতীয়

 

উত্তরঃ (c) চতুর্থ

 

9. 24×7 উদ্যোগ বলা হয় –
(a) পঞম (b) দ্বিতীয় (c) তৃতীয় (d) চতুর্থ শ্রেণির অর্থনৈতিক কাজকে

 

উত্তরঃ (d) চতুর্থ শ্রেণির অর্থনৈতিক কাজকে

 

অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর [ মান – 1 ]

 

1. ভারতের দীর্ঘতম উপকূলরেখা কোথায় লক্ষ করা যায়?

 

উত্তরঃ গুজরাটে।

 

2. বিশ্ব বাণিজ্য সংস্থা কত সালে গঠিত হয়?

 

উত্তরঃ 1995 সালের 1 জানুয়ারি (বিশ্বের সর্ববৃহৎ বাণিজ্য সংস্থা, সদর দপ্তর সুইজারল্যান্ডের জেনেভাতে)।

 

3. ভারতের বৃহত্তম সরকারি মহাকাশ গবেষণাকেন্দ্র কোনটি ?

 

উত্তরঃ ISRO (Indian Space Research Organisation)।

 

4. ভারতের প্রথম উৎক্ষিপ্ত কৃত্রিম উপগ্রহের নাম কী ?

 

উত্তরঃ আর্যভট্ট।

 

5. ভারতের দীর্ঘতম সড়কপথ কোনটি?

 

উত্তরঃ 44 নং জাতীয় সড়ক (শ্রীনগর-কন্যাকুমারী)।

 

6. পৃথিবীর দীর্ঘতম খালপথ কোনটি?

 

উত্তরঃ পানামা।

 

7.আটলান্টিক ও প্রশান্ত মহাসাগরকে যুক্ত করেছে কোন খাল?

 

উত্তরঃ পানামা খাল। (পৃথিবীর দীর্ঘতম খালপথ)

 

8. ভূমধ্যসাগর ও লোহিত সাগরকে যুক্ত করেছে কোন খাল ?

 

উত্তরঃ সুয়েজ খাল।

 

9. SAARC-এর সদর দপ্তর কোথায় অবস্থিত?

 

উত্তরঃ নেপালের কাঠমাণ্ডুতে (মোট ৪টি দেশ যুক্ত আছে)।

 

10. OPEC কত সালে গঠিত হয়?

 

উত্তরঃ 1960 সালের 14 সেপ্টেম্বর (সদর দপ্তর ভিয়েনাতে অবস্থিত)।

 

11. পৃথিবীর বৃহত্তম ও কর্মব্যস্ত বিমানবন্দর কোনটি?

 

উত্তরঃ নিউইয়র্ক। I?

 

12. ভারতে প্রথম মেট্রোরেল কোথায় চালু হয়?

 

উত্তরঃ কলকাতায় (১৯৮৪)।

 

13. পৃথিবীর ব্যস্ততম আন্তর্জাতিক জলপথের নাম কী ?

 

উত্তরঃ উত্তর আটলান্টিক জলপথ।

 

বিশ্লেষণ বা বর্ণনাভিত্তিক প্রশ্নোত্তর [ মান – 7]

 

1. সোনালি চতুর্ভুজ কাকে বলে? কোনো দেশের অর্থনীতির ওপর পর্যটন শিল্পের প্রভাব আলোচনা করো। আধুনিক যোগাযোগ ব্যবস্থার মাধ্যমগুলি কী?

 

2. ডিজিটাল ডিভাইড কী? কোয়ার্টানারি ও কুইনারি ক্রিয়াকলাপের মধ্যে পার্থক্য লেখো।

জনসংখ্যা | অর্থনৈতিক ভূগোল – Economic Geography | উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion

 

MCQ প্রশ্নোত্তর [ মান – 1 ]

 

1. ভারতের সর্বনিম্ন জনঘনত্বপূর্ণ রাজ্য হলো—
(a) সিকিম (b) গোয়া (c) পাঞ্জাব (d) অরুণাচল প্রদেশ

 

উত্তরঃ (d) অরুণাচল প্রদেশ

 

2. ভারতের সর্বাধিক সাক্ষরতার হার যুক্তরাজ্য হলো—
(a) কেরালা 93.91% (b) পশ্চিমবঙ্গ (c) বিহার (d) হরিয়ানা

 

উত্তরঃ (a) কেরালা 93.91%

 

3. ভারতের সর্বনিম্ন সাক্ষরতার হার যুক্ত রাজ্য হলো—
(a) পাঞ্জাব (b) বিহার (63.8%) (c) কেরালা (d) উত্তরপ্রদেশ

 

উত্তরঃ (b) বিহার (63.8%)

 

4. পৃথিবীর সর্বাধিক জনবহুল দেশ হলো—
(a) ভারত (b) জাপান (c) চিন (d) জার্মান

 

উত্তরঃ (c) চিন

 

5. কোনো রাষ্ট্রের জন্মহার ও মৃত্যুহার সমান হলে জনসংখ্যা—
(a) ধীরে বৃদ্ধি (b) স্থিতিশীল থাকে (c) দ্রুত হ্রাস পায় (d) দ্রুত বৃদ্ধি পায়

 

উত্তরঃ (b) স্থিতিশীল থাকে

 

6. উন্নয়নশীল দেশগুলির জনসংখ্যা পিরামিডের আকৃতি
(a) দণ্ডাকার (b) তীক্ষ্ণ শীর্ষদেশযুক্ত সমবাহু ত্রিভুজের মতো (c) ঘণ্টা আকৃতি (d) ন্যাশপাতির মতো

 

উত্তরঃ (b) তীক্ষ্ণ শীর্ষদেশযুক্ত সমবাহু ত্রিভুজের মতো

 

7. ভারতের কোন রাজ্যে পুরুষের চেয়ে নারীর সংখ্যা বেশি?
(a) বিহার (b) কেরালা (c) ত্রিপুরা (d) মধ্যপ্রদেশে

 

উত্তরঃ (d) মধ্যপ্রদেশে

 

8. উন্নত দেশের জনসংখ্যার পিরামিডের –
(a) ভূমি সংকীর্ণ ও মধ্যাংশে স্ফীত (b) ভূমি প্রসারিত ও শীর্ষ সংকীর্ণ (c) ফানেলের মতো (d) মোচাকৃতি

 

উত্তরঃ (a) ভূমি সংকীর্ণ ও মধ্যাংশে স্ফীত

 

9. পরিব্রাজন-সংক্রান্ত সূত্রগুলি সর্বপ্রথম দিয়েছেন –
(a) ম্যালথাস (b) র্যাভেনস্টাইন (c) জিমারম্যান (d) নরিস

 

উত্তরঃ (b) র্যাভেনস্টাইন

 

10. ‘করবেশন’ কথাটি প্রথম ব্যবহার করেছেন –
(a) লুই সামফোর্ড (b) জাঁ গটম্যান (c) ম্যালথাস (d) প্যাট্রিক গেডেস

 

উত্তরঃ (d) প্যাট্রিক গেডেস

 

11. যে রাজ্যে পৌর জনসংখ্যা বেশি –
(a) মণিপুর (b) উত্তরপ্রদেশ (c) মহারাষ্ট্র (d) কেরল

 

উত্তরঃ (c) মহারাষ্ট্র

 

12. যে রাজ্যে গ্রামীণ জনসংখ্যা বেশি –
(a) বিহার (b) পশ্চিমবঙ্গ (c) মধ্যপ্রদেশ (d) উত্তরপ্রদেশ

 

উত্তরঃ (d) উত্তরপ্রদেশ

 

13. জনসংখ্যা অনুসারে বৃহত্তম রাজ্য হলো—
(a) উত্তরপ্রদেশ (b) বিহার (c) পশ্চিমবঙ্গ (d) অরুণাচল প্রদেশ

 

উত্তরঃ (a) উত্তরপ্রদেশ

 

14. পৃথিবীর সর্বাধিক জনঘনত্বপূর্ণ দেশ হলো—
(a) পাকিস্তান (b) ভারত (c) চিন (d) বাংলাদেশ

 

উত্তরঃ (d) বাংলাদেশ

 

15. ‘জনবিবর্তন মডেল’-এর প্রবক্তা হলেন
(a) ম্যালসাস (b) থম্পসন (c) জিমারম্যান (d) ওয়েবার

 

উত্তরঃ (b) থম্পসন

 

16. ২০১১ সালের জনগণনা অনুসারে ভারতের মোট জনসংখ্যা হলো।
(a) 121.02 কোটি (b) 102.50 কোটি (c) 103.66 কোটি (d) 132.01 কোটি

 

উত্তরঃ (a) 121.02 কোটি

 

17. ২০১১ সালের আদমশুমারি অনুসারে ভারতে মোট মহানগরের সংখ্যা হলো—
(a) 42 (b) B 49 (c) 53 (d) 36

 

উত্তরঃ (c) 53

 

18. জনসংখ্যার যুগ পরিবর্তন তত্ত্বটি প্রথম দেন –
(a) ওয়ার্নার (b) ম্যালথাস (c) কলিন ক্লার্ক (d) গার্নিয়ার

 

উত্তরঃ (a) ওয়ার্নার

 

19. জনসংখ্যা অনুসারে ক্ষুদ্রতম রাজ্য হলো
(a) বিহার (b) সিকিম (c) গোয়া (d) অসম

 

উত্তরঃ (b) সিকিম

 

20. ভারতের সর্বাধিক জনঘনত্বপূর্ণ রাজ্য হলো—
(a) সিকিম (b) পশ্চিমবঙ্গ1129 জন (c) বিহার 1129 জন (d) উত্তরপ্রদেশ

 

উত্তরঃ (c) বিহার 1129 জন

 

অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর [ মান – 1 ]

 

1. পরিব্রাজন কাকে বলে?

 

উত্তরঃস্থায়ী বা সাময়িকভাবে নতুন স্থানে বসবাস করার উদ্দেশ্যে ভৌগোলিক সীমারেখা দ্বারা নির্দিষ্ট কোনো অঞ্চল থেকে অন্য কোনো অঞ্চলে বাসস্থান পরিবর্তনকে বলা হয় পরিব্রাজন।

 

2. ব্রেন গেন ও ব্রেন ড্রেন কী ?

 

উত্তরঃ আন্তর্জাতিক পরিব্রাজনের ক্ষেত্রে স্বল্প উন্নত বা উন্নয়নশীল দেশগুলি থেকে বুদ্ধিজীবী মানুষ উন্নত দেশগুলিতে চলে যায়, এই ঘটনাকে উন্নত দেশের ক্ষেত্রে ব্রেন। গেন এবং স্বল্প উন্নত বা উন্নয়নশীল দেশগুলির ক্ষেত্রে একে ব্রেন ড্রেন বলে।

 

3. ঋতুভিত্তিক পরিব্রাজন কাকে বলে?

 

উত্তরঃ ঋতু পরিবর্তনের সাথে সাথে বিশেষ করে পশুপালক যাযাবরদের মধ্যে যে পরিব্রাজন লক্ষ করা যায়, তাকে বলে ঋতুভিত্তিক পরিব্রাজন।

 

4. বয়স-লিঙ্গ পিরামিড কাকে বলে?

 

উত্তরঃ কোনো একটি দেশের জনসংখ্যাকে পিরামিডের ন্যায় যে চিত্রের মাধ্যমে বয়স ও স্ত্রী-পুরুষ ভেদে প্রকাশ করা হয়, তাকে বয়স-লিঙ্গ পিরামিড বলে।

 

5. জনসংখ্যা পিরামিডের গুরুত্ব কী?

 

উত্তরঃ কোনো দেশের সামাজিক, অর্থনৈতিক, জন্ম-মৃত্যুহার, জনশক্তির পরিমাণ, কর্মদক্ষতা, কর্মক্ষম জনসংখ্যা, জনস্বাস্থ্য, পরনির্ভর জনসংখ্যার ইত্যাদি সম্বন্ধে জানতে পারা যায় জনসংখ্যা পিরামিড থেকে।

 

6. ভারতে দ্রুতহারে জনসংখ্যা বৃদ্ধির কারণ কী?

 

উত্তরঃ 1901 – 2011 সালের মধ্যে ভারতে দ্রুতহারে জনসংখ্যা বৃদ্ধি পেয়েছে। এর। কারণগুলি হলো মূলত উচ্চ জন্মহার, স্বল্প মৃত্যুহার, চিকিৎসাবিজ্ঞানের উন্নতি, অল্প বয়সে বিবাহ, শরণার্থীর আগমন, মহামারি নিবারণ, কুসংস্কার, প্রযুক্তিবিদ্যায় উন্নতি ইত্যাদি।

 

7. Push & Pull Factors ?

 

উত্তরঃ যে উপাদানগুলির জন্য বিকর্ষিত হয়ে মানুষ একটি স্থান ছেড়ে অন্য স্থানে চলে যায় সেই উপাদানগুলিকে Push factor এবং যে উপাদানগুলির দ্বারা আকর্ষিত হয়ে মানুষ অন্য কোনো স্থান বা অঞ্চলে পরিব্রাজন করে, তাকে Pull factor বলে।

 

8. কত সালে ভারতে প্রথম সেন্সাস শুরু হয়?

 

উত্তরঃ 1872 সালে।

 

9. 2011 সালের সেন্সাস অনুযায়ী ভারতের সাক্ষরতার হার কত?

 

উত্তরঃ 74.04%।

 

10. 2011 সালের সেন্সাস অনুযায়ী ভারতের বৃহত্তম মহানগর কোনটি ?

 

উত্তরঃ মুম্বাই।

 

11. ভারতীয় পৌর জনবসতির ন্যূনতম জনসংখ্যা কত?

 

উত্তরঃ 5000 জন। (মহানগরের—10 লক্ষের বেশি।)।

 

12. 2011 সালের সেন্সাস অনুযায়ী ভারতের মেট্রোপলিসের সংখ্যা কত?

 

উত্তরঃ 53টি।

 

13. ভারতের কোন রাজ্যে জনসংখ্যা বৃদ্ধির হার সবচেয়ে কম?

 

উত্তরঃ কেরালায়।

 

14. ভারতের কোন কেন্দ্রশাসিত রাজ্যে সর্বাধিক ও সর্বনিম্ন জনঘনত্ব দেখা যায় ?

 

উত্তরঃ সর্বাধিক—দিল্লি (11297 জনবর্গকিমি) এবং সর্বনিম্ন—আন্দামান ও নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ (46 জনবর্গকিমি)।

 

15. জনঘনত্ব কাকে বলে?

 

উত্তরঃসাধারণত কোনো দেশ বা অঞ্চলের মোট জনসংখ্যাকে সেই দেশ অঞ্চলের মোট জমির পরিমাণ দিয়ে ভাগ করলে যে ভাগফল পাওয়া যায়, তাকে বলা হয় জনঘনত্ব।

 

16. মানুষ-জমির অনুপাত কী?

 

উত্তরঃ কোনো একটি দেশের বা অঞ্চলের মোট জনসংখ্যাকে সেই দেশের বা অএর মোট কার্যকরী জমির পরিমাণ দিয়ে ভাগ করলে যে ভাগফল পাওয়া যায়, তাকে বলা মানুষ-জমির অনুপাত।

 

17. স্বল্প জনসংখ্যা কাকে বলে?

 

উত্তরঃ কোনো দেশের জনসংখ্যা যদি সেই দেশের প্রাকৃতিক ও সাংস্কৃতিক সম্পদের তুলনায় কম হয়, তখন তাকে স্বল্প জনসংখ্যা বলে।

 

18. অত্যধিক জনসংখ্যা কাকে বলে?

 

উত্তরঃ কোনো দেশের জনসংখ্যা যদি সেই দেশের প্রাকৃতিক ও সাংস্কৃতিক সম্পদের তুলনায় বেশি হয়, তখন তাকে অত্যধিক জনসংখ্যা বলে।

 

19. কাম্য জনসংখ্যা কাকে বলে?

 

উত্তরঃ কোনো একটি রাষ্ট্রের মোট প্রাকৃতিক সম্পদের পরিপ্রেক্ষিতে যত সংখ্যক মানুষের ভরণপোষণ সম্ভব, সেই জনসংখ্যার মানকে বলা হয় কাম্য জনসংখ্যা।

 

20. জন্মহার কাকে বলে?

 

উত্তরঃ কোনো একটি দেশে প্রতি হাজার জন মানুষ পিছু যতজন জীবন্ত শিশুর জন্ম হয়, তাকে ঐ দেশের জন্মহার বা স্থূল জন্মহার বলে।

 

21. মৃত্যুহার কাকে বলে ?

 

উত্তরঃ প্রতি বছর কোনো দেশে প্রতি হাজারে যতজন মানুষ মারা যায়, তাকে ঐ দেশের মৃত্যুহার বলে।

 

22. জন অভিক্ষেপ কাকে বলে?

 

উত্তরঃ বিগত বছরগুলির জনসংখ্যা বৃদ্ধির পরিসংখ্যানকে পর্যালোচনার দ্বারা বিশ্বের জনসংখ্যা বাড়তে বাড়তে কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে তার পূর্বাভাস দেওয়াকে বলা হয় জন অভিক্ষেপ।

 

23. 2011 সালের আদমশুমারি অনুসারে ভারতের সর্বাধিক জনবহুল রাজ্যের নাম ক ?

 

উত্তরঃ উত্তরপ্রদেশ।

 

24. 2011 সালের সেন্সাস অনুসারে ভারতের সর্বাধিক জনঘনত্বপূর্ণ রাজ্য কোনটি?

 

উত্তরঃ বিহার (1102 জনবর্গকিমি) পশ্চিমবঙ্গ দ্বিতীয় (1029 জনবর্গকিমি)।

 

25. 2011 সালের সেন্সাস অনুসারে ভারতের সর্বনিম্ন জনঘনত্বপূর্ণ রাজ্য কোনটা ?

 

উত্তরঃ অরুণাচল প্রদেশ (17 জনবর্গকিমি)।

 

26. 2011 সালের আদমশুমারি অনুসারে ভারতের কোন রাজ্যে জনসংখ্যার পরিমাণ সর্বনিম্ন ?

 

উত্তরঃ সিকিম।

 

27. 2011 সালের সেন্সাস অনুসারে আয়তনে ভারতের বৃহত্তম রাজ্য কোনটি ?

 

উত্তরঃ রাজস্থান (গোয়া ক্ষুদ্রতম)।

 

28. 2011 সালের সেন্সাস অনুসারে ভারতের জনঘনত্ব কত?

 

উত্তরঃ 382 জনবর্গকিমি (2001 সালে ছিল 324 জনবর্গকিমি) (মিশরে জনঘনত্ব 83 জনবর্গকিমিতে)।

 

29. কোন দশকে ভারতে জনসংখ্যার বৃদ্ধির হার ঋণাত্মক ছিল ?

 

উত্তরঃ 1911 – 1921।

 

30. ভারতের কোন রাজ্যে সাক্ষরতার হার বেশি ?

 

উত্তরঃ কেরালায় (93.91%)। সর্বনিম্ন বিহার (63.82%)।

 

31. ভারতের কোন রাজ্যে পুরুষের তুলনায় নারীর সংখ্যা বেশি ?

 

উত্তরঃ গুর বিহারে।

 

32. প্রামাণ্য জন্মহার কী?

 

উত্তরঃ কোনো দেশের বিভিন্ন বয়সের অন্তর্ভুক্ত নারীরা প্রতি বছর সম্ভাব্য যতজন শিশুর জন্ম দেয় তাকে ঐ অঞলের সমস্ত জনসংখ্যা দিয়ে ভাগ করলে এবং ঐ ভাগফলকে 1000 দিয়ে গুণ করলে যে সংখ্যা পাওয়া যায়, তাকে প্রামাণ্য জন্মহার বলে।

 

33. জনসংখ্যার ঋণাত্মক বৃদ্ধি কাকে বলে?

 

উত্তরঃ যেসব দেশে জন্মহারের তুলনায় মৃত্যুহার বেশি সেইসব দেশে জনসংখ্যা বৃদ্ধি না পেয়ে হ্রাস পায়, একেই জনসংখ্যার ঋণাত্মক বৃদ্ধি বলে।

 

বিশ্লেষণ বা বর্ণনাভিত্তিক প্রশ্নোত্তর [ মান – 7 ]

 

1. বিশ্বব্যাপী জনসংখ্যা বণ্টনের ওপর পরিব্রাজনের প্রভাব আলোচনা করো। জনবিবর্তন মডেলের বিভিন্ন পর্যায়ের বৈশিষ্ট্যগুলি উল্লেখ করো।

 

2. কাম্য জনসংখ্যার বৈশিষ্ট্য লেখো। ভারতের জনসংখ্যা বৃদ্ধির পর্যায়গুলি সংক্ষেপে লেখো। ভারতে জনাকীর্ণতা ও জনবিরলতার কয়েকটি প্রভাব লেখো। ভারতে জনসংখ্যা বৃদ্ধির গতিপ্রকৃতি সংক্ষেপে লেখো।

 

3. উন্নত ও উন্নয়নশীল দেশের জনসংখ্যা পিরামিডের পার্থক্য লেখো। ভারতে জনসংখ্যা দ্রুত বৃদ্ধি হওয়ার কারণ কী? মানুষ-জমি অনুপাতকে একটি গতিশীল ধারণা বলার কারণ কী?

জনবসতি | অর্থনৈতিক ভূগোল – Economic Geography | উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion

 

MCQ প্রশ্নোত্তর [ মান – 1 ]

 

1. 2011 সালের সেন্সাস অনুযায়ী ভারতে মোট জনসংখ্যার কত শতাংশ মানুষ শহরে বসবাস করে?
(a) 60 (b) 40.1 (c) 75.06 (d) 31.16%.

 

উত্তরঃ

 

2. শুষ্কবিন্দু বসতি লক্ষ করা যায়—
(a) বন্যাপ্লাবিত (b) খরা প্রভাবিত (c) ধসপ্রবণ (d) উপকূলবর্তী অঞ্চলে

 

উত্তরঃ (d) উপকূলবর্তী অঞ্চলে

 

3. জলবিন্দু বসতি লক্ষ করা যায়?
(a) আর্দ্র অঞলে (b) শুষ্ক মরু অঞ্চলে (c) ভূমধ্যসাগরীয় অঞলে (d) নিরক্ষীয় অঞলে

 

উত্তরঃ (a) আর্দ্র অঞলে

 

4. ভারতে শহরের ন্যূনতম জনসংখ্যা হলো—
(a) 5000 (b) 2500 (c) 1000 (d).4000.

 

উত্তরঃ (b) 2500

 

5. ভারতে মহানগরের ন্যূনতম জনসংখ্যা হলো—
(a) 17 (b) 10 (c) 20 (d) 15 লক্ষ

 

উত্তরঃ (b) 10

 

6. ক্ষুদ্র ও বিচ্ছিন্ন গ্রামীণ জনবসতিকে বলে
(a) শুষ্কবিন্দু (c) মৌজা (d) হ্যামলেট

 

উত্তরঃ (d) হ্যামলেট

 

7. প্রথম শ্রেণির শহর বা নগরের নূ্যনতম জনসংখ্যা হলো
(a) 5000-1000 (b) 10000-1000000 (c) 100000-র বেশি (d) 50000-1000000.

 

উত্তরঃ (c) 100000-র বেশি

 

8. দু’টি রাস্তার সমকোণে কী ধরনের বসতি লক্ষ করা যায়?
(a) L (b) T (c) Z (d) O আকৃতির

 

উত্তরঃ (a) L

 

9. জনসংখ্যার ভিত্তিতে ভারতের বৃহত্তম শহরটির নাম হলো—
(a) কলকাতা (b) মুম্বাই (c) দিল্লি (d) চেন্নাই

 

উত্তরঃ (b) মুম্বাই

 

10. 2011 সালের সেন্সাস অনুযায়ী ভারতের মোট জনসংখ্যার কত শতাংশ মানুষ গ্রামে বসবাস করে?
(a) 45 (b) 60 (c) 68.84 (d) 70-64%.

 

উত্তরঃ (c) 68.84

 

অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর [ মান – 1]

 

1. জনবসতি কাকে বলে?

 

উত্তরঃ যখন কোনো অঞ্চলের বা স্থানের অনুকুল ভৌগোলিক পরিবেশের উপর নির্ভর করে মানুষ বসবাস করে তখন তাকে জনবসতি বলে।

 

2. ক্যাডাস্ট্রাল ম্যাপ কী?

 

উত্তরঃ মূলত গ্রামাঞ্চলে ভূমির দাগ নং অনুযায়ী যে মানচিত্র ব্যবহার করা হয় তাকে ক্যাডাস্ট্রাল ম্যাপ বলে। বৃহৎ স্কেলে সাধারণত 16 ইঞ্চিতে 1 মাইল ধরা হয়।

 

3. ভারতীয় পৌর জনবসতির ন্যূনতম জনঘনত্ব কত?

 

উত্তরঃর 400 জনবর্গকিমি।

 

4. জলবিন্দু বসতি কাকে বলে ?

 

উত্তরঃ শুষ্ক মরু অঞ্চলে জলের উৎসকে কেন্দ্র করে যে জনবসতি গড়ে ওঠে, তাকে জলবিন্দু বসতি বলে।

 

5. নিম্ন গাঙ্গেয় সমভূমি অঞলে কোন প্রকার গ্রামীণ বসতি লক্ষ করা যায় ?

 

উত্তরঃ গোষ্ঠীবদ্ধ জনবসতি।

 

6. রাস্তার দুপাশে কোন ধরনের জনবসতি লক্ষ করা যায়?

 

উত্তরঃ রৈখিক জনবসতি।

 

7. সামাজিক নৈকট্য কোন ধরনের জনবসতি লক্ষ্য করা যায় ?

 

উত্তরঃ গোষ্ঠীবদ্ধ জনবসতি।

 

8. তিনটি রাস্তা একটি বিন্দুতে মিলিত হয়ে কী ধরনের বসতি গড়ে ওঠে?

 

উত্তরঃ Y আকৃতির।

 

9. দিঘা ও ওড়িশার সীমান্তবর্তী অঞ্চলে কোন ধরনের জনবসতি দেখা যায় ?

 

উত্তরঃ রৈখিক বা দণ্ডকৃতির জনবসতি।

 

10. সেন্সস গ্রাম কাকে বলে?

 

উত্তরঃ মৌজার ভিত্তিতে মূলত জনগণনা করা হয় বলে মৌজাকে সেন্সস গ্রাম বলে।

 

11. গ্লোবাল সিটি কী?

 

উত্তরঃ বিশ্বের অর্থনীতিকে প্রভাবিত করে যেসব নগর তাদের গ্লোবাল সিটি বা আলফা সিটি।
বিশ্লেষণ বা বর্ণনাভিত্তিক প্রশ্নোত্তর [ মান – 7 ]

 

1. আয়তন অনুযায়ী ও লুই মামফোর্ডের তত্ত্ব অনুযায়ী পৌরবসতির শ্রেণিবিভাগ করো।

 

2. বিভিন্ন ধরনের গ্রামীণ বসতি গড়ে ওঠার কারণ কী? ভারতে নগরায়ণের বৈশিষ্ট্যগুলি কী?

 

3. 2011 সালে ভারতে নগরায়ণের গতিপ্রকৃতি আলোচনা করো। গ্রামীণ ও পৌরবসতির মধ্যে পার্থক্য লেখো।

আঞ্চলিক অর্থনৈতিক উন্নয়ন | অর্থনৈতিক ভূগোল – Economic Geography | উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | HS Geography Suggestion

 

MCQ প্রশ্নোত্তর [ মান – 1 ]

 

1. ছত্তিশগড়ের একটি কয়লা উৎপাদনকারী কেন্দ্র হলো
(a) কোরবা (b) ঝড়িয়া(c) রানিগঞ্জ (d) কয়লাডিলা

 

উত্তরঃ (a) কোরবা

 

2. ছত্তিশগড়ের প্রধান লৌহ-ইস্পাত শিল্পকেন্দ্রটি হলো
(a) ঝড়িয়া (b) ভিলাই (c) বোকারো (d) বায়লাভিলা

 

উত্তরঃ (b) ভিলাই

 

2. ছত্তিশগড়ে একমাত্র পাটশিল্প গড়ে উঠেছে
(a) রায়পুরে (b) জয়পুরে (c) রায়গড়ে (d) বস্তারে

 

উত্তরঃ (c) রায়গড়ে

 

3. ছত্তিশগড়ের কোথায় কাপাসবয়ন শিল্পকেন্দ্র গড়ে উঠেছে?
(a) বস্তার (b) রায়পুর (c) রায়গড়ে (d) বিলাসপুরে

 

উত্তরঃ (d) বিলাসপুরে

 

4. ভারতের সিলিকন ভ্যালি যে শিল্পের জন্য বিখ্যাত তা। হলো—
(a) বৈদ্যুতিন (b) জাহাজ নির্মাণ (c) কার্পাস (d) ইক্ষু শিল্প

 

উত্তরঃ (a) বৈদ্যুতিন

 

5. ভারতের ‘সিলিকন ভ্যালি’ নামে কোন শহরটি পরিচিত?
(a) কলকাতা (b) বেঙ্গালুরু (গার্ডেন সিটি) (c) চেন্নাই (d) পুণে

 

উত্তরঃ (b) বেঙ্গালুরু (গার্ডেন সিটি)

 

6. ভারতের একমাত্র টিন উৎপাদক রাজ্য কোনটি?
(a) মহারাষ্ট্র (b) তামিলনাড়ু (c) ছত্তিশগড় (d) ওড়িশা

 

উত্তরঃ (c) ছত্তিশগড়

 

7. পূর্ব ভারতের একটি নবগঠিত বন্দরভিত্তিক অর্থনৈতিক উন্নয়ন অঞল হলো—
(a) মুম্বাই (b) কাণ্ডালা (c) হুগলি (d) হলদিয়া।

 

উত্তরঃ (d) হলদিয়া।

 

অতিসংক্ষিপ্ত প্রশ্নোত্তর [ মান – 1]

 

1.ছত্তিশগড়ের বিলাসপুর জেলার মৈকাল পাহাড়ে কোন খনিজ পদার্থ পাওয়া যায় ?

 

উত্তরঃ বক্রাইট।

 

2. ছত্তিশগড়ে বসবাসকারী প্রধান উপজাতিরা কী নামে পরিচিত?

 

উত্তরঃগোল্ড নামে পরিচিত।

 

3. অর্থনৈতিক উন্নয়নের একটি প্রধান সূচক কী?

 

উত্তরঃ ক্রয় ক্ষমতার সমতা।

 

4. ছত্তিশগড়ের কোন জেলায় অরণ্যের পরিমাণ সর্বাধিক ও সর্বনিম্ন ?

 

উত্তরঃ সুরগুজা (সর্বাধিক) ও দুর্গ (সর্বনিম্ন)।

 

5. ছত্তিশগড়ে মোট আয়তনের কত শতাংশ অরণ্য আছে?

 

উত্তরঃ 19:26%।

 

6. ছত্তিশগড়ের প্রধান নদীর নাম কী?

 

উত্তরঃ মহানদী।

 

7. কোন জলপ্রপাতকে ভারতের নায়াগ্রা বলা হয় ?

 

উত্তরঃ চিত্রকুট জলপ্রপাত (ছত্তিশগড়ের ইন্দ্রাবতী নদীর ওপর অবস্থিত)।

 

8. ছত্তিশগড় রাজ্যের দুটি গুরুত্বপূর্ণ খনিজের নাম লেখো।

 

উত্তরঃ কয়লা ও ডলোমাইট।

 

বিশ্লেষণ বা বর্ণনাভিত্তিক প্রশ্নোত্তর [ মান – 7 ]

 

1. ছত্তিশগড়ের খনিজ সম্পদের বিবরণ দাও। বেঙ্গালুরুকে ভারতের ইলেকট্রনিক্স শহর বা নব্যপ্রযুক্তির শহর বলার কারণ কী?

 

2. বেঙ্গালুরুতে ইলেকট্রনিক্স শিল্পের উন্নতির কারণ কী? বেঙ্গালুরুতে ইলেকট্রনিকস শিল্পের সমস্যা ও সমাধান সংক্ষেপে লেখো।

 

3. পরিকল্পনা অঞ্চলের বৈশিষ্ট্য লেখো। বৃহৎ ও ক্ষুদ্র পরিকল্পনা অঙ্কুলের মধ্যে পার্থক্য লেখো।

উচ্চমাধ্যমিক সাজেশন ২০২৩ – HS Suggestion 2023

আরোও দেখুন:-

HS Bengali Suggestion 2023 Click here

আরোও দেখুন:-

HS English Suggestion 2023 Click here

আরোও দেখুন:-

HS Geography Suggestion 2023 Click here

আরোও দেখুন:-

HS History Suggestion 2023 Click here

আরোও দেখুন:-

HS Political Science Suggestion 2023 Click here

আরোও দেখুন:-

HS Philosophy Suggestion 2023 Click here

আরোও দেখুন:-

HS Sociology Suggestion 2023 Click here

আরোও দেখুন:-

HS Sanskrit Suggestion 2023 Click here

আরোও দেখুন:-

HS Education Suggestion 2023 Click here

FILE INFO : উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন | WB HS Geography Suggestion | WEST BENGAL HIGHER SECONDARY GEOGRAPHY SUGGESTION WBCHSE

 

File Details:
PDF Name : উচ্চ মাধ্যমিক ভূগোল সাজেশন  | HS Geography Suggestion
Language : Bengali
Size : 1.5 mb
No. of Pages : 80
Download Link : Click Here To Download
বিভিন্ন স্কুল বোর্ড পরীক্ষা, প্রতিযোগিতা মূলক পরীক্ষার সাজেশন, অতিসংক্ষিপ্ত, সংক্ষিপ্ত ও রোচনাধর্মী প্রশ্ন উত্তর (All Exam Guide Suggestion, MCQ Type, Short, Descriptive Question and answer), প্রতিদিন নতুন নতুন চাকরির খবর (Job News in Bengali) জানতে এবং সমস্ত পরীক্ষার এডমিট কার্ড ডাউনলোড (All Exam Admit Card Download) করতে winexam.in ওয়েবসাইট ফলো করুন, ধন্যবাদ।
ভূগোল শিক্ষা

Recent Posts

একাদশ শ্রেণীর সমস্ত বিষয় সাজেশন ২০২৩ | Class 11 All Subjects Suggestion 2023 PDF Download

একাদশ শ্রেণীর সমস্ত বিষয় সাজেশন ২০২৩ Class 11 All Subjects Suggestion 2023 PDF Download একাদশ…

2 months ago

একাদশ শ্রেণীর গণিত সাজেশন ২০২৩ | Class 11 Mathematics Suggestion 2023 PDF Download

একাদশ শ্রেণীর গণিত সাজেশন ২০২৩ Class 11 Mathematics Suggestion 2023 PDF Download একাদশ শ্রেণীর গণিত…

2 months ago

একাদশ শ্রেণীর জীববিদ্যা সাজেশন ২০২৩ | Class 11 Biology Suggestion 2023 PDF Download

একাদশ শ্রেণীর জীববিদ্যা সাজেশন ২০২৩ Class 11 Biology Suggestion 2023 PDF Download একাদশ শ্রেণীর জীববিদ্যা…

2 months ago

একাদশ শ্রেণীর রসায়ন সাজেশন ২০২৩ | Class 11 Chemistry Suggestion 2023 PDF Download

একাদশ শ্রেণীর রসায়ন সাজেশন ২০২৩ Class 11 Chemistry Suggestion 2023 PDF Download একাদশ শ্রেণীর রসায়ন…

2 months ago

একাদশ শ্রেণীর পদার্থবিদ্যা সাজেশন ২০২৩ | Class 11 Physics Suggestion 2023 PDF Download

একাদশ শ্রেণীর পদার্থবিদ্যা সাজেশন ২০২৩ Class 11 Physics Suggestion 2023 PDF Download একাদশ শ্রেণীর পদার্থবিদ্যা…

2 months ago

একাদশ শ্রেণীর সমাজবিজ্ঞান সাজেশন ২০২৩ | Class 11 Sociology Suggestion 2023 PDF Download

একাদশ শ্রেণীর সমাজবিজ্ঞান সাজেশন ২০২৩ Class 11 Sociology Suggestion 2023 PDF Download একাদশ শ্রেণীর সমাজবিজ্ঞান…

2 months ago